চান্দা (চলচ্চিত্র)

বাংলাদেশের প্রথম উর্দু চলচ্চিত্র

চান্দা হচ্ছে একটি পাকিস্তানি উর্দু ভাষার চলচ্চিত্র যা ৩ আগস্ট, ১৯৬২ তারিখে পাকিস্তানে মুক্তি পায়। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন রহমানসুলতানা জামান। এটি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে (বর্তমান বাংলাদেশ) নির্মিত প্রথম উর্দু ভাষার চলচ্চিত্র[১] এছাড়াও এটি শবনম অভিনীত প্রথম উর্দু ভাষার চলচ্চিত্র।[২] বাংলাদেশের প্রথম চলচ্চিত্র মুখ ও মুখোশ-এর ৬ বছর পরে এই চলচ্চিত্র মুক্তি পায়।

চান্দা
চান্দা চলচ্চিত্রের পোস্টার
چندا
পরিচালকএহতেশাম
প্রযোজকএফএ দোসানি
রচয়িতাগল্প ও চিত্রনাট্য:
এহতেশাম
সংলাপ:
সুরূর বরাবানভি
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকাররবিন ঘোষ
চিত্রগ্রাহকএমকিউ জামান
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশক
  • দোসানি ফিল্মস
  • লিও ফিল্মস
মুক্তি
  • ৩ আগস্ট ১৯৬২ (1962-08-03)
দেশপাকিস্তান
ভাষাউর্দু

অভিনয়ে

সম্পাদনা

সঙ্গীত

সম্পাদনা
শিরোনামহীন
চন্দা সাউন্ডট্র‍্যাক – ট্র‍্যাক তালিকা
নং.শিরোনামগীতিকারকণ্ঠশিল্পীদৈর্ঘ্য
১."আখিয়ান তোরি রহ নিহারেন, হে পরদেশিয়া, আ জা..."সুরূর বরাবানভিফেরদৌসী রহমান 
২."চাঁদনি, ভেগি ভেগি হাওয়া, না জানায়, দিল কাহান খো গেয়া..."সুরূর বরাবানভিআঞ্জুমান আরা বেগম 
৩."ছালকে গাগরিয়া, ভেগে চুনারিয়া, এমনে না দেখো, সানওয়ারিয়া..."সুরূর বরাবানভিফেরদৌসী রহমান, ফরিদা ইয়াসমিন 
৪."লুট গেয়া খুশি কা ডেরা, খো গেয়া, হে পেয়ার মেরা..."সুরূর বরাবানভিফেরদৌসী রহমান 
৫."মাউত কি হ্যায় পুকার, দীপ বুঝা দো..."সুরূর বরাবানভিফেরদৌসী রহমান, নাজমুল হুদা 
৬."নয়নো বল ঘূণঘাট কোই লায়ে, নজর শর্মায়ে..."সুরূর বরাবানভি  
৭."রং রূপ, জওয়ানি, রুত সাওয়ান কি সুহানি..."সুরূর বরাবানভিফেরদৌসী রহমান, ফরিদা ইয়াসমিন 
৮."সানভাল কে ও আলবেলি, কাহান চালি হ্যায় আকেলি..."সুরূর বরাবানভিআখতার আব্বাস, আঞ্জুমান আরা বেগম 
৯."সায়ান, বেদারদি মোরা, দর্দ না জানা রে..."সুরূর বরাবানভিফরিদা ইয়াসমিন 

মুক্তি

সম্পাদনা

চলচ্চিত্রটি পূর্ব পাকিস্তানের প্রথম পূর্ণাঙ্গ ছবি মুখ ও মুখোশ নির্মাণের সাত বছর পর ৩রা আগস্টে মুক্তি পায়। জেসি আনন্দ তার পরিবেশক কোম্পানি এভারেডি পিকচার্সের মাধ্যমে পাঞ্জাবউত্তর-পশ্চিম সীমান্ত প্রদেশে চলচ্চিত্রটি প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করেন। আনিস দোসানি কমিশনের ভিত্তিতে চলচ্চিত্রটি পাকিস্তানের অন্যান্য প্রদেশ ও অঞ্চলে বিতরণের ব্যবস্থা করেম। এটি টানা ২৫ সপ্তাহ ধরে প্রেক্ষাগৃগুলোতে দেখানো হয়েছিলো।[৪]

অভ্যর্থনা

সম্পাদনা

চলচ্চিত্রটি দেশে ব্যবসাসফল হয় ও সুপার ডুপার হিট তকমা পায়। অনুপম হায়াতের মতে ছবিটি পাকিস্তানে একটি নতুন যুগের সূচনা করেছে।[৫] এটি ঢালিউডের ভাগ্যকে ইতিবাচকভাবে পরিবর্তন করে।[৬] চলচ্চিত্র পরিচালক আজিজুর রহমান চলচ্চিত্রটির পোস্টার নিয়ে সমালোচনা করেন। তার মতে, চলচ্চিত্রের মূল উপজীব্য পোস্টারে উপস্থাপন করা হয়নি।[৭]

দেশের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা আলমগীর কবির ১৯৬৯ সালে ছবিটি নিয়ে তার ভাবনা প্রকাশ করেন,

The industry was fast heading for a disaster when a director dared to go a little bit further and made an Urdu language film. The film was “Chanda” (1962) directed by Etesham. It proved a money-spinner in both East and West Pakistan. “Chanda’s” performance naturally encouraged a trend of Urdu filmmaking in East Pakistan.

[অনু. শিল্প দ্রুত বিপর্যয়ের দিকে যাচ্ছিল যখন একজন পরিচালক সাহস করে একটু এগিয়ে গিয়ে একটি উর্দু ভাষার ছবি তৈরি করেন। এহতেশাম পরিচালিত ‘চন্দা’ (১৯৬২) ছবিটি। এটি পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তান উভয় ক্ষেত্রেই ব্যবসাসফল প্রমাণিত হয়েছিল। "চন্দার" পারফরম্যান্স স্বাভাবিকভাবেই পূর্ব পাকিস্তানে উর্দু চলচ্চিত্র নির্মাণের প্রবণতাকে উৎসাহিত করেছিল।]

— আলমগীর কবির, The cinema of Pakistan [দ্য সিনেমা অফ পাকিস্তান]। ঢাকা: সন্ধানী পাবলিকেশন্স। ১৯৬৯। পৃষ্ঠা ৪৪। 

পুরস্কার

সম্পাদনা
পুরস্কার শিরোনাম শ্রেণী পুরস্কারপ্রাপ্ত ফলাফল সূত্র
৬ষ্ঠ নিগার পুরস্কার শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র এহতেশাম বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ সহকারী অভিনেত্রী শবনম বিজয়ী [৮]
শ্রেষ্ঠ কৌতুকাভিনেতা সুভাষ দত্ত বিজয়ী

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা

উদ্ধৃতি

সম্পাদনা
  1. "Chanda" [চন্দা]। পাকম্যাগ.নেট (ইংরেজি ভাষায়)। পাকিস্তান ফিল্ম ম্যাগাজিন। ২৭ জুলাই ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. সৈয়দা আফরিন মল্লিক (৩০ সেপ্টেম্বর ২০১২)। "Shabnam: Memorable moments in the life of an actress"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ২৭ জুলাই ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০২২ 
  3. "রানী সরকারকে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন"মানবজমিন। ৭ জুলাই ২০১৮। ২৭ জুলাই ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০২২ 
  4. নূরানি, আসিফ; আরশাদ, সুলতান (১১ ডিসেম্বর ২০১৬)। "The Way We Were"ডন (ইংরেজি ভাষায়)। ৪ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০২২ 
  5. হায়াত, অনুপম (১৭ ডিসেম্বর ২০২১)। "লোকজ কাহিনি থেকে জনপ্রিয় উর্দু ধারার দিকে যাত্রা"আজকের পত্রিকা। ২৮ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০২২ 
  6. জাকির হোসেন রাজু (২০১৭)। Bangladesh Cinema and National Identity: In Search of the Modern? (ইংরেজি ভাষায়)। রাউটলেজ। পৃষ্ঠা ৮৪। আইএসবিএন 9780815392200। ২৭ জুলাই ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০২২ 
  7. শফিক, সালেহ (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "যেভাবে পোস্টার হলো বাংলা ছবির মেন্যু কার্ড"টিবিএসনিউজ.নেট। দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড। ৯ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০২২ 
  8. The Phrenological Journal and Miscellany, Volume 10 (ইংরেজি ভাষায়)। পালালা প্রেস। ২০১৫। পৃষ্ঠা ৬৯। ২৭ জুলাই ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০২২ 

গ্রন্থপঞ্জি

সম্পাদনা

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা