প্রধান মেনু খুলুন

আহমেদ ফজলুর রহমান

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বাঙ্গালি উপাচার্য
(এ. এফ. রাহমান থেকে পুনর্নির্দেশিত)

স্যার এ. এফ. রহমান (পুরোনামঃ আহমেদ ফজলুর রাহমান; ২৮ ডিসেম্বর ১৮৮৯ - ১০ ডিসেম্বর ১৯৪৫) হলেন একজন প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ, রাজনীতিবিদ, সমাজ সংস্কারক ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বাঙ্গালী উপাচার্য। তিনি ১৯৩৪ সালের ১ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসাবে নিয়োগ প্রাপ্ত হন। ১৯৭৬ সালে তার নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এ. এফ. রহমান হল প্রতিষ্ঠা করা হয়।

এ এফ রহমান
Afrahman.jpg
জন্ম২৮ ডিসেম্বর ১৮৮৯
মৃত্যু১০ ডিসেম্বর ১৯৪৫
বাসস্থানবাংলাদেশ Flag of Bangladesh.svg
পেশাইতিহাসবিদ, রাজনীতিবিদ এবং সমাজ সংস্কারক
নিয়োগকারীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
উপাধিঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

জন্ম ও শিক্ষাজীবনসম্পাদনা

স্যার এ. এফ. রহমান ২৮ ডিসেম্বর ১৮৮৯ সালে পশ্চিম বঙ্গের জলপাইগুড়ি শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার আদি পিতৃ-ভিটা ফেনী জেলায়। তার সম্পূর্ণ নাম হল আহমেদ ফজলুর রহমান এবং তার পিতা মৌলবী আব্দুর রহমান। একজন ছাত্র হিসাবে তিনি অত্যন্ত মেধাবী ছিলেন। তিনি জলপাইগুড়ি জিলা স্কুল থেকে ১৯০৮ সালে বৃত্তিসহ প্রবেশিকা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন । তিনি ১৯১২ সালে ইংল্যান্ডে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.এ(সম্মান) ইতিহাসে ডিগ্রী প্রাপ্ত হন। এর পরে লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্সে তিনি দুই বছর গবেষণা করেন। তার গবেষণার বিষয় ছিল "পলিটিক্যাল ইকোনমি"।[১]

কর্মজীবনসম্পাদনা

স্যার এ. এফ. রহমান ইংল্যান্ড থেকে বাড়ি ফিরে ১৯১৪ সালে এবং 'আলিগড় এংলো ওরিয়েন্টাল কলেজ'-এর (এখন, আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়) ইতিহাস বিভাগে লেকচারার হিসাবে যোগ দেন। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কমিশনের একজন সদস্য হিসাবে স্যার এ. এফ. রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার একটি অতীব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ভাইস চ্যান্সেলর পি. জে. হার্টগ-এর অনুরোধে স্যার এ. এফ. রহমান ইতিহাস বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক পদে যোগ দেন। পরবর্তীতে, তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুসলিম হলের প্রথম প্রভোস্ট (এখন, সলিমুল্লাহ মুসলিম হল) হিসাবে নিযুক্ত হন। স্যার এ. এফ. রহমানের দক্ষতা ও সক্ষমতায় খুশি হয়ে ব্রিটিশ সরকার ১ লা জুলাই ১৯৩৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর হিসাবে নিযুক্ত করেন। তিনি সফলতার সাথে ১৯৩৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন।[১]

পুরস্কার ও সম্মাননাসম্পাদনা

তার অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ১৯৩৭ সালে তাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনারারি ডক্টরেট ডিগ্রী প্রদান করা হয়। ১৯৪২ সালে ব্রিটিশ সরকার রাজকীয় খেতাব নাইটহুড সম্মাননা লাভ করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা