প্রধান মেনু খুলুন

কিটন জেনিংস

ক্রিকেটার

কিটন কেন্ট জেনিংস (ইংরেজি: Keaton Jennings; জন্ম ১৯ জুন, ১৯৯২) ট্রান্সভাল প্রদেশের জোহানসবার্গে জন্মগ্রহণকারী ও দক্ষিণ আফ্রিকান বংশোদ্ভূত বিশিষ্ট ইংরেজ ক্রিকেটার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করছেন। প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ডারহামের পক্ষে খেলছেন। দীর্ঘ ৬ ফুট ৫ ইঞ্চি (১.৯৬ মি) উচ্চতার অধিকারী কিটন জেনিংস মূলতঃ বামহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। এছাড়াও ডানহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিং করে থাকেন তিনি।[১]

কিটন জেনিংস
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামকিটন কেন্ট জেনিংস
জন্ম (1992-06-19) ১৯ জুন ১৯৯২ (বয়স ২৭)
জোহানেসবার্গ, ট্রান্সভাল প্রদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা
উচ্চতা৬ ফুট ৫ ইঞ্চি (১.৯৬ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট
ভূমিকাউদ্বোধনী ব্যাটসম্যান
সম্পর্ক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৬৭৫)
৮ ডিসেম্বর ২০১৬ বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১১-২০১২গটেং
২০১২-ডারহাম (দল নং ১)
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ৭৩ ৩১ ৩০
রানের সংখ্যা ১১২ ৪,২৭২ ৮০০ ৩৫০
ব্যাটিং গড় ১১২.০০ ৩৫.৮৯ ৪২.১০ ৩১.৮১
১০০/৫০ ১/০ ১২/১৬ ২/৬ ০/১
সর্বোচ্চ রান ১১২ ২২১* ১০১* ৮৮
বল করেছে ৮৪৮ ৩৭২ ৪৫৬
উইকেট ১৪ ১৯
বোলিং গড় ০.০০ ৩৩.৩৫ ১২২.৬৬ ২৯.৮৯
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/৮ ১/৯ ৪/৩৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ৩৯/– ৬/– ৭/–
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ৮ ডিসেম্বর ২০১৬

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

সান্ডারল্যান্ডে তার মা জন্মগ্রহণ করেন। ঐ সুবাদে তিনি ব্রিটিশ নাগরিকত্বের অধিকারী। অন্যদিকে তার বাবা রে জেনিংস দক্ষিণ আফ্রিকায় ১৯৭৩-৭৪ থেকে ১৯৯২-৯৩ সময়কালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নিয়েছিলেন যার অধিকাংশই দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবৈষম্যবাদ চলাকালে খেলেছিলেন। পরিবারের অন্যান্য সদস্যের মধ্যে জেনিংসের কাকা কেনেথ জেনিংস ও জ্যেষ্ঠ ভ্রাতা ডিলন জেনিংস দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলেছেন।

২০১১ মৌসুমে ডারহামে সময় কাটান। এসময়ে একাডেমি দল ও দ্বিতীয় একাদশে খেলেন। ডিসেম্বর, ২০১১ সালে গটেংয়ের সদস্যরূপে ফ্রি স্টেটের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার।[২] এছাড়াও দক্ষিণ আফ্রিকার অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সদস্য ছিলেন ও দলের অধিনায়ক হিসেবে ২০১১ সালে ইংল্যান্ড সফর করেন।

ইংল্যান্ডে বসবাসসম্পাদনা

দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে খেলার সুযোগ থাকলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ইংল্যান্ড দলকেই বেছে নেন। মার্চ, ২০১২ সালে গটেংয়ের পক্ষে সর্বশেষ খেলায় অংশ নেন। ২ এপ্রিল, ২০১২ তারিখে স্থায়ীভাবে যুক্তরাজ্যে চলে আসেন। এরফলে চার বছর বসবাস করে ইংল্যান্ড দলে এপ্রিল, ২০১৬ সালে খেলার সুযোগ পাবেন।[৩][৪] ২০১২ সালে ডারহামের পক্ষে দ্বিতীয় একাদশে খেলতে থাকেন। আগস্ট, ২০১২ সালে সারের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার।

টেস্ট ক্রিকেটসম্পাদনা

নভেম্বর, ২০১৬ সালে জেনিংসকে ইংল্যান্ডের টেস্ট দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে সিরিজের শেষ দুই টেস্টে আঘাতপ্রাপ্ত হাসিব হামিদের স্থলাভিষিক্ত হন তিনি।[৫] ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬ তারিখে ১০১তম ব্যক্তি হিসেবে অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরি করার কৃতিত্ব অর্জন করেন।[৬] ভারতের বিপক্ষে তার এই ১১২ রান যে-কোন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ সংগ্রহরূপে বিবেচিত।[৭]

টেস্ট শতকসমূহসম্পাদনা

কিটন জেনিংসের টেস্ট শতকসমূহ
# রান খেলা প্রতিপক্ষ শহর/দেশ মাঠ সাল ফলাফল
১১২   ভারত   মুম্বই, ভারত ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম ২০১৬ [নির্ধারিত হয়নি]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Player Profile: Keaton Jennings"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১৩ 
  2. "Gauteng v Free State at Johannesburg, December 15-16, 2011"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১৩ 
  3. Hoult, Nick (৮ ডিসেম্বর ২০১৬)। "Keaton Jennings hits century on England Test debut - here's what you need to know about him"www.telegraph.co.uk। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  4. "Hameed and Duckett in line for England calls"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  5. "Jennings and Dawson to join squad"England and Wales Cricket Board। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৬ 
  6. "England tour of India, 4th Test: India v England at Mumbai, Dec 8-12, 2016"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  7. "Keaton Jennings makes mark with hundred on debut"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৬ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা