জেরেমি স্টপেলম্যান

জেরেমি স্টপেলম্যান (জন্মঃ নভেম্বর ১০, ১৯৭৭) একজন মার্কিন ব্যবসায়ী। তিনি ইয়েল্প, ইন.-এর সহপ্রতিষ্ঠাতা ও সিইও যেটি ২০০৪ সালে চালু হয়। তিনি  ইউনিভার্সিটি অব ইলিনয় থেকে ১৯৯৯ সালে কম্পিউটার প্রকৌশল-এ ব্যাচেলর ডিগ্রি অর্জন করেন। @হোম নেটওয়ার্ক-এ কিছুদিন চাকরি করার পর তিনি এক্স ডট কম এ চাকরি নেন। কোম্পানিটির নাম বদলে পেপ্যাল রাখার পর তিনি কোম্পানির প্রকৌশল বিভাগের ভি.পি. পদে নিযুক্ত হন। স্টপেলম্যান পেপ্যালের চাকরি ছেড়ে দেন এবং হার্ভার্ড বিজনেস স্কুল এ ভর্তি হন। এক গ্রীষ্মে এম.আর.এল. ভেঞ্চারস এর ইন্টার্নশিপে তিনি এবং আরো কয়েকজন একসাথে মিলে ইয়েল্প, ইন. প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা করেন।

জেরেমি স্টপেলম্যান
Jeremy Stoppelman LeWeb conference.jpg
২০১৩-এ স্টপেলম্যান
জন্ম (1977-11-10) ১০ নভেম্বর ১৯৭৭ (বয়স ৪৪)[১]
অ্যালিংটন, ভার্জিনিয়া
মাতৃশিক্ষায়তনইউনিভার্সিটি অব ইলিনয় অ্যাট আর্বানা-শ্যাম্পেইন
পেশাইয়েল্প-এর সিইও

শৈশব ও কৈশোরসম্পাদনা

স্টপেলম্যান ভার্জিনিয়ার আর্লিংটন এ ১৯৭৭ সালে জন্মগ্রহণ করেন।[২][৩] তার মা ছিলেন একজন ইংরেজির শিক্ষিকা এবং তার বাবা ছিলেন উকিল।[৪] স্টপেলম্যান একজন ইহুদি। শৈশব থেকেই তিনি কম্পিউটার এবং ব্যবসায় আগ্রহী ছিলেন[৫][৬] এবং মাত্র ১৪ বছর বয়সে তিনি শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করেন।[৪][৫] তার ভিডিও গেম ডেভলপার হবার ইচ্ছা ছিল এবং তাই তিনি কম্পিউটার প্রোগ্রামিং ক্লাস করতেন। সেখানে তিনি টার্বো প্যাসকেল সফটওয়্যার প্রোগ্রামিং শিখেছিলেন।[৪][৬] তিনি ইউনিভার্সিটি অব ইলিনয়-েএ ভর্তি হন এবং ১৯৯৯ সালে তিনি কম্পিউটার প্রকৌশল-এ ব্যাচেলর ডিগ্রি অর্জন করেন। স্নাতোকোত্তরের পর তিনি @হোম নেটওয়ার্ক-এ চাকরি নেন।[৩]

কর্মজীবনসম্পাদনা

@হোম নেটওয়ার্ক-এ চার মাস চাকরি করার পর স্টপেলম্যান এক্স ডট কম[৪] (যার নাম পরে পেপ্যাল হয়) এ প্রকৌশলী হিসেবে যোগদান করেন। শোনা যায় যে, স্টপেলম্যান এর সাথে ম্যাক্স লেভচিন নামক এক ব্যবসায়ীর সাক্ষাৎ হয় যিনি পরে স্টপেলম্যান এর কোম্পানি ইয়েল্প, ইন.-এ বিনিয়োগ করেন।[৪][৭] স্টপেলম্যান পেপ্যাল[৮] এর প্রকৌশল বিভাগের ভি.পি. পদে নিযুক্ত হন।

২০০৩ সালে ই-বে, পেপ্যাল অধিগ্রহণ করার পর স্টপলম্যান পেপ্যাল এর চাকরি ছেড়ে দেন এবং হার্ভার্ড বিজনেস স্কুল এ একবছরের জন্য ভর্তি হন।[৫][৯][১০][১১] স্টপলম্যান এর স্কুল এর বন্ধের সময় [৪] লেভচিন স্টপেলম্যানকে এম.আর.এল. ভেঞ্চারস এ ইন্টার্নশিপ করতে বলে।

