প্রধান মেনু খুলুন

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ বা ডিএসই বাংলাদেশের প্রধান ও প্রথম শেয়ার বাজার। দ্বিতীয় শেয়ার বাজার হচ্ছে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ। ডিএসই ঢাকার কেন্দ্রস্থল হিসেবে বিবেচিত মতিঝিল এলাকায় অবস্থিত। ১৯৫৪ সালে এটি গঠিত হয়। ১৮ আগস্ট, ২০১০ তারিখ পর্যন্ত এতে ৭৫০টিরও অধিক তালিকাভূক্ত প্রতিষ্ঠান সম্মিলিতভাবে পুঁজি বাজারে ৫০.২৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করে।[১]

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ-এর লোগো.svg
ধরণশেয়ার বাজার
অবস্থানঢাকা, বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক৫৯°৫৪′৩১.৩১″ উত্তর ১০°৪৪′৫২.০৬″ পূর্ব / ৫৯.৯০৮৬৯৭২° উত্তর ১০.৭৪৭৭৯৪৪° পূর্ব / 59.9086972; 10.7477944
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৫৪
প্রধান ব্যক্তিসিদ্দিকুর রহমান মিয়া[চেয়ারম্যান, বোর্ড অফ ডিরেক্টর]
মুদ্রাটাকা
পণ্যদ্রব্যশেয়ার
তালিকা সংখ্যা219
সূচকইনডেক্স
ওয়েবসাইটwww.dsebd.org

পরিচ্ছেদসমূহ

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৫২ সালে তৎকালীন পাকিস্তান সরকার তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তানে প্রথম বারের মত স্টক এক্সচেঞ্জের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করে। সেইসময়কার বাস্তবতায় এই অঞ্চলের একমাত্র স্টক এক্সচেঞ্জ হিসাবে কলকাতা স্টক এক্সচেঞ্জ “পাকিস্তানি” ব্যবসার জন্য শেয়ার এবং সিকিউরিটি লেনদেন নিষিদ্ধ ঘোষণা করলে পাকিস্তানের প্রাদেশিক বাণিজ্য পরামর্শক পরিষদকে একটি স্টক এক্সচেঞ্জ স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় নীতিমালা নির্ধারণ করার দায়িত্ব দেয়া হয়। বিভিন্ন ধাপ পেরিয়ে অনেক পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে ১৯৫৯ সালে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ তার ৯/ফ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকার নিজস্ব বর্তমান ঠিকানায় স্থান পায়।

নিয়ন্ত্রণসম্পাদনা

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডি এস ই) “পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি” হিসাবে নিবন্ধিত। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ “আর্টিকেলস অফ রুলস এন্ড রেগুলেশন্স এন্ড বাই-লজ”, “সিকিউরিটিজ এবং এক্সচেঞ্জ অধ্যাদেশ ১৯৬৯”, “কোম্পানীজ আইন ১৯৯৪” এবং “সিকিউরিটিজ এবং এক্সচেঞ্জ কমিশন আইন ১৯৯৩” দ্বারা শাসিত হয়ে থাকে।

কার্যাবলীসম্পাদনা

  • ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানসমূহের নথিভুক্তিকরণ
  • নথিভূক্ত সিকিউরিটিজের নিয়ন্ত্রিত বাণিজ্য
  • বাণিজ্য সমঝোতা
  • বিনিময় নিয়ন্ত্রণ
  • বাজার পর্যালোচনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা