নবাব খান বাহাদুর খাজা ইউসুফ জান (২১ জানুয়ারি ১৮৫০ - ৮ নভেম্বর ১৯২৩) ছিলেন একজন কাশ্মীরি-বাঙালি রাজনীতিবিদ এবং ঢাকার নবাব পরিবারের সদস্য। [১]

নবাব খান বাহাদুর

খাজা ইউসুফ জান
জন্ম(১৮৫০-০১-২১)২১ জানুয়ারি ১৮৫০
মৃত্যু৮ নভেম্বর ১৯২৩(1923-11-08) (বয়স ৭৩)
ঢাকা, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত
দাম্পত্য সঙ্গীনুরজাহান খানম
সন্তানখাজা মুহাম্মাদ আফজাল
পিতা-মাতা
  • হাসিনা বিবি (মাতা)
আত্মীয়খাজা আলীমুল্লাহ (দাদা) খাজা আবদুল গনি (চাচা)

প্রথম জীবন

সম্পাদনা
 
জানের ছবি ঢাকার মুসলিম অভিজাতদের সাথে।

জান ২১ জানুয়ারি ১৮৫০ সালে ঢাকা বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারতের একটি কাশ্মীরি মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি গৃহশিক্ষকের কাছ থেকে আরবি, উর্দু, ফারসি এবং ইংরেজি অধ্যয়ন করেন। তিনি ১৮৮৩ সালে মোহামেডান অ্যাসোসিয়েশন গঠন করেন।[২]

কর্মজীবন

সম্পাদনা

১৮৮৪ থেকে ১৯২৩ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত ঢাকা পৌরসভার সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৮৯৭ থেকে ১৯০১ সাল পর্যন্ত ঢাকা পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ১৮৯৭ থেকে ১৯০৫ সাল পর্যন্ত ঢাকা জেলা বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন [২] তিনি ১৯০৩ সালে সম্মানের সনদ, ১৯০৪ সালে খান বাহাদুর এবং ১৯১০ সালে ব্রিটিশ সরকার কর্তৃক নবাব লাভ করেন। [২] তিনি ১৯০৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব সলিমুল্লাহর নেতৃত্বে নর্থব্রুক হলে একটি সভায় যোগদান করেন এবং যেখানে মোহামেডান অ্যাসোসিয়েশন মোহামেডান প্রাদেশিক ইউনিয়নে গঠণ করেন। [২] ইউসুফজানকে ইউনিয়নের সেক্রেটারি করা হয়। ১৯০১ থেকে ১৯০৫ সাল পর্যন্ত তিনি ঢাকা পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান এবং ১৯০৫ থেকে ১৯১৬ সাল পর্যন্ত তিনি ঢাকা পৌরসভার চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯১০ সালের ১৬ অক্টোবর তিনি বাংলায় মুসলিম লিগের সভায় সভাপতিত্ব করেন। তিনি বঙ্গভঙ্গ সমর্থন করেন। ১৯১৩ সালে তার নামে নয়াবাজারের একটি বাজারের নামকরণ করা হয়। তিনি ১৯২১ থেকে ১৯২৩ সাল পর্যন্ত জেলা বোর্ডের চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ১৯০৭ সাল থেকে ইস্ট বেঙ্গল লেজিসলেটিভ অ্যাসেম্বলিতে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২৮ বছর ঢাকার অনারারি ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ঢাকার লেডি ডাফরিন হাসপাতালের সচিব ছিলেন। [২] [৩]

ব্যক্তিগত জীবন এবং মৃত্যু

সম্পাদনা

জানের বিয়ে হয়েছিল নূরজাহান খানমের সাথে। তাদের একটি পুত্র সন্তান ছিল খাজা মুহাম্মদ আফজাল[৪] জান ৮ নভেম্বর ১৯২৩ সালে ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন।

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. Ahmed, Sharif Uddin (২০০৩)। Dhaka: a study in urban history and development, 1840-1921 (ইংরেজি ভাষায়)। Academic Press and Publishers। পৃষ্ঠা 259। আইএসবিএন 9789843209597। সংগ্রহের তারিখ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  2. মোহাম্মদ আলমগীর (২০১২)। "ইউসুফজান, খাজা"ইসলাম, সিরাজুল; মিয়া, সাজাহান; খানম, মাহফুজা; আহমেদ, সাব্বীর। বাংলাপিডিয়া: বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্বকোষ (২য় সংস্করণ)। ঢাকা, বাংলাদেশ: বাংলাপিডিয়া ট্রাস্ট, বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটিআইএসবিএন 9843205901ওএল 30677644Mওসিএলসি 883871743। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০২৩ 
  3. Wing, Baṅgabhabana (Dhaka, Bangladesh) Press (২০০৬)। Hundred years of Bangabhaban, 1905-2005 (ইংরেজি ভাষায়)। Press Wing Bangabhaban। পৃষ্ঠা 40। আইএসবিএন 9789843215833 
  4. "Family Tree"www1.tribalpages.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-২০