প্রধান মেনু খুলুন

ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবের ইতিহাস

ব্রিটিষ পদার্থবিজ্ঞানী ও কম্পিউটার বিজ্ঞানী টিমথি বার্নার্স-লি সুইজারল্যান্ডের জেনেভার সার্ন সংস্থার একটি প্রকল্প হিসেবে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব উদ্ভাবন করেন। তিনি বেশ কিছু বিদ্যমান ধারণাকে একটিমাত্র ব্যবস্থাতে সংযুক্ত করেন, যাতে পদার্থবিজ্ঞানীরা ইন্টারনেটে আরও সহজে তথ্য ব্যবহার করতে পারেন। বার্নার্সের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান হল তিনি পূর্বতন গোফার সেবায় ব্যবহৃত হাইপারলিংকের ধারণার সাথে মাল্টিমিডিয়া প্রযুক্তির (অর্থাৎ ছবি অন্তর্ভুক্ত করার ক্ষমতা) সমন্বয় ঘটান। বার্নার্স-লি ১৯৮০-র দশকের শুরুর দিকেই হাইপারটেক্সট নিয়ে গবেষণা শুরু করেন। ওয়েবের একটি শুরুর দিকের প্রোটোটাইপ রূপ ১৯৮৯ সাল থেকে সার্নে ব্যবহৃত হতে শুরু করে। বার্নার্সের এই উদ্ভাবন দ্রুত বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ছড়িয়ে পড়ে।

ইউনিভার্সিটি অভ ইলিনয় অ্যাট আর্বানা-শ্যাম্পেইনের অধীন ন্যাশনাল সেন্টার ফর সুপারকম্পিউটিং অ্যাপ্লিকেশন্‌সের কিছু দল ওয়েব প্রযুক্তির উন্নয়ন সাধন করে। তারা ১৯৯৩ সালে ওয়েবের জন্য প্রথন ব্রাউজার সফটওয়্যার নির্মাণ করে, যার নাম ছিল মোজাইক। এর বছর খানেকের মধ্যেই কম্পিউটার প্রোগ্রামার মার্ক অ্যান্ডারসেন নেটস্কেপ কমিউনিকেশন্‌স কর্পোরেশন নামের একটি বাণিজ্যিক কোম্পানি শুরু করেন, যার উদ্দেশ্য ছিল ওয়েব প্রযুক্তি নির্মাণ করা ও এগুলি বিক্রি করা।