ইয়েল্পসম্পাদনা

২০০৪ এর গ্রীষ্মে, জেরেমি স্টপেলম্যান এর ফ্লু হয়েছিল এবং একজন ডাক্তারের সুপারিশ যোগাড় করতে তার বেশ সমস্যা হয়েছিল। সে এবং রাসেল সিমন্স নামক তার একজন প্রাক্তন সহকর্মী (তিনিও এম আর এল ভেঞ্চারে কর্মরত ছিলেন) মিলে একটি অনলাইন কম্যুনিটি তৈরি করার পরিকল্পনা করেন যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা সুপারিশ এর সুবিধা ভোগ করতে পারবে। স্টপেলম্যান এবং সিমন্স তাদের পরিকল্পনা লেভচিনকে জানান। লেভচিন তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রাথমিক বিনিয়োগ করেন। স্টপেলম্যানের নেতৃত্বে ইয়েল্প এর মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নিত হয়। সেইসাথে ইয়েল্প ১৩৮ মিলিয়ন ব্যবহারকারীর রিভিউ দ্বারা সমৃদ্ধ হয়।

স্টিভ জবস ২০১০ এর জানুয়ারিতে স্টপেলম্যানকে তার কোম্পনি ইয়েল্পকে গুগল[৪][১২][১৩] এর অধিগ্রহণ এর প্রস্তাব দেয়। স্টপেলম্যান ২০১২ এর মার্চে ইয়েল্পকে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জ এ ইয়েল্পকে অন্তর্ভুক্ত করেন।[৪] স্টপেলম্যানের ভাষ্য অনুসারে, ইয়েল্প এর সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হল "ঠিক সেই সমস্যা যা গুগল তার র‍্যংকিং এর ক্ষেত্রে সম্মুখীন হয়।" ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করছিল যে বিজ্ঞাপন এর উপর নির্ভর করে ইয়েল্প তাদের রিভিউগুলো নিজেদের মত করে উপস্থাপন করে।[১২] ২০১৩ এর ফেব্রুয়ারি থেকে স্টপেলম্যান তার বেতন হিসেবে ১ ডলার নেয়া শুরু করে। অবশ্য, তিনি কোম্পানি থেকে তার বিনিয়োগ এর ১১% মুনাফা হিসেবে নেন।[১৪][১৫][১৬]

ব্যবস্থাপনা কৌশলসম্পাদনা

স্টপেলম্যান এক কোনায় তার অফিস না রেখে তার সব কর্মচারীর সাথে একজায়গায় বসেন। রেডিট এএমএ-এর এক প্রশ্নে তাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, তার জানা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যবস্থাপনা কৌশল কী এবং তা তিনি কোথা থেকে শিখেছেন। এর জবাবে তিনি বলেছিলেন,"এটা আমি পেপ্যাল থেকে শিখি। আমি প্রতি সপ্তাহের প্রতিটি রিপোর্ট এর উপরের প্রতিটি মিটিং ঠিকভাবে শেষ করায় বিশ্বাস করি। আমার মনে হয় যেন আমি এই কোম্পানির মনোবিদ। সেইসাথে আমি সবার কথা ই শুনি। তাদের সবধরণের সমস্যাই দূর করার চেষ্টা করি যাতে আমার প্রতিষ্ঠান উজ্জীবিত থাকে।"

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

জেরেমি স্টপেলম্যান নন-ফিকশন বইয়ের পোকা।[৫][৭] তার ভাইও ইয়েল্প, ইন.-এ কর্মরত।[৪] ২০১২ সালের তথ্য অনুসারে, স্টপেলম্যান এক হাজারেরও বেশি ইয়েল্প রিভিউ লিখেছেন।[৫][৭] ২০১১ সালের তথ্য অনুসারে, তার মোট সম্পদের পরিমাণ আনুমানিক ১১১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে ২২২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।[১৬]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Dior Home Party"SFGate। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২৬, ২০১৫ 
  2. Internet Innovators.
  3. "Q&A: Yelp CEO prizes company's independence".
  4. Guthrie, Julian (July 16, 2012).
  5. McNichol, Tom (Fall 2012).
  6. Balcita, Angela (January–February 2008).
  7. Chafkin, Max (November 26, 2012).
  8. Jarvis, Rebecca (December 4, 2012).
  9. "For Yelp, Locals Aren't Yokels" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখে.
  10. Wei, William (December 10, 2012).
  11. Sarah Lacy (2008).
  12. "42: Jeremy Stoppelman".
  13. Fiegerman, Seth (July 16, 2012).
  14. Grove, Jennifer (February 8, 2013).
  15. Brown, Steven (February 8, 2013).
  16. Lynley, Matt (November 17, 2011).

বহিঃসংযোগসম্পাদনা