জাতীয় ক্রীড়া দিবস

জাতীয় ক্রীড়া দিবস একটি সরকারি দিবস যা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উৎযাপিত হয়ে থাকে। ক্রীড়া সচেতনতা বৃদ্ধি এবং দেশের ক্রীড়া সংস্কৃতি ও জাতীয় ক্রীড়া দলগুলোর প্রতি শ্রদ্ধাবোধ বাড়াতে দিবসটি পালিত হয়।

ইরানসম্পাদনা

ইরানে ১৭ অক্টোবর শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া দিবস এবং ১৭ থেকে ২৩ অক্টোবর শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া সপ্তাহ হিসেবে উৎযাপিত হয়।[১]

কাতারসম্পাদনা

কাতারে জাতীয় ক্রীড়া দিবস একটি সরকারি ছুটির দিন। জনগণকে স্বাস্থ্যকর জীবনধারা সম্পর্কে সচেতন করতে প্রতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসের দ্বিতীয় মঙ্গলবার দিবসটি উৎযাপন করা হয়।[২] ২০১২ সালে দেশটিতে প্রথমবারের মতো জাতীয় ক্রীড়া দিবস উৎযাপিত হয়েছিল।[৩][৪]

জাপানসম্পাদনা

জাপানে স্বাস্থ্য ও ক্রীড়া দিবস (体育の日, Tai-iku no Hi) একটি সরকারি ছুটির দিন।[৫] টোকিওতে আয়োজিত ১৯৬৪ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের উদ্বোধনী দিবসের স্মরণে ১৯৬৬ সাল থেকে প্রতি বছর ১০ অক্টোবর দিবসটি উৎযাপন করা হত। কিন্তু, ২০০০ সাল থেকে অক্টোবরের ২য় সোমবারে দিবসটি উৎযাপিত হয়ে আসছে।[৬]

বাংলাদেশসম্পাদনা

জাতিসংঘের ইন্টারন্যাশনাল ডে অব স্পোর্ট ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড পিস [en]-এর অনুসরণে বাংলাদেশে ২০১৭ সাল থেকে প্রতিবছর ৬ এপ্রিল জাতীয় ক্রীড়া দিবস উৎযাপন করা হয়।[৭][৮]

ভারতসম্পাদনা

হকি খেলোয়াড় ধ্যান চাঁদের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রতিবছর ২৯ আগস্ট ভারতে জাতীয় ক্রীড়া দিবস উৎযাপিত হয়।[৯] ভারতের হয়ে ১৯২৮, ১৯৩২ ও ১৯৩৬ সালের অলিম্পিক গেমসে স্বর্ণপদক জয়ী এই খেলোয়াড় তার ক্যারিয়ারে (১৯২৬—১৯৪৯) মোট ৫৭০টি গোল করেন।[১০]

আন্তর্জাতিক হকি অঙ্গনে ভূমিকা রাখার পাশাপাশি তিনি একাধিকবার তার দেশকে সাফল্যের শীর্ষে নিতে অবদান রেখেছেন। তিনি ভারতীয় এবং বিশ্ব হকির এক কিংবদন্তিতুল্য ব্যক্তিত্ব। তার স্মরণে ভারতের ক্রীড়াঙ্গনে আজীবন কৃতিত্বের জন্য সর্বোচ্চ পুরস্কার— মেজর ধ্যানচাঁদ পুরষ্কারের প্রবর্তন করা হয়েছে এবং তার জন্মদিনেই দেশটিতে জাতীয় ক্রীড়া দিবস উদযাপন করা হয়। ধ্যান চাঁদ ১৯০৫ সালের ২৯ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন।[১১]

মালয়েশিয়াসম্পাদনা

জাতীয় ক্রীড়া দিবস (মালয়: Hari Sukan Negara) মালয়েশিয়ার একটি সরকারি ছুটির দিন, যা প্রতিবছর অক্টোবরের দ্বিতীয় শনিবারে পালিত হয়।[১২] জনগণের মধ্যে স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রার ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টিই এর মূল লক্ষ্য। ২০১৫ সাল থেকে দেশটিতে এই দিবসটি উৎযাপিত হয়ে আসছে।[১৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. আমিরতাশ, আলি-মুহাম্মাদ (১ সেপ্টেম্বর ২০০৫)। "Iran and the Asian Games: The Largest Sports Event in the Middle East"। স্পোর্ট ইন সোসাইটি (৩): ৪৪৯–৪৬৭। আইএসএসএন 1743-0437এসটুসিআইডি 144648919ডিওআই:10.1080/17430430500249191 
  2. "National Sport Day in Qatar"। ২০১৬-০১-২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৮-৩০ 
  3. "Qatar's top-selling English daily newspaper - First Page"। গলফ টাইমস। ২০১২-০৭-১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০২-১৪ 
  4. "Qatar Celebrates National Sports Day"। Olympic.qa। ২০১১-১২-০৬। ২০১৭-০৯-১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০২-১৪ 
  5. "Health and Sports Day in Japan"timeanddate.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২৯ 
  6. "Health and Sports Day"GaijinPot Study (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২৯ 
  7. "আজ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ক্রীড়া দিবস"জাগোনিউজ২৪.কম। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০২-২৪ 
  8. "জাতীয় ক্রীড়া দিবস উদ্‌যাপন"প্রথম আলো। ৭ এপ্রিল ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০২-২৪ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  9. "Aug 29 is National Sports Day. Did you know?"নিউজ ১৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৮-২৮ 
  10. "National Sports Day: Rare pictures from 1936 Olympics to celebrate Dhyan Chand's birthday"ইন্ডিয়া টুডে (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২৯ 
  11. "PM Modi to Sachin Tendulkar, country remembers hockey legend Dhyan Chand on National Sports Day"দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৮-২৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২৯ 
  12. "Malaysians celebrate National Sports Day"দ্য স্টার। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২৯ 
  13. "National Sports Day, Malaysia Sports Challenge still in plans for National Sports Month, says ministry"মালয় মেইল (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২৯