প্রধান মেনু খুলুন

গড়িয়া

কলকাতার একটি অঞ্চল

গড়িয়া দক্ষিণ কলকাতার একটি অভিজাত অঞ্চল। নাকতলা, নিউ গড়িয়া, চক গড়িয়া, গড়িয়া পার্ক, বাঘা যতীন, বৈষ্ণবঘাটা পাটুলি, টেকনো সিটি, মডেল টাউন, গাঙ্গুলিবাগান, তেঁতুলবেড়িয়া, পূর্ব তেঁতুলবেড়িয়া, রামগড়, বৃজি, কামালগাজি, মহামায়াতলা, বোরাল, শ্রীনগর, নয়াবাদ, পঞ্চসায়র, কন্দর্পপুর টাউন, ফরতাবাদ, বালিয়া ও নিউ অজয়নগরের অংশবিশেষ গড়িয়া নামে পরিচিত। গড়িয়ার উত্তরে আছে যাদবপুর, ঢাকুরিয়া, গোলপার্ক ও গড়িয়াহাট, উত্তর-পশ্চিমে রয়েছে বাঁশদ্রোণী ও টালিগঞ্জ, উত্তর-পূর্বে আছে সন্তোষপুর, দক্ষিণে আছে নরেন্দ্রপুর ও সোনারপুর এবং পূর্বে আছে মুকুন্দপুর। ইস্টার্ন মেট্রোপলিটান বাইপাশের দক্ষিণ অংশটি এই অঞ্চলের মাঝখান দিয়ে গিয়েছে। গড়িয়া কলকাতার একটি ব্যস্ত এলাকা। এখানে শহরের দুটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পরিবহন টার্মিনাল রয়েছে। সেই জন্য এই অঞ্চলে যানজট একটি বড় সমস্যা।

গড়িয়া
শহর
দেশ ভারত
রাষ্ট্রপশ্চিমবঙ্গ
শহরকলকাতা
মেট্রো রেলওয়ে রুটকবি নজরুল, শহীদ ক্ষুদিরাম, কবি সুভাষ এবং গীতাঞ্জলি
রেল স্টেশনগড়িয়া, বাঘা যতীন
সংসদীয় নির্বাচকমণ্ডলীযাদবপুর
বিধানসভা নির্বাচনকেন্দ্র নির্বাচনকেন্দ্রযাদবপুর
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+৫:৩০)
পিআইএন৭০০০৮৪, ৭০০০৪৭, ৭০০০৯৪
এলাকা কোড+৯১ ৩৩
ওয়েবসাইটhttp://www.southkolkata.com/garia.php

ইতিহাসসম্পাদনা

গড়িয়া কলকাতার একটি অতি প্রাচীন এলাকা। আদিগঙ্গার পূর্ব পাড়ে অবস্থিত। আগে গড়িয়া ছিল জনবিরল বসতি এলাকা। দেশভাগের পর পূর্ব বাংলা শরণার্থীরা এখানে বসতি স্থাপন করতে শুরু করলে এখানকার ভৌগোলিক চিত্রটি যায় বদলে। গড়িয়ার জনসংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পায়। দক্ষিণ কলকাতায় যাদবপুর ও টালিগঞ্জের মতো গড়িয়াও হয়ে একটি শরণার্থী কেন্দ্র। এরপর ধীরে ধীরে গড়িয়ার নগরায়ন শুরু হয়। ১৯৯০ সালের পর যখন ইস্টার্ন মেট্রোপলিটান বাইপাস তৈরি হয়, তখন পরিবহন ক্ষেত্রে এই রাস্তার দক্ষিণে অবস্থিত গড়িয়ার গুরুত্ব বেড়ে যায়। গড়িয়া হয়ে ওঠে কলকাতার দ্বিতীয় চৌরঙ্গী। বাইপাসের মাধ্যমে গড়িয়ার সঙ্গে উত্তর কলকাতা, বিমানবন্দর এবং নতুন গড়ে ওঠা বিধাননগর (সল্টলেক) ও রাজারহাট নিউটাউন যুক্ত হয়। গড়িয়ার প্রধান বাস টার্মিনাস-দুটি গড়ে ওঠে। গড়িয়া একটি পরিবহন ও বাণিজ্যকেন্দ্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। কলকাতার কয়েকটি অত্যাধুনিক আবাসন চত্বর গড়ে উঠেছে গড়িয়ায়। এগুলি হল হাইল্যান্ড পার্ক, ওয়েস্টউইন্ড, অরবিট সিটি, সুগম পার্ক ও বেঙ্গল অম্বুজার উপহার।

পরিবহণসম্পাদনা

গড়িয়ায় মোট চারটি বাস টার্মিনাস রয়েছে। এই চারটি বাস টার্মিনাসের মাধ্যমে গড়িয়া কলকাতার অন্যান্য অঞ্চলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। গড়িয়ায় কলকাতা মেট্রোর কবি নজরুল, শহীদ ক্ষুদিরাম ও কবি সুভাষ (নিউ গড়িয়া) স্টেশন তিনটি অবস্থিত। কলকাতা সাবআর্বান রেলওয়ের শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার গড়িয়া ও বাঘা যতীন স্টেশনদুটি গড়িয়ায় অবস্থিত। ভূতল পরিবহন নিগম, সিএসটিসি ও ট্রামকোম্পানির অনেকগুলি রুট গড়িয়া থেকে পরিচালিত হয়। অনেক বেসরকারি বাসও এখান থেকে চালিত হয়। এমনকি গড়িয়ার টার্মিনাস থেকে দিঘায় যাওয়ার বাসও ছাড়ে।

গড়িয়ার প্রধান প্রধান রাস্তাসম্পাদনা

  • ইস্টার্ন মেট্রোপলিটান বাইপাস (বিধাননগর, নিউটাউন কলকাতা ও বিমানবন্দরের প্রবেশপথ)
  • নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু রোড (টালিগঞ্জের প্রবেশপথ)
  • রাজা সুবোধচন্দ্র মল্লিক রোড (যাদবপুর ও গড়িয়াহাটের প্রবেশপথ)
  • গড়িয়া মেন রোড (রাজপুর-সোনারপুর প্রবেশপথ)
  • গড়িয়া স্টেশন রোড (গড়িয়া স্টেশনের প্রবেশপথ)

গড়িয়ার মেট্রো স্টেশনসম্পাদনা

  • কবি সুভাষ (আগেকার নাম নিউ গড়িয়া )
  • শহীদ ক্ষুদিরাম (আগেকার নাম বৃজি)
  • কবি নজরুল (আগেকার নাম গড়িয়া বাজার)
  • গীতাঞ্জলি (আগেকার নাম নাকতলা)
  • সত্যজিৎ রায় (প্রস্তাবিত)

গড়িয়ার রেল স্টেশনসম্পাদনা

  • গড়িয়া
  • নিউ গড়িয়া (নির্মীয়মান)
  • বাঘা যতীন

গ্যালারিসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা