জুবিলী বাইবেল বাংলাদেশ ক্যাথলিক বিশপ সম্মিলনীর উদ্যোগে প্রকাশিত ক্যাথলিক খ্রীস্টানদের প্রধান ধর্মগ্রন্থ। এটি ১৯৯৯ সালে প্রথম প্রকাশ হয়। এটি অনুবাদ করেছেন সাধু বেনেডিক্ট মঠ। পবিত্র বাইবেলের এই অনুবাদটি তৃতীয় সহস্রাব্দীর জুবিলীর প্রাক্বালে প্রকাশিত বিধায় এটি ‘জুবিলী বাইবেল’ নামে আখ্যায়িত করা হয়। খ্রিস্ট-বিশ্বাসীরা বিশ্বাস করে যে পবিত্র বাইবেল স্বয়ং ঈশ্বরের বাণী যাতে মানুষের প্রতি ঈশ্বরের যত্ন ও ভালবাসা প্রকাশিত হয়েছে। জুবিলী বাইবেল নতুন ও পুরাতন নিয়মে মোট ৭৩ জন লেখকের লেখা ও পত্র দিয়ে প্রকাশ করা হয়েছে। প্রটেস্টান্ট খ্রিস্টানদের বাইবেলের চেয়ে জুবিলী বাইবেলের কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে।

বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

পবিত্র বাইবেল - জুবিলী বাইবেল ভূমিকা ও টীকা সহ হিব্রু ও গ্রীক ভাষা থেকে অনূদিত পবিত্র বাইবেল। [১]

সাধু বেনেডিক্ট মঠের অনূদিত জুবিলী বাইবেল হল সর্বপ্রথম বাংলা বাইবেল যার মধ্যে ‘ডিউটেরোক্যানোনিক্যাল’ পুস্তকগুলোও গৃহীত। অনুবাদ মূল ভাষা হিব্রু, আরামীয় ও গ্রীক থেকে করা হয়েছে। বাইটি জুবিলী বর্ষে (২০০০ সালে) প্রকাশিত হয়েছিল বলে বাইবেলটি জুবিলী বাইবেল বলে পরিচিতি লাভ করে। ভূমিকা ও টীকা ছাড়া পুস্তকে এ পরিশিষ্ট্যও রয়েছে:

  • ঐশতাত্ত্বিক শব্দকোষ
  • নামসূচী
  • মানচিত্র ও ছবি [২]

সুত্রসম্পাদনা

  • জুবিলী বাইবেল, ১৯৯৯