কালিন্দী নদী

বাংলাদেশের নদী

কালিন্দী নদী একটি জোয়ার ভাঁটার নদী, সুন্দরবনের কাছে ভারতের পশ্চিম বঙ্গ রাজ্যের উত্তর চব্বিশ পরগণা জেলার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার সীমান্ত ঘেঁষে প্রবাহিত হয়েছে। হিঙ্গলগঞ্জের কাছে ইছামতি নদী কয়েকটি জলধারায় বিভক্ত হয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে রায়মঙ্গল নদী, বিদ্যাধরী নদী, ঝিলা নদী, কালিন্দী নদী এবং যমুনা নদী। সুন্দরবনের উপকূল জুড়ে এই নদীগুলো প্রশাখা বিস্তার করেছে।[১]

কালিন্দী নদী
দেশসমূহ ভারত, বাংলাদেশ
রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ
জেলা সাতক্ষীরা

ইতিহাসসম্পাদনা

কালিগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম দিকে বসন্তপুরে যমুনা থেকে একটি শাখা সোজা দক্ষিণ দিকে চলে গেছে। রাজা প্রতাপাদিত্যের সময় এই শাখা সাধারণ খালের মতো ছিল। এই খাল ‘কালিন্দী' নামে পরিচিত। ১৮১৬ সালে খনন করে এই খাল আরও দক্ষিণে কলাগাছির সাথে যুক্ত করা হয়। পরে প্লাবনে কালিন্দী বড় নদীতে পরিণত হয়। আন্তর্জাতিক সীমান্ত দিয়ে প্রবাহিত হয়ে রায়মঙ্গলের মাধ্যমে সাগরে পড়েছে। এই নদী বর্তমানে বাংলাদেশ-ভারতের সীমা নির্দেশ করেছে। উল্লেখ্য, কালিন্দীতে কলাগাছির সাথে সংযুক্ত করার আগে কালিগঞ্জে যমুনা থেকে একটি খাল কেটে পূর্বদিকে বাঁশতলা নদীর সাথে সংযুক্ত করা হয়। খালই বর্তমানে কাকশিয়ালী নদী

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "The Sundarbans of India: a development analysis By Asim Kumar Mandal" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১১-১৮ 

স্থানাঙ্ক: ২২°১৮′৪৫″ উত্তর ৮৮°৫৮′৪২″ পূর্ব / ২২.৩১২৪৯০০° উত্তর ৮৮.৯৭৮২৮৭০° পূর্ব / 22.3124900; 88.9782870