এবেল্লা

চতুর্দশ শতকের রোমান চিকিৎসক

এবেল্লা, স্যালার্নোর এবেল্লা বা কাস্টেলোমাতার এবেল্লা নামে পরিচিত; যিনি ছিলেন চৌদ্দ শতকের মাঝামাঝি সময়ে একজন চিকিৎসক।[১] এবেল্লা স্যালার্নো স্কুল অফ মেডিসিনে পড়াশোনা ও শিক্ষকতা করেছিলেন।[১] এবেল্লা ১৩৮০ সালের দিকে জন্মগ্রহণ করেছিলেন বলে মনে করা হয়। তবে তার জন্ম ও মৃত্যুর সঠিক সময়টি অস্পষ্ট।[২] এবেল্লা স্যালার্নোর মেডিকেল স্কুলে শুরু করেন চিকিৎসার অনুশীলন, পিত্ত এবং মহিলাদের স্বাস্থ্য এবং প্রকৃতির উপর গবেষণা ও নানা পরীক্ষা নিরীক্ষা।[১] রেবেকা গুয়ার্নার সাথে এবেল্লা ভ্রূণবিদ্যার ক্ষেত্রে কাজ করেছিলেন ও বিশেষজ্ঞও ছিলেন।[৩] তিনি দুটি গ্রন্থ প্রকাশ করেছেন: De atrabile (On Black Bile) এবং De natura seminis humani (on the Nature of the Seminal Fluid). নারী স্বাস্থ্য নিয়ে নানা কাজ, গবেষণা ও লেখা প্রকাশ করেছিলেন তিনি।[৪]

এবেল্লা
Abella
জন্ম১৩৮০ সাল (আনুমানিক)
নাগরিকত্বইতালিয়ান  ইতালি
পেশাচিকিৎসক, লেখক
পরিচিতির কারণভ্রূণবিদ্যার ক্ষেত্রে অবদান
উল্লেখযোগ্য কর্ম
De atrabile (On Black Bile) এবং De natura seminis humani (on the Nature of the Seminal Fluid).

কর্ম জীবনসম্পাদনা

স্যালার্নো স্কুল অফ মেডিসিন প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় ছিলো, যেখানে নারীদের প্রবেশের অনুমতি দেয়।[৫] এই নারীরা তাদের শিক্ষার জন্য মহত্বের পরিচয় দিতে থাকে। এই নারীরা মিলে দল তৈরি করে। যারা এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চিকিৎসা, স্বাস্থ্য ইত্যাদি বিষয়ে নানা গবেষণা ও লেখালেখি শুরু করেছিলেন। তাঁর দলের চিকিৎসকরা সাধারণ ধ্যান-ধারণা ও দৃষ্টিভঙ্গির বিরুদ্ধে কাজ করেছিলো এবং সেই সময়ে নারীদের ভূমিকাও ছিলো অনেক, এবং মধ্যযুগীয় সালর্নোর কাজ গর্ব এবং উপকারের প্রতীক হিসাবে বিবেচিত হয়।[৬]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

Castellomata পরিবার ছিল স্যালার্নো অঞ্চলের অত্যন্ত প্রভাবশালী পরিবার।[৭] পরিবারের অনুপ্রেরণায় papal court এবং সেলার্নো স্কুল অফ মেডিসিন পড়তে সহায়তা করেছিল।[৮] এই পরিবারের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন ক্যাস্তেলোমাটার জিয়োভান্নি, যিনি পোপ ইনোসেন্ট তৃতীয়ের কাছে মেডিসাস প্যাপি বা "পোপের ডাক্তার" উপাধি অর্জন করেছিলেন।[৯] যদিও এবেল্লা ও ক্যাস্তেলোমাটার জিয়োভান্নি মধ্যে সম্পর্ক অস্পষ্ট।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Ogilvie, Marilyn Bailey; Harvey, Joy Dorothy (জুলাই ২০০০)। The Biographical Dictionary of Women in Science: Pioneering Lives From Ancient Times to the Mid-20th Century । Taylor & Francis US। পৃষ্ঠা 4আইএসবিএন 978-0-415-92038-4 
  2. Proffitt, Pamela (১৯৯৯)। Notable Women Scientists । Detroit: Gale Group। পৃষ্ঠা 1আইএসবিএন 978-0787639006 
  3. Herbermann, Charles George (১৯১২)। The Catholic Encyclopedia: An International Work of Reference on the Constitution, Doctrine, Discipline, and History of the Catholic Church। New York: Robert Appleton Company। আইএসবিএন 9780243487400 
  4. Green, Monica (১৯৮৯)। "Women's Medical Practice and Health Care in Medieval Europe"Signs14 (2): 434–473। আইএসএসএন 0097-9740জেস্টোর 3174557ডিওআই:10.1086/494516পিএমআইডি 11618104 
  5. Oakes, Elizabeth H (২০০৭)। Encyclopedia of World Scientists। New York: Infobase Publishing। আইএসবিএন 978-0-8160-6158-7 
  6. "Brooklyn Museum: Abella of Salerno"brooklynmuseum.org 
  7. Paravicini-Bagliani, Agostino. (২০০০)। The Pope's Body। Chicago: University of Chicago Press। আইএসবিএন 978-0226034379ওসিএলসি 41592982 
  8. Paravicini Bagliani, Agostino. The Pope's body. Peterson, David Spencer, 1951-, Translation of (work): Paravicini Bagliani, Agostino. Chicago. আইএসবিএন ৯৭৮-০-২২৬-০৩৪৩৭-৯ p. 186
  9. Williams, Steven James (২০০৩)। The Secret of Secrets: The Scholarly Career of a Pseudo-Aristotelian Text in the Latin Middle Ages (ইংরেজি ভাষায়)। University of Michigan Press। আইএসবিএন 9780472113088