প্রধান মেনু খুলুন

গ্যারি আলেক্সান্ডার নেভিল (জন্ম ফেব্রুয়ারি ১৮, ১৯৭৫ গ্রেটার ম্যানচেস্টারের বারি অঞ্চলে) একজিন ইংরেজ ফুটবলার যিনি ইংল্যান্ডের পক্ষে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলা রক্ষনভাগের খেলোয়াড়। তিনি রাইট ফুল ব্যাক হিসেবে খেলে থাকেন। তিনি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অধিনায়ক ছিলেন পাঁচ বছর।

গ্যারি নেভিল
গ্যারি নেভিল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম গ্যারি আলেক্সান্ডার নেভিল
জন্ম (1975-02-18) ১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৫ (বয়স ৪৪)
জন্ম স্থান বারি, ইংল্যান্ড
উচ্চতা ১.৮০ মিটার (৫ ফুট ১১ ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান রাইট ব্যাক
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড
জার্সি নম্বর
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
১৯৯১-১৯৯৩ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি
(গোল)
১৯৯২-২০১১ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৪০০ (৫)
জাতীয় দল
১৯৯৫-২০০৭ ইংল্যান্ড 0৮৫ (০)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং 20 November 2011 তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল 20 November 2011 তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

ওল্ড ট্রাফোর্ডে নেভিলের ক্যারিয়ার শুরু হয় সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার হিসেবে কিন্তু পরে তিনি ফুল ব্যাকে পরিনত হন কেননা তিনি মনে করেছিলেন মধ্যমাঠে খেলার জন্য তার উচ্চতা কম। ১৯৯৫ সালে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তার অভিষেক ঘটে। বিগত দশ বছর ধরে রাইট ব্যাক হিসেবে তিনি দলের প্রথম পছন্দ।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

গ্যারি নেভিলের জন্ম হয়েছে একটি বিশাল ক্রীড়া পরিবারে; তার ছোট ভাই ফিল নেভিল একজন ফুটবলার এবং তাদের বোন ট্রেসি নেভিল নেটবলে ইংল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তাদের পিতা নেভিল নেভিল ফুটবলের বাণিজ্যিক বিভাগে কাজ করতেন। ১৯৯০ দশকে তিনি বারিতে এক মৌসুম কাজ করেছেন। তখন থেকেই মূলত তার ছেলেরা সাফল্য পেতে শুরু করে।

২০০৫ সালে ফিল এভারটনে যোগ দেয়ার আগে, গ্যারি ও ফিল নেভিল দলগত ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে একসাথে খেলেছেন। এমনকি তারা যখন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে একসাথে খেলতেন তখন মূল একাদশে সুযোগ পাওয়ার ব্যাপারে তাদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বীতা ছিল।

গ্যারির বাগদত্তা হচ্ছেন ২৬ বছর বয়সী এমা হাডফিল্ড, যার সাথে গ্যারির সম্পর্ক তিন বছরের। ২০০৪ সালের আগস্টে দ্য সান পত্রিকা একটি সংবাদ প্রকাশ করে দাবী করে এমা গ্যারির সাথে প্রতারনা করেছেন যখন গ্যারি ইংল্যান্ডের হয়ে পর্তুগালের বিপক্ষে খেলছেন। এমা পত্রিকার কাছে তাৎক্ষণিত ক্ষমা দাবী করেন, যা দিতে অস্বীকৃতি জানানোর পর পত্রিকার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। ২০০৫ সালের মে মাসে উভয় পক্ষের সম্মতিতে সান এমাকে ৭৫,০০০ পাউন্ড ক্ষতিপূরণ দেয়।[১] ২০০৭ সালের জুন ১৬ তারিখে তারা বিয়ের পরিকল্পনা করছেন, যেদিন তার ইংল্যান্ড সতীর্থ স্টিভেন জেরার্ড (অ্যালেক্স কুরানের সাথে) এবং মাইকেল ক্যারিকও বিয়ে করবেন[২]

সম্মাননাসম্পাদনা

কেবল প্রধান সম্মনানাগুলি

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

পূর্বসূরী
রয় কিন
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড অধিনায়ক
২০০৫-
উত্তরসূরী
নেমানজা ভিডিচ