প্রধান মেনু খুলুন

হোরেস এডগার ডলারি (ইংরেজি: Tom Dollery; জন্ম: ১৪ অক্টোবর, ১৯১৪ - মৃত্যু: ২০ জানুয়ারি, ১৯৮৭) বার্কশায়ারের রিডিং এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা ছিলেন।[১] ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। এছাড়াও, ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর কাউন্টি ক্রিকেটে ওয়ারউইকশায়ারের প্রতিনিধিত্ব করতেন টম ডলারি। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যানের দায়িত্ব পালন করতেন।

টম ডলারি
টম ডলারি.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামহোরেস এডগার ডলারি
জন্ম(১৯১৪-১০-১৪)১৪ অক্টোবর ১৯১৪
রিডিং, বার্কশায়ার, ইংল্যান্ড
মৃত্যু২০ জানুয়ারি ১৯৮৭(1987-01-20) (বয়স ৭২)
এজবাস্টন, বার্মিংহাম, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরন-
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪৩৬
রানের সংখ্যা ৭২ ২৪৪১৪
ব্যাটিং গড় ১০.২৮ ৩৭.৫০
১০০/৫০ -/- ৫০/১২৮
সর্বোচ্চ রান ৩৭ ২১২
বল করেছে - ৪৮
উইকেট - -
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/- ২৯০/১৪
উৎস: ক্রিকইনফো, ১৪ আগস্ট ২০১৭

পরিচ্ছেদসমূহ

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

রিডিং বিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করেন। ১৫ বছর বয়সে মাইনর কাউন্টিজ ক্রিকেটে বার্কশায়ারের প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি।[১]

১৯৩৪ সালে ওয়ারউইকশায়ারের পক্ষে যোগ দেন। ১৯৫৫ সালে অবসরগ্রহণের পূর্ব-পর্যন্ত দলের প্রধান মেরুদণ্ড ছিলেন তিনি। মাঝারিসারিতে ব্যাটিংয়ে নামতেন। ১৯৩৫ থেকে ১৯৫৫ সময়কালে ধারাবাহিকভাবে পনেরটি প্রথম-শ্রেণীর মৌসুমে সহস্রাধিক রান সংগ্রহ করেন।

১৯৫২ সালে ডলারি তার সর্বোচ্চ ইনিংস ২১২ রান তুলেন লিচেস্টারশায়ারের বিপক্ষে। মাঠে তিনি মূলতঃ কভার অঞ্চলে অবস্থান করতেন। পরবর্তীতে স্লিপে ও ১৯৪৭ সালের অর্ধেক মৌসুম উইকেট-রক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন।[২]

অধিনায়কত্ব লাভসম্পাদনা

১৯৪৮ সালে যৌথভাবে ওয়ারউইকশায়ারের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন। পরের বছর একাকী এ দায়িত্বে ছিলেন যা পরবর্তী সাত মৌসুম পর্যন্ত চলমান ছিল। ১৯৫১ সালে কাউন্টিকে ১৯১১ সালের পর তাদের প্রথম কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা বিজয়ে নেতৃত্ব দেন যা কেবলমাত্র দ্বিতীয়বারের মতো ছিল।

লিচেস্টারশায়ারের লেস বেরি’র পর দ্বিতীয় পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে বিংশ শতাব্দীতে কাউন্টি ক্লাবকে পরিচালনা করার সুযোগ পেয়েছেন। ১৯৩৫ সালে ইউয়ার্ট অ্যাস্টিল লিচেস্টারশায়ারকে এক মৌসুম অধিনায়কত্ব করলেও তখন কোন শৌখিন খেলোয়াড় এ দায়িত্ব নিতে রাজী ছিলেন না।

টেস্ট ক্রিকেটে তুলনামূলকভাবে কম সফলতা লাভ করেন ডলারি। ১৯৪৭ থেকে ১৯৫০ সময়কালে ইংল্যান্ডের পক্ষে চারবার অংশগ্রহণ করেন। সাত ইনিংসে তিনি মাত্র ৭২ রান তুলতে পেরেছিলেন।

মূল্যায়ণসম্পাদনা

১৯৫২ সালে উইজডেন কর্তৃক অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটার মনোনীত হন।[৩] মূলতঃ ১৯৫১ সালে চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা বিজয়ে প্রথম পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে তার অনবদ্য প্রচেষ্টার কারণেই এ স্বীকৃতি দেয়া হয়েছিল।[৪]

ডলারি’র নীতিবোধ খ্যাতির তুঙ্গে পৌঁছে। প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ ক্রিকেটে পেশাদার অধিনায়কদের মধ্যে তিনি অন্যতম ছিলেন ও নিশ্চিতভাবেই সফলতম অধিনায়কদের একজনরূপে স্বীকৃতি পেয়েছেন।

উইজডেন মন্তব্য করে যে, অধিনায়ক হিসেবে স্বাতন্ত্র্যতাবোধই তার সফলতার মূল কারণ ছিল। এতে বলা হয়: তিনি স্বভাবজাত অধিনায়ক হিসেবে মাঠ ও মাঠের বাইরে উভয় স্থানেই তার দক্ষতার বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছেন। তিনি সর্বদাই আত্মবিশ্বাসে পরিপূর্ণ দলকে একত্রিত অবস্থায় রাখতেন। বিশেষ করে মাঠে প্রতিপক্ষের দূর্বলতা চিহ্নিতকরণে তিনি অতুলনীয় ছিলেন।[৫] ডলারি বিশ্বাস করতেন যে, পেশাদার অধিনায়ক হিসেবে দলে অবস্থান করে তার সঙ্গীদের চেয়ে পৃথকভাবে অবস্থানকারী শৌখিন খেলোয়াড়দেরকে জানা অবশ্যম্ভাবী। পাশাপাশি তিনি বলেন যে, মাঝে-মধ্যেই তিনি ড্রেসিং-রুমে খেলা শুরুর পূর্বে পা রাখতেন ও কোন বোলারের ক্রীড়াশৈলী ভালো অবস্থানে রয়েছে তা যাচাই করতেন।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর নেয়ার পর টম ও তার স্ত্রী জিন এজবাস্টন গল্ফ ক্লাবের স্টুয়ার্ডের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। তাঁদের নাতি অ্যাবি এপ্রিল, ২০০৯ সালে ওয়ারউইকশায়ার ও ইংরেজ টেস্ট ক্রিকেটার জোনাথন ট্রটের সাথে পরিণয়সূত্রে আবদ্ধ হন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Bateman, Colin (১৯৯৩)। If The Cap Fits। Tony Williams Publications। পৃষ্ঠা 54। আইএসবিএন 1-869833-21-X 
  2. Wisden। "Tom Dollery"। Espncricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১১ 
  3. "Wisden Cricketers of the Year"। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০২-২১ 
  4. "Tom Dollery"Wisden। ১৯৫২। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০১৪ 
  5. "Warwickshire in 1951"। Wisden Cricketers' Almanack (1952 সংস্করণ)। Wisden। পৃষ্ঠা 544। 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা