প্রধান মেনু খুলুন

গামারি

উদ্ভিদ প্রজাতি

গামারি বৈজ্ঞানিক নাম Gmelina arborea (ইংরেজি: Chandahar Tree, Cashmere Tree, Comb Teak, White Teak ইত্যাদি) পরিবার Lamiaceae।এছাড়াও বাংলা নাম গামার, গাম্বার। আদিবাসি নাম হিসাবে গাম্ভার, বল-কোবাক(গারো), রামানি (মগ), রেমেনিবা (মারমা), গামারি গাছ (তঞ্চঙ্গা), আব্বেই(খুমি)। গামারি-ফঙ(মান্দি)বলা হয়।

গামারি
Gmelina arborea
Gamhar.jpg
Gmelina arborea tree plantation
Gmelina arborea 2.jpg
Gmelina arborea sapling from Mindanao, Philippines
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Plantae
(শ্রেণীবিহীন): Angiosperms
(শ্রেণীবিহীন): Eudicots
(শ্রেণীবিহীন): Asterids
বর্গ: Lamiales
পরিবার: Lamiaceae
গণ: Gmelina
প্রজাতি: G. arborea
দ্বিপদী নাম
Gmelina arborea
Roxb.
প্রতিশব্দ
  • Gmelina arborea var. canescens Haines
  • Gmelina arborea var. glaucescens C.B.Clarke
  • Gmelina rheedei Hook. [Illegitimate]
  • Gmelina sinuata Link [১]

বিবরণীসম্পাদনা

গামারি সবুজ ও ঘন বিশিষ্ট একটি বৃক্ষ। ভারতবর্ষের গাছ। এই গাছের অনেক আয়ুর্বেদ গুণ আছে।

বৃক্ষ বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

গামারি একটি দ্রুত বর্ধনশীল গাছ। লম্বা গড়নে ১৫ থেকে ২০ মিটার উঁচু হয়। পত্রমোচী গাছ, প্রশাখা ও কুঁড়ি রোমশ। বাকল সাদাটে। পাতা তাম্বুলাকৃতি, ১০ থেকে ২০ সেমি লম্বা। উপরে উজ্জ্বল সবুজ,নিচে পান্ডুর,বোটা ৬ থেকে ১০ সেমি লম্বা। শীতে পাতা ঝরে। এটি অত্যধিক খরা সহনশীল।[২]

ভৌগলিক অবস্থাসম্পাদনা

বাংলাদেশসহ দক্ষিণপুর্ব এশিয়ায় জন্মে। ভারতের আসাম, দক্ষিণ বিহার, উড়িষ্যা, ও পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চল সংলগ্ন এলাকায় এ গাছ হয়।

ফুলসম্পাদনা

বসন্ত কালে পাতাহীন ডালে ডালে দেখা যায় গাঢ় হলুদ বরণ ফুল।ফুলের অনেক মিষ্টি গন্ধ, ফুল ৩ থেকে ৩.৫ সেমি লম্বা, ২ ভাগে বিভক্ত। এর পুষ্পমধু ভোমরাদের খুবই প্রিয়।[২]

ফলসম্পাদনা

গামারির ফল দেখতে গোলাকার। ৩ সেমি চওড়া, শাঁসাল, পাকলে হালকা হলুদ হয়।

ঔষধি ব্যবহারসম্পাদনা

এটি ঔষধিসমৃদ্ধ এক ভেষজ উদ্ভিদ।

  • কটুতিক্ত রস, গুরুপাক, উষ্ণবীর্য, কফ ও ত্রিদোষনাশক, বিষদোষ দাহ, জ্বর তৃষ্ণা ও রক্তদোষনাশক।
  • এর ছাল ও কাঠে আছে অনেক তিক্ত পদার্থ ও স্থেরোল।
  • পাতার রসে আছে জীবাণুনাশক শক্তি।
  • গণোরিয়া ও বেশ কিছু চর্মরোগে ব্যবহার করা হয়।
  • শিকড় কৃমিনাশক ও কুষ্ঠরোগে উপকারী।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা