জ্যাক্সনভিল, ফ্লোরিডা

ফ্লোরিডার সবচেয়ে বড় শহর

জ্যাক্সনভিল ফ্লোরিডার সর্বাধিক জনবহুল শহর এবং এটি ২০২০ সালের হিসাবে আয়তনের ভিত্তিতে যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বড় শহর।[৮] এটি ডুভাল কাউন্টির আসন,[৯] যেটি দিয়ে ১৯৬৮ সালে নগর সরকারে একীভূত হয়। একীকরণ জ্যাক্সনভিলকে তার সুবৃহৎ আকার দিয়েছে এবং এর মহানগরীয় জনসংখ্যার বেশিরভাগ অংশকে শহর সীমার মধ্যে রেখে দিয়েছে। ২০১৯ সালের হিসাবে জ্যাক্সনভিলের জনসংখ্যা ৯,১১,৫০৭ জন, এটি আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ১২তম জনবহুল শহর, দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের সর্বাধিক জনবহুল শহর এবং টেক্সাস রাজ্যের বাইরে দক্ষিণের সর্বাধিক জনবহুল শহর।[১০] জ্যাক্সনভিল মহানগর অঞ্চলের জনসংখ্যা ১৫,২৩,৬১৫ জন এবং এটি ফ্লোরিডার চতুর্থ বৃহত্তম মহানগর অঞ্চল।[১১]

জ্যাক্সনভিল, ফ্লোরিডা
একীভূত শহর–কাউন্টি
সিটি অব জ্যাক্সনভিল
উপরে, বাম থেকে ডানে: ডাউনটাউন জ্যাকসনভিলি, জ্যাকসনভিল স্কাইওয়ে, ফ্লোরিডা থিয়েটার, ডেমস পয়েন্ট সেতু, টিআইএএ ব্যাংক ফিল্ড, প্রাইম এফ ওসোবার তৃতীয় সম্মেলন কেন্দ্র, জেমস ওয়েলডন জনসন পার্ক, মেমোরিয়াল উদ্যানের মূর্তি, জ্যাক্সপোর্ট, ভাইস্টার ওয়েটারানস মেমোরিয়াল এরিনা
জ্যাক্সনভিল, ফ্লোরিডার পতাকা
পতাকা
জ্যাক্সনভিল, ফ্লোরিডার অফিসিয়াল সীলমোহর
সীলমোহর
ডাকনাম: "জ্যাক্স", "নদী শহর", "জে-উইলে", "দক্ষিণের বোল্ড নিউ সিটি", "ডুভাল"
নীতিবাক্য: ফ্লোরিডা যেখানে শুরু হয়, এখানে এটি আরও সহজ
ডুভাল কাউন্টির মধ্যে অবস্থান
ডুভাল কাউন্টির মধ্যে অবস্থান
জ্যাক্সনভিল ফ্লোরিডা-এ অবস্থিত
জ্যাক্সনভিল
জ্যাক্সনভিল
জ্যাক্সনভিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র-এ অবস্থিত
জ্যাক্সনভিল
জ্যাক্সনভিল
জ্যাক্সনভিল উত্তর আমেরিকা-এ অবস্থিত
জ্যাক্সনভিল
জ্যাক্সনভিল
জ্যাক্সনভিলের অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ৩০°২০′১৩″ উত্তর ৮১°৩৯′৪১″ পশ্চিম / ৩০.৩৩৬৯৪° উত্তর ৮১.৬৬১৩৯° পশ্চিম / 30.33694; -81.66139স্থানাঙ্ক: ৩০°২০′১৩″ উত্তর ৮১°৩৯′৪১″ পশ্চিম / ৩০.৩৩৬৯৪° উত্তর ৮১.৬৬১৩৯° পশ্চিম / 30.33694; -81.66139[১]
দেশযুক্তরাষ্ট্র
রাজ্যফ্লোরিডা
কাউন্টিডুভাল
প্রতিষ্ঠা১৮২২
অন্তর্ভূক্ত১৮৩২
একীভূত[২]১৯৬৮
নামকরণের কারণঅ্যান্ড্রু জ্যাকসন
সরকার
 • ধরনশক্তিশালী মেয়র–কাউন্সিল
 • শাসকজ্যাক্সনভিলে সিটি কাউন্সিল
 • মেয়রলেননি কারি (আর)
আয়তন[৩]
 • মোট৮৭৪.৬৭ বর্গমাইল (২,২৬৫.৩৯ বর্গকিমি)
 • স্থলভাগ৭৪৭.৪৮ বর্গমাইল (১,৯৩৫.৯৭ বর্গকিমি)
 • জলভাগ১২৭.১৯ বর্গমাইল (৩২৯.৪২ বর্গকিমি)
উচ্চতা[১]১৬ ফুট (৫ মিটার)
জনসংখ্যা (২০১০)[৪][৫]
 • মোট৮,২১,৭৮৪
 • আনুমানিক (২০১৯)[৬]৯,১১,৫০৭
 • ক্রমপ্রথম ফ্লোরিডায়
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে দ্বাদশ
 • জনঘনত্ব১,২১৯.৪৪/বর্গমাইল (৪৭০.৮৩/বর্গকিমি)
 • পৌর এলাকা১০,৬৫,২১৯ (যুক্তরাষ্ট্র: ৪০তম))
 • মহানগর১৫,০৪,৯৮০ (যুক্তরাষ্ট্র: ৩৯তম)
 • সিএসএ১৬,৩১,৪৮৮ (যুক্তরাষ্ট্র: ৩৪তম))
সময় অঞ্চলপূর্ব (ইএসটি) (ইউটিসি−৫)
 • গ্রীষ্মকালীন (দিসস)ইডিটি (ইউটিসি−৪)
জিপ কোড৩২০৯৯, ৩২২০১–৩২২১২, ৩২২১৪–৩২২৪১, ৩২২৪৪–৩২২৪৭, ৩২২৫০, ৩২২৫৪–৩২২৬০, ৩২২৬৬, ৩২২৬৭, ৩২২৭৭, ৩২২৯০
এলাকা কোড৯০৪
এফএডি কোড১২-৩৫০০০
জিএনআইএস বৈশিষ্ট্য আইডি০২৯৫০০৩[৭]
বিমানবন্দরজ্যাক্সনভিল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর
ইন্টারস্টেটlink = ফ্লোরিডায় ইন্টারস্টেট ১০ link = ফ্লোরিডায় ইন্টারস্টেট ৯৫ link = ইন্টারস্টেট ২৯৫ (ফ্লোরিডা)
জলপথসেন্ট জনস নদী, ফল খাঁড়ি, আর্লিংটন নদী
ওয়েবসাইটসিটি অব জ্যাক্সনভিল

জ্যাক্সনভিল জর্জিয়া রাজ্য সীমানার প্রায় ২৫ মাইল (৪০ কিলোমিটার) দক্ষিণে এবং মায়ামি থেকে ৩২৮ মাইল (৫২৮ কিমি) উত্তরে উত্তর-পূর্ব ফ্লোরিডার প্রথম উপকূল অঞ্চলে সেন্ট জনস নদীর তীরে অবস্থিত।[১২] জ্যাক্সনভিললে সৈকত সম্প্রদায়গুলি সংলগ্ন আটলান্টিক উপকূলে রয়েছে। এই অঞ্চলটি মূলত টিমুকুয়ার লোকেরা বাস করত এবং ১৫৬৪ সালে ফোর্ট ক্যারোলিনের ফরাসী উপনিবেশের স্থান ছিল, এটি বর্তমানে মহাদেশীয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম প্রাচীন ইউরোপীয় জনবসতি। ব্রিটিশ শাসনের অধীনে নদীর মধ্যের সরু স্থানে একটি বসতি গড়ে ওঠে, যেখানে গবাদি পশুগুলি সেমিনোল থেকে ওয়াকা পাইলেটকার মধ্যে পারাপার করা হত এবং ব্রিটিশদের কাছে স্থানটি কাউ ফোর্ড নামে পরিচিত ছিল। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র স্পেনের থেকে ফ্লোরিডা অর্জনের এক বছর পরে ১৮২২ সালে সেখানে একটি প্লাটড শহর প্রতিষ্ঠিত হয়; এটি ফ্লোরিডা টেরিটরির প্রথম সামরিক গভর্নর এবং আমেরিকার সপ্তম রাষ্ট্রপতি অ্যান্ড্রু জ্যাকসনের নামে শহরটির নামকরণ করা হয়।

১৯ শতকের শেষার্ধের পরে পোতাশ্রয়ের উন্নতি জ্যাক্সনভিলকে একটি প্রধান সামরিক এবং বেসামরিক গভীর-জলের বন্দর হিসাবে গড়ে তুলেছে। এর নদীর তীরবর্তী অবস্থান নেভাল স্টেশন মায়পোর্ট, নেভাল এয়ার স্টেশন জ্যাকসনভিল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মেরিন কর্পস ব্লাউন্ট আইল্যান্ড কমান্ড এবং ফ্লোরিডার তৃতীয় বৃহত্তম সমুদ্রবন্দর জ্যাক্সনভিল বন্দরকে সহায়তা করে।[১৩] জ্যাক্সনভিলের সামরিক ঘাঁটি এবং নিকটবর্তী নৌ ডুবোজাহাজ ঘাঁটি কিংস বে যুক্তরাষ্ট্রে তৃতীয় বৃহত্তম সামরিক উপস্থিতি তৈরি করেছে।[১৪] স্থানীয় অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ কারণগুলির মধ্যে রয়েছে ব্যাংকিং, বীমা, স্বাস্থ্যসেবা এবং সরবরাহ সম্পর্কিত পরিষেবাগুলি। ফ্লোরিডার বেশিরভাগ অঞ্চলের মতোই জ্যাক্সনভিল অঞ্চলে বিশেষত গল্ফ সম্পর্কিত পর্যটনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ[১৫][১৬] জ্যাক্সনভিলের লোকদের মাঝে মাঝে "জ্যাকসনভিলিয়ানস" বা "জ্যাক্সনস" ("জ্যাক্সনস" বানানও বলা হয়) বলা হয়।[১৭][১৮][১৯][২০]

ইতিহাসসম্পাদনা

প্রারম্ভিক ইতিহাসসম্পাদনা

আধুনিক শহর জ্যাকসনভিলের অঞ্চলটিতে কয়েক হাজার বছর ধরে মানুষ বসবাস করে আসছে। ব্ল্যাক হ্যামক দ্বীপের জাতীয় টিমুকুয়ান বাস্তুসংস্থান ও ঐতিহাসিক সংরক্ষণ এলাকায় উত্তর ফ্লোরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি দল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মৃৎশিল্পের প্রাচীনতম ধ্বংসাবশেষগুলির কয়েকটি আবিষ্কার করেছে। এগুলি ২৫০০ খ্রিস্টপূর্বের সময়কার ধ্বংসাবশেষ।[২১]

ষোড়শ শতাব্দীতে ঐতিহাসিক যুগের শুরুতে অঞ্চলটিতে টিমুকুয়ার উপকূলীয় উপগোষ্ঠী মোকামারা বসবাস করতো।

ভূগোলসম্পাদনা

শহরের দৃশ্যসম্পাদনা

বাম থেকে ডানে: উত্তর তীরে জ্যাক্সনভিলের আকাশদৃশ্য এবং মেইন স্ট্রিট সেতু
বাম থেকে ডানে: দক্ষিণ তীরে জ্যাক্সনভিল আকাশদৃশ্য এবং আকোস্টা সেতু

ভূসংস্থানসম্পাদনা

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের আদমশুমারি ব্যুরো অনুসারে শহরটির মোট আয়তন ৮৭৪.৩ বর্গমাইল (২,২৬৪ বর্গকিমি), যা জ্যাক্সনভিলকে আয়তনের হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রে সীমাবদ্ধ বৃহত্তম শহর হিসাবে গড়ে তুলেছে; এর মধ্যে ৮৬.৬৬% (৭৫৭.৭ বর্গমাইল বা ১,৯৬২ বর্গকিমি) ভূমিভাগ এবং ১৩.৩৪% (১১৬.৭ বর্গমাইল বা ৩০২ বর্গকিমি) জলভাগ।

সরকার ও রাজনীতিসম্পাদনা

সরকারসম্পাদনা

১৯৬৮ সালে জ্যাক্সনভিল ও ডুভাল কাউন্টি জ্যাকসনভিল একীকরণে তাদের সরকারকে জ্যাক্সনভিলে একীকরণ করে। এটি পৃথক পৃথক কাউন্টি নির্বাহী বা আইনসভাকে সরিয়ে দেয় এবং যথাক্রমে জ্যাক্সনভিলের মেয়র ও জ্যাক্সনভিলের সিটি সিটি কাউন্সিলের সাথে উক্ত পদগুলিকে অপসারণ করে। এ কারণে জ্যাক্সনভিলে শহরের সীমানার বাইরে কিন্তু ড্ভুল কাউন্টির অভ্যন্তরের ভোটাররা এই পদগুলির জন্য অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ভোট দিতে পারেন এবং প্রার্থী হতে পারেন। ১৯৯৫ সালে ডুভাল কাউন্টির নেপচিউন বিচের বাসিন্দা জন ডেলানি জ্যাক্সনভিলি শহরের মেয়র নির্বাচিত হয়ন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "US Gazetteer files: 2010, 2000, and 1990"United States Census Bureau। ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১১। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২৩, ২০১১ 
  2. "Consolidation"The Jacksonville Historical Society। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৯, ২০১৮ 
  3. "2019 U.S. Gazetteer Files"। United States Census Bureau। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২, ২০২০ 
  4. "U.S. Census website"United States Census Bureau। সংগ্রহের তারিখ মে ২৫, ২০১৮ 
  5. "Demographics." City of Jacksonville Seal. N.p., n.d. Web. April 28, 2017.
  6. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; USCensusEst2019 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  7. টেমপ্লেট:Cite GNIS
  8. Staff। "Geography and Demography"CityofJacksonville.net। City of Jacksonville and Duval County Government। জুন ২০, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ২৮, ২০২০ 
  9. "Find a County"। National Association of Counties। সংগ্রহের তারিখ জুন ৭, ২০১১ 
  10. "Annual Estimates of the Resident Population for Incorporated Places of 50,000 or More, Ranked by July 1, 2019 Population: April 1, 2010 to July 1, 2019"United States Census Bureau, Population Division। সংগ্রহের তারিখ মে ২১, ২০২০ 
  11. "Florida Metropolitan & Micropolitan Statistical Areas"FL Hometown Locator। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১১, ২০১৯ 
  12. "Distance from Jacksonville, FL to Miami, FL"check-distance.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯ 
  13. "US Port Ranking by Cargo Volume 2008" American Association of Port Authorities
  14. "Port of Jacksonville" World Port Source, Port Detail
  15. Harding, Abel (এপ্রিল ৩, ২০১০)। "Golf tourism a boon for Northeast Florida"The Florida Times-Union। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ২৬, ২০১০ 
  16. "Jacksonville"Encyclopaedia Britannica। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২১, ২০১১ 
  17. "Call Box"The Florida Times-Union। এপ্রিল ২৬, ২০০০। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৫, ২০১৪ 
  18. Donges, Patrick (এপ্রিল ১৭, ২০১৪)। "What Do You Call Someone From Jacksonville?"news.wjct.orgWJCT। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৫, ২০১৪ 
  19. Reiko Hillyer (ডিসেম্বর ২৯, ২০১৪)। Designing Dixie: Tourism, Memory, and Urban Space in the New South। University of Virginia Press। পৃষ্ঠা 69। আইএসবিএন 978-0-8139-3671-0 
  20. Ennis Armon Davis (২০১৫)। Jacksonville। Arcadia Publishing। পৃষ্ঠা 93। আইএসবিএন 978-1-4671-1468-4 
  21. Soergel, Matt (অক্টোবর ১৮, ২০০৯)। "The Mocama: New name for an old people"The Florida Times-Union। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৩, ২০১০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা