ওয়েভস

মার্কিন নৌবাহিনী সংরক্ষিত নারী শাখা

মার্কিন নৌবাহিনী সংরক্ষিত নারী শাখা (ইংরেজিতে Women Accepting For Volunteer Reserve বা সংক্ষেপে WAVES) ছিলো মার্কিন নৌবাহিনীর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে নারী নাবিক দ্বারা গঠিত নৌ সামরিক শাখা।[১] ১৯৪২ সালের ২১শে জুলাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনেট এই নারীদের নৌবাহিনী ঢোকার অনুমোদন দেয় এবং এই সংক্রান্ত কাগজে রাষ্ট্রপতি ফ্রাঙ্কলিন ডি. রুজভেল্ট স্বাক্ষর করেন ৯ দিন পর অর্থাৎ ৩০শে জুলাই। খুব দ্রুত নারীদের নাবিক হিসেবে যোগ দানের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যায় এবং নারী নাবিকেরা ছয় মাসের মৌলিক সামরিক প্রশিক্ষণ (রিক্রুট প্রশিক্ষণ) প্রাপ্ত হচ্ছিলেন। অপরদিকে নারী কর্মকর্তাক্যাডেটদের মৌলিক সামরিক প্রশিক্ষণমেয়াদ ছিলো ১ বছর এবং এটা মার্কিন নৌ একাডেমীতে হচ্ছিলো। ওয়েভস মূলত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনীর মহিলা সৈন্য শাখার মতো সামরিক বাহিনীর একটি সাহায্যকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছিলো। এই ওয়েভস প্রতিষ্ঠানটির প্রথম পরিচালক ছিলেন মিলড্রেড এইচ. ম্যাকআফে যিনি ১৯৪২ সালে মার্কিন নৌবাহিনীতে সরাসরি লেফটেন্যান্ট কমান্ডার পদবিতে যোগ দেন, তিনি মূলত একজন প্রশাসনিক স্টাফ কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন।

Female WAVE officer sitting at her desk in dress blue uniform
নৌ ক্যাপ্টেন মিলড্রেড এইচ. ম্যাকআফে, ছিলেন ওয়েভসের প্রথম পরিচালক, ছবিটি ১৯৪২ সালের, এবং তিনি এখানে লেফটেন্যান্ট কমান্ডার পদবিতে আছেন

যারা নারী নাবিক হিসেবে যোগ দিতে ইচ্ছুক তাদেরকে উচ্চ বিদ্যালয় উত্তীর্ণ কিংবা ডিপ্লোমা প্রশিক্ষণ ধারী হতে হতো আর কর্মকর্তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতক হতে হতো। নারী নাবিকরা সর্বোচ্চ পদোন্নতি পেতেন আর কর্মকর্তারা সর্বোচ্চ ক্যাপ্টেন পর্যন্ত উঠতে পারতেন।

১৯৪৫ সালে সংগঠনটি ভেঙে দিয়ে মার্কিন নৌবাহিনীর মূল ধারায় নারীরা যুক্ত হয়ে যান এবং নতুন করে নারীদেরকে তখন পুরুষদের সঙ্গে প্রশিক্ষণ নিতে হয়। মোট ২০,০০০ নারী নাবিক দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নৌবাহিনীতে কাজ করেন। যুদ্ধচলাকালীন এই সংস্থার সদস্যরা মার্কিন ভূখণ্ডের বাইরে যাওয়ার সুযোগ পাননি।

প্রশিক্ষণসম্পাদনা

নৌবাহিনীতে যোগ দিতে আগ্রহী প্রার্থীদের সাঁতার জানা আবশ্যক ছিলো এবং রিক্রুট প্রশিক্ষণ (বুট ক্যাম্প ট্রেনিং) ছিলো ছয় মাস; নারীরা পুরুষদের সঙ্গে প্রশিক্ষণ না নিলেও তাদের কর্মস্থল পুরুষদের সঙ্গেই হতো। নারী নাবিকরা কোয়ার্টার-মাস্টার, রাডার প্লটার, সার্ভে রেকোর্ডার, গানারি রেট, ওয়ান্ডার ওয়াটার উইপোন রাইটার, ডাইভার, প্যাট্রোলম্যান, ফিজিক্যাল ট্রেনিং ইন্সট্রাক্টর, ইঞ্জিনিয়ারিং মেকানিক, ট্রেডসম্যান, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, হাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ট্র্যান্সপোর্ট অ্যাসিসট্যান্ট, ইলেক্ট্রিশিয়ান মেট, রেডিও ইলেক্ট্রিশিয়ান মেট, মেস অ্যাসিসট্যান্ট, ক্যাটারিং অ্যাসিসট্যান্ট, ইনফরমেশন টেকনোলজি, রাইটার, স্টোর অ্যাসিসট্যান্ট, কমিউনিকেটর, মেডিক্যাল অ্যাসিসট্যান্ট এবং মিউজিশিয়ান শাখায় ৪০ শতাংশ কোটায় ঢুকতে পারতেন।

নারী কর্মকর্তাদের কখনোই অপারেশন্স শাখায় কমিশন দেওয়া হতোনা, তারা এক্সিকিউটিভ শাখায় যোগদানের সুযোগও পেতেন না, শুধু পেতেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের সুযোগ এবং পরে প্রকৌশল শাখায় কমিশন দেওয়া তাদের যদিও মাত্র ৫ শতাংশ কোটায় তারা কমিশন পেতেন।[২]

নারীদের কাজসম্পাদনা

ওয়েভস নারীরা পুরুষদের মতো একই দায়িত্ব পেতেন শুধু তাদের পোশাক ভিন্ন ছিলো তারা ঘাঘরা পরতেন কিন্তু মূল সামরিক দায়িত্ব পালনের সময় তাদেরকে পুরুষদের মতো শার্ট-প্যান্ট পরতে হতো উদাহরণস্বরূপ জাহাজের যন্ত্র মেরামত করার সময় তাদেরকে পুরুষদের মতো পোশাক পরতে হতো।[৩]

বিলুপ্তিকরণসম্পাদনা

১৯৪৬ সালে এই সংস্থাটি ভেঙে দিয়ে ২১,০০০ নারী নৌ সদস্যকে পুরুষ নৌ সদস্যদের সঙ্গে যুক্ত করে দেওয়া হয়; তখন থেকে নারীরা মার্কিন নৌবাহিনীর মূলধারায় যুক্ত হতে পারেন।

চিত্রশালাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Women in the U.S. Navy yesterday, today, and tomorrow"dcmilitary.com। ১১ মার্চ ২০২১। 
  2. "Women's History Month: Which Women Engineers Have Succeeded by Breaking the Rules?"alltogether.swe.org। ২৯ মার্চ ২০২১। 
  3. "Navy memories and birthday cake on Yvette Vary's 100th birthday"providencejournal.com। ২১ মার্চ ২০২১। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা