জিব্রাল্টার প্রণালী

ভূমধ্যসাগরকে পশ্চিমে আটলান্টিক মহাসাগরের সাথে সংযোগকারী সমুদ্র প্রণালী

জিব্রাল্টার প্রণালী (ইংরেজি: Strait of Gibraltar) পূর্বে ভূমধ্যসাগরকে পশ্চিমে আটলান্টিক মহাসাগরের সাথে সংযোগকারী সমুদ্র প্রণালী। এটি উত্তর আফ্রিকাকে দক্ষিণ-পশ্চিম ইউরোপের আইবেরীয় উপদ্বীপ থেকে পৃথক করেছে।[১] ভৌগোলিক স্থানাঙ্ক : ৩৫°৫৮′১৮″উত্তর ৫°২৯′০৯ পশ্চিম″। এই প্রণালীর উত্তর দিকে স্পেন এবং ব্রিটিশ শাসিত জিব্রাল্টার। আর দক্ষিণাংশে রয়েছে আফ্রিকার মরক্কো এবং সেউটা নামক স্প্যানিশ অঞ্চল। প্রণালীটি ৬০ কিলোমিটার দীর্ঘ এবং এর প্রস্থ অবস্থানভেদে ১৩ থেকে ৩৯ কিলোমিটার হতে পারে। প্রণালীর মধ্য দিয়ে একটি ৮ কিলোমিটার প্রশস্ত ও ৩০০ মিটার গভীর চ্যানেল চলে গেছে।

জিব্রাল্টার প্রণালীর উপগ্রহ চিত্র; বামে আইবেরীয় উপদ্বীপ ও ডানে উত্তর আফ্রিকা

জিব্রাল্টার প্রণালী দিয়ে অনবরত আটলান্টিক মহাসাগর থেকে পানি ভূমধ্যসাগরে প্রবেশ করছে এবং পশ্চিমমুখী একটি অন্তঃপ্রবাহ ভূমধ্যসাগরের লবনাক্ত পানি আটলান্টিক মহাসাগরে বয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

পশ্চিম দিক থেকে জিব্রাল্টার প্রণালীর ত্রিমাত্রিক ছবি

জিব্রাল্টার প্রণালীর পূর্ব প্রান্তে "হার্কিউলিসের স্তম্ভসমূহ" নামের একজোড়া শৈলান্তরীপ রয়েছে। উত্তরেরটি জিব্রাল্টারের শিলা এবং দক্ষিণেরটি জাবাল মুসা নামে পরিচিত।

নাম করন

আফ্রিকা ও ইউরোপের মাঝামাঝি এই এলাকাটি ঐতিহাসিকভাবে অনেক আগে থেকেই আক্রমণ ও প্রতিরক্ষার কৌশলে গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ৭১১ খ্রিষ্টাব্দে আরব সেনাপতি তারিক জিব্রাল্টার পাহাড়টি দখল করেন। এখানেই ঘাটি করে আক্রমণ চালান স্পেনের অন্যান্য এলাকায়। তার নাম থেকেই নাম থেকেই ‘জেবেল আল তারিক’ বা 'তারিকের পাহাড়' নামকরণ করা হয়। এই নামটি পরিবর্তিত হয়ে জিব্রাল্টার নামধারণ করেছে

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Daniel J. Hopkins, সম্পাদক (১৯৯৭), Merriam-Webster's Geographical Dictionary, Merriam-Webster, পৃষ্ঠা 427