চেংদু জে-২০ একটি পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধ বিমান। এটি চীনের  চেংদু এরোস্পেস কর্পোরেশন ,  পিপলস লিবারেশন আর্মি এয়ার ফোর্স (PLAAF) এর জন্য নক্শা করেছে।[১]

Airshow China 2016 তে একটি J-20

এটি দুই জেট বিশিষ্ট এবং রাডারকে ধোঁকা দিতে সক্ষম। ২০১১ সালের ১১ জানুয়ারি এটি তার প্রথম উড্ডয়ন সম্পন্ন করে। চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী ২০১৭ সালের মার্চ মাসে এটি প্রাথমিক কর্মক্ষম পর্যায়ে প্রবেশ করে।[২][৩]

জে-২০ ১৯৯০ এর দশকের J-XX প্রোগ্রমেরই অংশ। এটিকে এয়ার সুপিরিওরিটি ফাইটার হিসেবে নকশা করা হয়েছে। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এটি  পিপলস লিবারেশন আর্মি এয়ার ফোর্সে যুক্ত হয় পৃথিবীর ৩য় কর্মক্ষম পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধ বিমান হিসেবে। তবে এটি এশিয়ার প্রথম পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধ বিমান।

উন্নয়নসম্পাদনা

উৎপত্তিসম্পাদনা

১৯৯০ এর দশকের শেষের দিকে জে-এক্সএক্স প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হয়। ২০০৮ সালে চেংদু এরোস্পেস কর্পোরেশনের ৭১৮ নামে মনোনীত প্রকল্প পিপলস লিবারেশন আর্মি এয়ার ফোর্সের অনুমোদন পায়। এর জন্য চেংদু এরোস্পেস কর্পোরেশনকে সেনইয়াং এর প্রকল্পের সাথে প্রতিযোগিতা করতে হয় যা জে-২০ এর চেয়ে বড় ছিল। [৪]

২০০৯ সালে একজন জ্যেষ্ঠ PLAAF কর্মকর্তা জানান যে ২০১০-১১ সালের মধ্যেই বিমানটি প্রথম উড়ান সম্পন্ন করবে বলে আশা করা হচ্ছে এবং ২০১৯ সালে বিমানবাহিনীতে ব্যবহার শুরু হতে পারে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "J-20 চীনের পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধবিমান"Defense-Update। ২ জানুয়ারি ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০১৭ 
  2. http://www.scmp.com/news/china/article/2077732/chinas-j-20-stealth-fighter-flies-fighting-forces-says-state-media  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  3. http://www.dailymail.co.uk/wires/afp/article-4300332/Chinas-stealth-fighter-enters-service-media.html  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  4. War China https://web.archive.org/web/20161102232159/http://www.warchina.com/news/ent/2010-11-05/124805.html। ২০১৬-১১-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০১৭  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)