এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানি

এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানি হল ১৮৯৩ সালে ব্রিটিশ ভারতে প্রতিষ্ঠিত একাউন্টিং ফার্ম। বর্তমানে এটি পাকিস্তানের একটি একাউন্টিং ফার্ম।[১]

এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানি
ধরনএকাউন্টেন্সি নেটওয়ার্ক
শিল্পপেশাদারী সেবা
উত্তরসূরীএ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানি (পাকিস্তান)
ফার্গুসন মেইডমেন্ট এন্ড কোম্পানি (যুক্তরাজ্য)
এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানি (ভারত)
হুদা ভাসি চৌধুরি এন্ড কোম্পানি (বাংলাদেশ)
প্রতিষ্ঠাকাল১৮৯৩
প্রতিষ্ঠাতাআলেকজান্ডার ফ্লেচার ফার্গুসন
সদরদপ্তরবোম্বে, করাচি, লাহোর, ইসলামাবাদ, লন্ডন, ঢাকা, কাবুল
বাণিজ্য অঞ্চল
ব্রিটিশ ভারত (১৮৯৩-১৯৪৭)
যুক্তরাজ্য (১৯১২-বর্তমান)
পাকিস্তান (১৯৫২-বর্তমান)
ভারত (১৯৫২-২০০৪)
বাংলাদেশ (১৯৬৩-১৯৭২)
পণ্যসমূহহিসাববিজ্ঞান
কর
ব্যবসায়িক পরামর্শ

ইতিহাসসম্পাদনা

সূচনাকালসম্পাদনা

এই ফার্মের সূচনাকাল ধরা হয় ১৮৯৩ সালে। স্কটল্যান্ডের চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট আলেকজান্ডার ফ্লেচার ফার্গুসন ১৮৮৯ সালে রিচি স্টুয়ার্ট অ্যান্ড কোম্পানি (পরবর্তী নাম ফোর্বস ফোর্বস ক্যাম্পবেল অ্যান্ড কোম্পানি প্রাইভেট লিমিটেড) নামক বানিজ্য ফার্মে চাকরি করতে ব্রিটিশ ভারতের বোম্বে শহরে আসেন। ১৮৯৩ সালে তিনি সেখানে প্রথম ব্রিটিশ হিসেবে তার চার্টাড একাউন্টিং অনুশীলন শুরু করেন। তার সহকারী পি.জি ইরভিন ১৮৯৮ সালে তার ফার্মের অংশীদার হয়ে যান এবং ফার্মের নাম পরিবর্তিত হয়ে 'ফার্গুসন ও ইরভিন' হয়। ১৯০২ সালে ইরভিনের অসুস্থতার ফলে স্বাস্থ্যহানি হওয়ায় অংশীদার বিলুপ্ত হয় যার ফলে ফার্মের নাম হয় এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানি যার অংশীদার হয় সাথে ডাব্লিউ. টার্নার গ্রিন। ফার্মটি বোম্বেতে সাফল্য অর্জনের পর ২০ মার্চ ১৯০৮ খ্রিস্টাব্দ তারিখে করাচি শহরে এর কার্যালয় চালু করা হয়। ফার্মটি পারস্য উপসাগরে তাদের কার্যক্রম ১৯১০ থেকে ১৯২৪ সাল পর্যন্ত পরিচালনা করে। ১৯২৬ সালে লাহোরের কার্যালয়টি খোলা হয়।

ভারত বিভাজনের পরে ১৯৫২ সালে পাকিস্তানে অবস্থিত কার্যালয়গুলো ভারতের বোম্বে কার্যালয় হতে পৃথক হয়ে আলাদা ফার্ম হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। দুটি দেশের ফার্ম একই নামে পরবর্তীতে পরিচালিত হতে থাকে।

কেলেঙ্কারিসম্পাদনা

২০১২ সালে আফগানিস্তানের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী ওমর জাখিলওয়াল এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানির বিরুদ্ধে ৯০ কোটি ডলারের জালিয়াতির অভিযোগ করেন।[২]

উত্তরসূরী ফার্মগুলোসম্পাদনা

পাকিস্তানসম্পাদনা

 
এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানির লোগো

পাকিস্তানে অবস্থিত বর্তমান ফার্মটিকে ব্রিটিশ ভারতের এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানির প্রকৃত উত্তরসূরী বলা হয়। এই ফার্মটির ৪৪ জন অংশীদার এবং ১৭০০ জনের অধিক কর্মী রয়েছে। এটি একইসাথে পাকিস্তানের প্রাচীনতম এবং বৃহত্তম পেশাদার একাউন্টিং ফার্ম যা এখন প্রাইসওয়াটারহাউজকুপার্স এর সদস্য এবং আন্তর্জাতিকভাবে ফার্মটি এই জন্য প্রাইসওয়াটারহাউজকুপার্স পাকিস্তান নামে পরিচিত। বর্তমানে এর একটি শাখা আফগানিস্তানের কাবুলে রয়েছে।[৩]

যুক্তরাজ্যসম্পাদনা

 
ফার্গুসন মেইডমেন্ট এন্ড কোম্পানির লোগো

১৯১২ সালে আলেকজান্ডার ফ্লেচার ফার্গুসন ভারত থেকে লন্ডনে চলে আসার পর সেখানে ফার্মটির কার্যালয় স্থাপন করেন। ১৯২৫ সালে লন্ডনের কার্যালয়টির নাম হয় ফার্গুসন গিলক্রিস্ট এন্ড কোম্পানি। ১৯৫৪ সাল থেকে এই ফার্মটি ফার্গুসন, রোল্যান্ড এবং ডেভিস নামে পরিচিত ছিলো। ১৯৮১ সালে লন্ডনের ফার্মটি মেইডমেন্ট এন্ড কোম্পানির সাথে একীভূত হয়ে নাম পরিবর্তিত হয়ে হয় ফার্গুসন মেইডমেন্ট এন্ড কোম্পানি।

ভারতসম্পাদনা

ভারতের প্রাচীনমত ও ঐতিহ্যবাহী একাউন্টিং ফার্ম এ.এফ ফার্গুসন এন্ড কোম্পানি ২০০৪ সালে দালোয়েত ফার্মের সাথে যুক্ত হয়।[৪] ফার্মটির ঊর্ধ্বতন অংশীদার মুকুন্দ ধর্মাধিকারী দালোয়েত হাসকিংন্স এন্ড সেল ইন্ডিয়ার যৌথ ব্যবস্থাপনা অংশীদার হয়।

বাংলাদেশসম্পাদনা

 
হুদা ভাসি চৌধুরী এন্ড কোম্পানির লোগো

১৯৬৩ সালে পাকিস্তানের উত্তরসূরী ফার্মটি পূর্ব পাকিস্তানের ঢাকায় তাদের একটি কার্যালয় স্থাপন করে। বাংলাদেশ রাষ্ট্র গঠনের পর ফার্মটির ঢাকার কার্যালয়টি হুদা ভাসি চৌধুরী এন্ড কোম্পানি নাম নিয়ে উত্তরসূরী ফার্ম হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "A F Ferguson celebrates 125 years of business"দি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০২১ 
  2. "PwC accused over $900m Afghan bank scandal"ইন্ডিপেন্ডেন্ট (ইংরেজি ভাষায়)। ১১ মে ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০২১ 
  3. আসাদ খারাল (৮ নভেম্বর ২০১৮)। "A.F. Ferguson may face criminal charges in Maersk sales tax mega scandal"কাস্টমস টুডে (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০২১ 
  4. "Its Official: Ferguson To Merge With Deloitte"দি ফাইন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস (ইংরেজি ভাষায়)। ১৭ আগস্ট ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৯ 
  5. "21st death anniversary of late Kazi Kamrul Hoda, FCA"আইসিএবি (ইংরেজি ভাষায়)। ২৮ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০২১ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা