চিত্রা এক্সপ্রেস

বাংলাদেশের যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা

চিত্রা এক্সপ্রেস (ট্রেন নং ৭৬৩/৭৬৪) হলো ঢাকা -খুলনা পথে চলাচলকারী আন্তঃনগর এক্সপ্রেস ট্রেন। চিত্রা ট্রেনটি ব্রডগেজ বগিতে ঢাকা থেকে খুলনা পথে চলাচল করে। ট্রেনটিতে মোট ১২টি বগি এবং আসনসংখ্যা ৮৮১টি। ট্রেনটিতে দুটি করে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) কেবিন ও এসি চেয়ার কামরা আছে। বিভিন্ন দিবসে ( বিশেষ করে দুই ঈদে) ট্রেনটিতে অতিরিক্ত বগি সংযোজন করা হয়।

চিত্রা এক্সপ্রেস
Chitra Express waiting at Joydevpur Station.jpg
জয়দেবপুর স্টেশনে অপেক্ষারত চিত্রা এক্সপ্রেস
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
পরিষেবা ধরনআন্তঃনগর
প্রথম পরিষেবা০৭ অক্টোবর, ২০০৭ (07 October, 2007)
বর্তমান পরিচালকপশ্চিমাঞ্চল
যাত্রাপথ
শুরুকমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন
শেষখুলনা রেলওয়ে স্টেশন
ভ্রমণ দূরত্ব৪৪৯ কিমি (২৭৯ মা)
পরিষেবার হারদৈনিক
রেল নং৭৬৩/৭৬৪
যাত্রাপথের সেবা
শ্রেণীস্নিগ্ধা, তাপানুকূল চেয়ার এবং শোভন চেয়ার
আসন বিন্যাসআছে
ঘুমানোর ব্যবস্থাআছে
খাদ্য সুবিধাআছে
বিনোদন সুবিধাআছে
কারিগরি
ট্র্যাক গেজ১,৬৭৬ মিলিমিটার (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি)
পরিচালন গতি৯০-৯৪ কি.মি / ঘণ্টা ( সর্বোচ্চ)
খুলনা-ঢাকা রেলপথ
ট্র্যাক গজব্রডগেজ ১,৬৭৬ মিলিমিটার (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি)
ঢাকা
টঙ্গী
ভৈরব বাজার-এর দিকে
জয়দেবপুর
ময়মনসিংহ-এর দিকে
টাঙ্গাইল
জামালপুর-এর দিকে
যমুনা সেতু
সিরাজগঞ্জ বাজার-এর দিকে
জামতৈল
বড়াল ব্রিজ
পাবনা-এর দিকে
মাঝগ্রাম
আব্দুলপুর-এর দিকে
ঈশ্বরদী
হার্ডিঞ্জ ব্রিজ
পোড়াদহ
গোয়ালন্দ ঘাট-এর দিকে
আলমডাঙ্গা
চুয়াডাঙ্গা
দর্শনা-এর দিকে
দর্শনা হল্ট
কোটচাঁদপুর
বেনাপোল-এর দিকে
যশোর
ফুলতলা
মংলা-এর দিকে
খুলনা

নামের উৎসসম্পাদনা

দর্শনার নিম্নস্থল থেকে উৎপন্ন হয়ে দক্ষিণ-পূর্ব দিকে প্রবাহিত চিত্রা নদীর নামানুসারে এর নামকরণ করা হয়।

সময় সূচিসম্পাদনা

ঢাকা থেকে ছাড়ে সন্ধ্যা ৭:০০ মিনিটে এবং খুলনায় পৌছে ভোর ৩.৪০ মিনিটে। ট্রেনটি খুলনা থেকে ছাড়ে সকাল ৯.০০ মিনিটে এবং ঢাকায় পৌছায় বিকাল ৫.৫৫ মিনিটে। সাপ্তাহিক বন্ধের দিন সোমবার।

যাত্রা বিরতীর স্থানসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা