খোশবাজার ছালেহীয়া দারুচ্ছুন্নাত কামিল মাদরাসা

বাংলাদেশের ঠাকুরগাঁও জেলার একটি স্বনামধন্য কামিল মাদরাসা

খোশবাজার ছালেহীয়া দারুচ্ছুন্নাত কামিল মাদরাসা বাংলাদেশের ঠাকুরগাঁও জেলায় মুজাবর্ণী সরকারপাড়া মৌজায়

খোশবাজার ছালেহীয়া দারুচ্ছুন্নাত কামিল মাদরাসা
মাদ্রাসার একাডেমিক ভবন
নীতিবাক্যرَبِّ زِدْنِي عِلْمًا (হে আমার প্রতিপালক, আমার জ্ঞানকে সমৃদ্ধ করো)
ধরনএমপিও ভুক্ত
স্থাপিত১৫ জুন ১৯৭৪; ৪৯ বছর আগে (1974-06-15)
প্রতিষ্ঠাতাশাহ্ মুহাম্মদ মাছউদ আলম
অধিভুক্তিবাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড (১৯৭৪- বর্তমান)
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ (২০০৬- ২০১৬)
ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় (২০১৬- বর্তমান)
অধ্যক্ষআবু নাঈম মুহাঃ আব্দুল্লাহ বিন মাছউদ
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
৫০ জন
শিক্ষার্থী৮০০ (প্রায়)
ঠিকানা
খোশবাজার, ভূল্লী থানা
, ,
৫১০০
,
সংক্ষিপ্ত নামখোশবাজার মাদরাসা
ওয়েবসাইটhttp://kbm.edu.bd/

অবস্থিত স্বনামধন্য একটি আলিয়া মাদ্রাসা। ঠাকুরগাঁও জেলার ভূল্লী থানা হতে ২ কিলোমিটার উত্তরে ঢাকা-পঞ্চগড় মহাসড়ক সংলগ্ন প্রায় সাত একর জমির উপর মাদরাসাটির অবস্থান।[১] [২] প্রতিবছর জেডিসি, দাখিল ও আলিম পরীক্ষায় মাদরাসাটি ঠাকুরগাঁও জেলার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ফলাফল অর্জন করে থাকে। বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত জেলা পর্যায়ে "জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ" ২০১৭ এবং ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে মাদরাসাটি জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে।[৩] মাদরাসার বর্তমান অধ্যক্ষ জনাব আবু নাঈম মুহাঃ আব্দুল্লাহ বিন মাছউদ।[৪]

ইতিহাস

সম্পাদনা

খোশবাজারের পীর শাহ্ মুহাম্মদ মাছউদ আলম ১৯৭৪ সালে সূদুর বরিশাল থেকে হিযরত করে উত্তর অঞ্চলে এসে মুজাবর্ণী সরকারপাড়া গ্রামে খোশবাজার ছালেহীয়া দারুচ্ছুন্নাত কামিল মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করেন৷ ১৯৭৪ সালের ১৫ জুন ছারছীনার পীর আবু জাফর মুহা: ছালেহ খোশবাজার ছালেহীয়া দারুচ্ছুন্নাত কমপ্লেক্সের শুভ ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন । তার নামেই মাদরাসার নামকরণ করা হয় ছালেহীয়া। প্রথমে ফোরকানীয়া মাদরাসা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হলেও ১৯৭৫ সাল থেকে ইবতেদায়ী ১ম শ্রেণী হতে দাখিল দশম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান শুরু হয়৷ খোশবাজার পীর ছাহেব রহঃ এর ঐকান্তিক প্রচেষ্টা এবং জনগণের সর্বাত্মক সহযোগিতার ফলে মাদরাসাটি ১৯৭৭ সালে দাখিল, ১৯৮১ সালে আলিম, ১৯৮৫ সালে ফাজিল ও ১৯৯৬ সালে কামিল হাদীস পর্যায়ে উন্নীত হয়ে বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের স্বীকৃতি লাভ করে। [৫] ২০০৬ সালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশের অধীনে চার বছর মেয়াদি ফাযিল অনার্স কোর্স চালু হয়। ২০১৬ সালে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা হলে মাদরাসাটি উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয়।

শিক্ষা কার্যক্রম

সম্পাদনা

খোশবাজার মাদরাসায় স্কুল এবং হাফেজ ছাত্রদের পাঠদানের সুবিধার জন্য রয়েছে তাখসীসি জামাত। যারা কুরআন ও হাদিসের উপর আলেম হতে চান তাদের জন্য রয়েছে দরসে নেজামি পদ্ধতিতে ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে বিশেষভাবে পাঠদানের ব্যবস্থা। আলিম শ্রেণির মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে বিখ্যাত হাদীস গ্রন্থ পাঠের সুযোগ, এছাড়া ফাযিলকামিল শ্রেণিতে বিভিন্ন বিখ্যাত হাদিস ও তাফসির গ্রন্থ পাঠের ব্যবস্থা রয়েছে।

খোশবাজার মাদরাসায় জ্ঞানার্জনের পাশাপাশি আমলের প্রতিও বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়। প্রত্যেক ফজরের নামাজের পর আবাসিক শিক্ষার্থীদের কুরআন তিলাওয়াতসহ মাগরিব নামাজের পর আওয়াবিন সালাত, যিকির আজকার বাধ্যতামূলকভাবে করানো হয়ে থাকে। ছাত্রদেরকে সবসময় যোগ্য শিক্ষকদের সহচার্যে রেখে আহলুস সুন্নাত ওয়াল জামাতের মতাদর্শে তালীম তরবীয়াত, আমল-আখলাক, লেবাস পোশাক সহ সব দিক দিয়ে হক্কানী আলেম হিসেবে গড়ে তোলা হয়। এ মাদরাসার ছাত্র ও শিক্ষকগণ নানান সামাজিক কাজে অংশগ্রহণ করে থাকে।[৬] এছাড়াও প্রতি সপ্তাহে ছাত্রদের সপ্তাহিক জলছা, বিতর্ক প্রতিযোগিতা এবং নানা রকম সৃজনশীল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।[৭]

শাখা প্রতিষ্ঠান

সম্পাদনা

খোশবাজার মাদরাসা কমপ্লেক্সে এর কয়েকটি শাখা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

  • খোশবাজার দরবার শরীফ।
  • দারুচ্ছুন্নাহ তাখসীসি শাখা। (বিশেষ একাডেমিক মাদরাসা)
  • দারুচ্ছুন্নাহ তাজেলি শাখা। (শিশুদের মক্তব)
  • খোশবাজার হিফজখানা।
  • খোশবাজার ছালেহিয়া এতিমখানা ও লিল্লাহ বোর্ডিং।
  • কিতাবখানা (লাইব্রেরি)।
  • শাহ্ মাছউদ আবাসিক হল।
  • ছাত্র: সাদা পাজামা, সাদা নেছফে ছাক গোলজামা (১ বোতাম), সাদা টুপি, কালো পাগড়ী এবং সাদা জুতা-মোজা।

শিক্ষক

সম্পাদনা

খোশবাজার মাদরাসায় প্রায় নিয়মিত ৫০ জন শিক্ষক রয়েছে। এছাড়া আবাসিকে ৫ জন শিক্ষক ছাত্রদের নিয়োমিত দেখাশোনা করেন। মাদরাসার বর্তমান অধ্যক্ষ আবু নাঈম মুহাঃ আব্দুল্লাহ বিন মাছউদ।

চিত্র সংকলন

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "খোশবাজার এস. ডি. কামিল মাদরাসা" 
  2. "খোশবাজার ছালেহীয়া দারুচ্ছুন্নাত কামিল মাদরাসা"। ৩ মার্চ ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 
  3. দৈনিক লোকায়ন (ঠাকুরগাঁও জেলার একমাত্র পত্রিকা) ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (২১৫তম সংখ্যা)
  4. "খোশবাজার কামিল মাদরাসায় ছবক ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা" 
  5. খোশবাজার আলিয়া মাদরাসার ইতিহাস স্মরণিকা। পৃষ্ঠা:১১
  6. "প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে খোশবাজার ছালেহিয়া দারুচ্ছুন্নাত কামিল মাদ্রাসায় বৃক্ষরোপণ"। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 
  7. "খোশবাজার কামিল মাদরাসায় ছবক ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা"