ওমরগণি এমইএস কলেজ

চট্টগ্রাম শহরে অবস্থিত কলেজ

ওমরগণি মুসলিম এডুকেশন সোসাইটি (এম.ই.এস.) কলেজ চট্টগ্রামের নাসিরাবাদ এলাকায় জাকির হোসেন রোডে অবস্থিত একটি বেসরকারি উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, যা এমইএস কলেজ নামে বহুল পরিচিত। এটি চট্টগ্রাম বিভাগের সবচেয়ে বড় বেসরকারি কলেজ।

ওমরগণি এম.ই.এস কলেজ
MES College / এম ই এস কলেজ
ওমরগণি এম.ই.এস. কলেজের লোগো.jpeg
MES College.jpg
অবস্থান
জাকির হোসেন রোড,নাসিরাবাদ

,
তথ্য
ধরনবেসরকারি কলেজ
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৬৪
প্রতিষ্ঠাতামুসলিম এডুকেশন সোসাইটি (এমইএস)
ইআইআইএন১০৪৩০০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
অধ্যক্ষআ.ন.ম. সরওয়ার আলম
শিক্ষার্থী সংখ্যা৬৫০০
ভাষাবাংলা
ক্যাম্পাসের ধরনশহর
রঙসাদা, কালো         
অন্তর্ভুক্তিজাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় (কলেজ কোড: ৪৩০৭)
যোগাযোগ+৮৮০৩১৬১৮৬৪০
ওয়েবসাইটwww.ogmescollege.edu.bd

কলেজটির দক্ষিণে ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ এবং পূর্বে ওমরগণি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে । এটি চট্টগ্রাম শহরের প্রাণকেন্দ্র জিইসি মোড়ের দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত। কলেজটি চট্টগ্রামের ছাত্র রাজনীতির জন্যেও ব্যাপক আলোচিত।

কলেজটিতে বিজ্ঞান,ব্যবসায় শিক্ষা,মানবিক বিভাগে পড়ানো হয়। এছাড়া রয়েছে ডিগ্রি পর্যায় এবং সম্মান (অনার্স) পর্যায়ের বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ৪ বছর মেয়াদি কোর্সে পড়াশুনা করার সুযোগ। প্রতিবছর এমইএস কলেজ থেকে প্রায় দুই হাজার শিক্ষার্থী উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে থাকে। [১]

প্রতিষ্ঠার পটভূমিসম্পাদনা

ওমরগণি এম.ই.এস বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মুসলমান শিক্ষা সভা কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হয়। তৎকালীন বাংলার বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, লেখক ও সমাজকর্মী খান বাহাদুর আবদুল আজিজ (১৮৬৩-১৯২৬) ১৯০০ সালে চট্টগ্রামে মুসলিম শিক্ষা সভা গঠন করেন। মুসলমান শিক্ষা সভা কর্তৃক একে একে ভিক্টোরিয়া হল,কবিরউদ্দিন মেমোরিয়াল লাইব্রেরি ও ফ্রি ইসলামিয়া রিডিং রুম প্রতিষ্ঠা পাওয়ার পরেই ১৯৬৪ সালে খান বাহাদুর আবদুল আজিজের মৃত্যুর প্রায় ৩৮ বছর পর এমইএস কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠা লগ্নে এর প্রধান লক্ষ্য ছিল পিছিয়ে পড়া মুসলিম জনগোষ্ঠীকে সামনের কাতারে আনা।প্রতিষ্ঠালগ্নে কলেজটিতে শুধুমাত্র মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের পড়ানোর সুযোগ থাকলেও পরবর্তীতে সকল ধর্মাবলম্বী শিক্ষার্থীদের জন্য এটি উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

কলেজ ভবনসম্পাদনা

•মূল ভবন (তিনতলা বিশিষ্ট বৃহৎ এই ভবনে একই সাথে বিজ্ঞান,ব্যবসা,মানবিক,লাইব্রেরী,ল্যাব ও ডিগ্রি শাখার কিছু কার্যক্রম পরিচালিত হয়)

•আইসিটি ভবন

•অনার্স ভবন(নির্মাণাধীন)

মাঠসম্পাদনা

কলেজটিতে বিজ্ঞান,ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক ভবনের মাঝে একটি মাঠ রয়েছে। তাছাড়াও মূল কলেজের বাইরে ওমরগণি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর মাঠটিকেও কলেজের মূল মাঠ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়ে থাকে।

অনুষদ ও বিভাগসমূহসম্পাদনা

বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা,কলা ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের প্রায় ১৫ টি বিষয়ে এখানে পড়ানো হয়ে থাকে।

উচ্চমাধ্যমিকসম্পাদনা

  • বিজ্ঞান
  • ব্যবসায় শিক্ষা
  • মানবিক

স্নাতক(পাস)সম্পাদনা

  • বিএ(পাস)
  • বিএসএস(পাস)
  • বিএসসি(পাস)
  • বিবিএস(পাস)

স্নাতক(সম্মান)সম্পাদনা

বাংলা অনুষদসম্পাদনা

  • বাংলা বিভাগ
  • ইংরেজি বিভাগ
  • ইসলামিক ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ
  • ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ

বিজ্ঞান অনুষদসম্পাদনা

  • কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগ
  • গণিত বিভাগ
  • পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ
  • রসায়ন বিভাগ
  • উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগ
  • প্রাণিবিদ্যা বিভাগ

সমাজ বিজ্ঞান অনুষদসম্পাদনা

  • রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ
  • অর্থনীতি বিভাগ

ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদসম্পাদনা

  • হিসাববিজ্ঞান বিভাগ
  • ব্যবস্থাপনা বিভাগ

স্নাতকোত্তরসম্পাদনা

পাঠাগারসম্পাদনা

কলেজটিতে রয়েছে দুইটি বিশাল সুবিন্যস্ত লাইব্রেরি। কলেজের যেকোনো শিক্ষার্থী চাইলে বিনামূল্যে এখান থেকে বই নিতে পারে। তবে এর জন্য প্রত্যেককে আলাদা আলাদাভাবে লাইব্রেরি কার্ড নিতে হবে। লাইব্রেরিতে কয়েকজন লাইব্রেরিয়ান রয়েছে।

সংগঠনসম্পাদনা

রাজনৈতিকসম্পাদনা

সাংস্কৃতিকসম্পাদনা

• ওমরগণি এম ই এস কলজে সংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্র

প্রাক্তন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীসম্পাদনা

  • আ ফ ম খালিদ হোসেন
  • অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান, ইসলামের ইতিহাস ও সংসকৃত৯৯(১৯৫২-২০১৯)

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "ওমরগণি এমইএস কলেজ"। ২৩ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০২২