খাদ্য ও বিকিরণ জীববিজ্ঞান ইনস্টিটিউট

খাদ্য ও বিকিরণ জীববিজ্ঞান ইনস্টিটিউট একটি সরকারি গবেষণা ইনস্টিটিউট যা ইরেডিয়েশনের মাধ্যমে খাদ্য সংরক্ষণের পদ্ধতি নিয়ে গবেষণা করে।[১] ইনস্টিটিউটটি বাংলাদেশ পারমাণবিক শক্তি কমিশনের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।[২]

খাদ্য ও বিকিরণ জীববিজ্ঞান ইনস্টিটিউট
গঠিত১৯৭৪
সদরদপ্তরসাভার, বাংলাদেশ
যে অঞ্চলে কাজ করে
বাংলাদেশ
দাপ্তরিক ভাষা
বাংলা

ইতিহাস

সম্পাদনা

ইনস্টিটিউটটি ১৯৭৪ সালে ইরেডিয়েশন এবং কীটপতঙ্গ নিয়ন্ত্রণ গবেষণা ইনস্টিটিউট হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। পরে ১৯৭৯ সালে ইনস্টিটিউটটি পারমাণবিক শক্তি গবেষণা সংস্থাতে স্থানান্তরিত হয় এবং খাদ্য ও রেডিয়েশন বায়োলজি ইনস্টিটিউট নামে নামকরণ করা হয়। ইনস্টিটিউটের একটি ইরেডিয়েশন সুবিধা রয়েছে যা বাংলাদেশি সংস্থাগুলিকে ভর্তুকি হারে তাদের বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করে।[১] ইনস্টিটিউটে একটি কোবাল্ট -৬০ গামা আইরেডিয়েটর রয়েছে যা গামা সোর্স বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।[৩]

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. মিয়া মোঃ সিরাজুল হক (২০১২)। "খাদ্য ও বিকিরণ জীববিজ্ঞান ইনস্টিটিউট"ইসলাম, সিরাজুল; মিয়া, সাজাহান; খানম, মাহফুজা; আহমেদ, সাব্বীর। বাংলাপিডিয়া: বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্বকোষ (২য় সংস্করণ)। ঢাকা, বাংলাদেশ: বাংলাপিডিয়া ট্রাস্ট, বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটিআইএসবিএন 9843205901ওএল 30677644Mওসিএলসি 883871743 
  2. Phillips, G. O.; Kearn, J. N.; Strong, D. M.; Versen, R. Von; Nather, A. (১ জানুয়ারি ১৯৯৯)। "Advances in Tissue Banking"400 (ইংরেজি ভাষায়)। World Scientific। সংগ্রহের তারিখ ২৭ এপ্রিল ২০১৭ 
  3. "Making food safer and longer-lasting"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ১৭ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৭ এপ্রিল ২০১৭