কেট ক্যাম্পবেল

অস্ট্রেলিয়ান সাঁতারু

কেট নাতালি ক্যাম্পবেল, ওএএম (ইংরেজি: Cate Campbell; জন্ম: ২০ মে, ১৯৯২) মালাউইর ব্লানতায়ার এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিশিষ্ট প্রতিযোগিতাধর্মী অস্ট্রেলীয় প্রমিলা সাঁতারু২০০৮ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে দুইটি ব্রোঞ্জপদক২০১২ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে একটি স্বর্ণপদক লাভ করেছেন তিনি। ১০০ মিটারের ব্যক্তিগত মুক্তসাঁতার বিষয়ের শর্ট ও লং কোর্সের উভয় বিভাগে বর্তমান বিশ্বরেকর্ডের অধিকারীনি কেট ক্যাম্পবেল

কেট ক্যাম্পবেল
Dara Torres, Cate Campbell, Francesca Halsall ready to start, 2008 Olympics.jpg
২০০৮ অলিম্পিকের ৪নং লেনে (মধ্যে) ক্যাম্পবেল
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1992-05-20) ২০ মে ১৯৯২ (বয়স ২৮)
ব্লানটায়ার, মালাউই
উচ্চতা১.৮৬ মি (৬ ফু ১ ইঞ্চি)
ওজন৬৭ কেজি (১৪৮ পা)
ক্রীড়া
ক্রীড়াসাঁতার
স্ট্রোকফ্রিস্টাইল
ক্লাবকমার্শিয়াল
প্রশিক্ষকসিমন কুস্যাক[১]

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

২০০১ সালে তার পরিবার মালাউই থেকে অস্ট্রেলিয়ায় চলে আসে। এর অল্প কিছুদিন পরই তিনি প্রতিযোগিতামূলক সাঁতারের সাথে জড়িয়ে পড়েন। ২০০৭ সালে সিডনিতে অনুষ্ঠিত অস্ট্রেলীয় যুব অলিম্পিক উৎসবে অংশ নেন। ৫০ মিটার ব্যক্তিগত মুক্তসাঁতার ও ৪×১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল রিলেতে অংশ নিয়ে দুইটি স্বর্ণপদক লাভ করেন তিনি। ২০০৮ সালের জাপান ওপেনে ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে বিজয়ী হন। এতে স্বদেশী লিবি ট্রিকেটকে পরাজিত করেন এবং নতুন অস্ট্রেলীয় ও কমনওয়েলথ রেকর্ড গড়েন ২৪.৪৮ সেকেন্ড সময় নিয়ে।

কমার্শিয়াল সুইমিং ক্লাবে সিমন কুসাকের কাছে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। কুইন্সল্যান্ডের ব্রিসবেনে অবস্থিত কেনমোর স্টেট হাইস্কুলে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা সমাপন করেন তিনি। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি সবার বড়। তার এক বোন ব্রন্টেও সাঁতারু। দুজনে একই বিষয়ে ২০১২ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে অংশ নিয়েছিলেন।[২]

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

লন্ডনে অনুষ্ঠিত ২০১২ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে অস্ট্রেলিয়ার দলগত ৪×১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল রিলেতে স্বর্ণপদক জয়ী দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি।[৩] মহিলাদের ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে দুই বোন একই হিটে সাঁতার কেটেছিলেন। তিনি তৃতীয় ও ব্রন্টে দ্বিতীয় হন। এরপর সেমি-ফাইনালে তারা যথাক্রমে দশম ও নবম স্থান দখল করেন।[৪]

২০১৬ সালের অস্ট্রেলীয় সুইমিং চ্যাম্পিয়নশীপের ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে জয়ী হন। ফলশ্রুতিতে রিও অলিম্পিকে অংশগ্রহণের যোগ্যতা লাভ করেন। ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলের সেমিফাইনালে ২৩.৯৩ সময় নিয়ে অস্ট্রেলীয় রেকর্ড গড়েন। টেক্সটাইল সুইমস্যুট পরিধান করে এ দ্রুততম সময় নেন তিনি। [৫] এরফলে ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলের ফাইনালে জয় পান ও অলিম্পিকের পথে পাড়ি জমান। এতে ২৩.৮৪ সময় নিয়ে নিজের রেকর্ডকে আরও উন্নততর করেন।[৬] পাশাপাশি অলিম্পিক দলের ৪×১০০মিটার ফ্রিস্টাইল ও ৪×১০০মিটার রিলেতেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সুযোগ ঘটে তার।[৭] তন্মধ্যে ফ্রিস্টাইলে নতুন বিশ্বরেকর্ডের ভাগীদার হন তিনি। ২০১৬ সালের অস্ট্রেলীয় গ্রাঁ প্রি মিটে ৫২.০৬ সময়ে লং কোর্সের ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে বিশ্বরেকর্ড গড়েন। সুপার স্যুইট যুগে ব্রিটা স্টিফেনের গড়া বিশ্বরেকর্ডের চেয়ে এ রেকর্ডটি মাত্র ০.০১ সেকেন্ড কম ছিল।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Lord, Craig (নভেম্বর ২৬, ২০১৫)। "Emily Seebohm Riding Golden wave To Rio With A 1:59 Australian 200 Back S/C Record"। Swimvortex। ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২৭, ২০১৫ 
  2. "Campbell Sisters to swim in London"। ৪ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৬ 
  3. Women's 4x100m Freestyle Relay আর্কাইভইজে আর্কাইভকৃত ৫ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে, London2012.com
  4. Women's 50m Freestyle: Heats আর্কাইভইজে আর্কাইভকৃত ৮ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে, London2012.com
  5. Lord, Craig (এপ্রিল ১৩, ২০১৬)। "Cate Campbell Breaks World Textile Tie With Fran Halsall With 23.93 CR Dash Mark"। Swimvortex। ২১ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ১৩, ২০১৬ 
  6. Keith, Braden (এপ্রিল ১৪, ২০১৬)। "Cate Campbell Swims 23.84 in Final, Moves to #2 All-Time"। Swimswam। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ১৪, ২০১৬ 
  7. "2016 Australian Olympic Swimming Team selected"। Australian Olympic Committee। ১৪ এপ্রিল ২০১৬। ১১ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

রেকর্ড
পূর্বসূরী
ব্রিটা স্টিফেন
১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল (এলসি)
২ জুলাই, ২০১৬-বর্তমান
উত্তরসূরী
নির্ধারিত হয়নি
পূর্বসূরী
ফ্লোরেন্ত মানাউদু, জেরেমি স্ত্রাভিয়াস, মেলানি হেনিক, আন্না সান্তামান্স
মিশ্র ৪×৫০ মিটার ফ্রিস্টাইল রিলে বিশ্বরেকর্ডধারক
১০ নভেম্বর, ২০১৩-১৪ ডিসেম্বর, ২০১৩
সাথে: রেগান লং (১০ নভেম্বর থেকে ১০ নভেম্বর), তোমাসো ডি'অর্সোগনা, ট্রাভিস মাহানি, ব্রন্টে ক্যাম্পবেল
উত্তরসূরী
সার্গে ফেসিকভ, ভ্লাদিমির মরোজভ, রোজালিয়া নাসরেতদিনোভা, ভেরোনিকা পপোভা
পুরস্কার
পূর্বসূরী
ই শিওয়েন
প্যাসিফিক রিম বর্ষসেরা সাঁতারু
২০১৩, ২০১৪
উত্তরসূরী
এমিলি সিবোম