প্রধান মেনু খুলুন

এক খন্ড জমি ২০০৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশী বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন শাহজাহান চৌধুরী। কবি শাহাবুদ্দীন নাগরীর কবিতা এক খন্ড জমি অবলম্বনে ছায়াছবিটির চিত্রনাট্য, সংলাপ, সঙ্গীত পরিচালনা ও গানে কণ্ঠ দিয়েছেন কবি নিজেই।[১] মধ্যবিত্ত এক দম্পতির কষ্টের চিত্র বর্ণিত হয়েছে কবিতাটিতে। ছায়াছবিটিতে দম্পতি চরিত্রে অভিনয় করেছেন চম্পারাইসুল ইসলাম আসাদ[২] এছাড়াও অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেন আনোয়ার হোসেন, সিরাজ হায়দার, রাশেদা চৌধুরী প্রমুখ।[১]

এক খন্ড জমি
পরিচালকশাহজাহান চৌধুরী
প্রযোজকশাহজাহান চৌধুরী (নির্বাহী)
চিত্রনাট্যকারশাহাবুদ্দীন নাগরী
কাহিনীকারশাহাবুদ্দীন নাগরী
শ্রেষ্ঠাংশেরাইসুল ইসলাম আসাদ
চম্পা
রোকেয়া চৌধুরী কেয়া
সুরকারশাহাবুদ্দীন নাগরী
চিত্রগ্রাহকমাহফুজুর রহমান খান
সম্পাদকআতিকুর রহমান মল্লিক
পরিবেশকইমপ্রেস টেলিফিল্ম
শান পিকচারস
মুক্তি২০০৪
দৈর্ঘ্য৯৬ মিনিট
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা ভাষা

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

আমিনুল হক ও লতিফা দম্পতি তাদের দুই সন্তান নিয়ে ঢাকায় বসবাস করে। আমিনুল হক একজন সৎ সরকারি কর্মকর্তা। মধ্যবিত্ত পরিবারের এই দম্পতির অনেক দিনের শখ ঢাকায় এক খন্ড জমি কিনবে। আমিনুল হক নিয়মিত খবরের কাগজে চোখ রাখে কোথাও অল্প দামে জমি কিনতে পাওয়া যাবে কিনা তা দেখতে। জমির দালাল রমজানের মাধ্যমে সে একটা জমির খোঁজ পায়। কিন্তু টাকার অভাবে বায়না করতে পারে না। বর্ষায় জমি দেখতে গিয়ে সে টের পায় আসলে সে জমি মেঘনার একটি অংশ। একদিন সে জ্বর নিয়ে বাড়ি ফেরে। এরই মধ্যে তার ছেলে সোহেল এক পথচারীর ব্যাগ ছিনতাই করতে গিয়ে পুলিশের নজরে চলে আসে। সোহেল আর তার সঙ্গীর নামে পুলিশি ওয়ারেন্ট জারি হয়। এ খবর আমিনুল সহজভাবে নিতে পারে না। অবশেষে জমি আমিনুলের হয় কিন্তু তার বসবাসের জন্য নয়, তার শেষকৃত্যের জন্য। সাড়ে তিন হাত জমি।

শ্রেষ্ঠাংশেসম্পাদনা

নেপথ্য নির্মাণসম্পাদনা

২০০৩ সালে একুশে গ্রন্থ মেলায় অন্যপ্রকাশ কবি শাহাবুদ্দীন নাগরীর কবিতা সংকলন আগুনের ফুল ফুটে ঠোঁটে বের করে। বইটিতে ১৪০ লাইনের একটি কবিতা এক খন্ড জমি অবলম্বনে পরিচালক শাহজাহান চৌধুরী একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে চান। এতে কবি আর দ্বিমত করেন নি। এটি কবিতা অবলম্বনে নির্মিত প্রথম বাংলা পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। কবিতা অবলম্বনে এর আগে তানভীর মোকাম্মেল হুলিয়া নামে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন।[১]

মুক্তিসম্পাদনা

২০০৪ সালের ৮ জুলাই চ্যানেল আই-এ চলচ্চিত্রটির টেলিভিশন প্রিমিয়ার হয়। ২০০৪ সালের ৯ জুলাই থেকে চলচ্চিত্রটি বলাকা সিনেওয়ার্ল্ড-এ প্রদর্শন শুরু হয়।[১]

সঙ্গীতসম্পাদনা

এক খন্ড জমি চলচ্চিত্রের সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন কবি শাহাবুদ্দীন নাগরী ও আবহ সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন শেখ সাদী খান। গানের কথা লিখেছেন কবি শাহাবুদ্দীন নাগরী[১] গানে কণ্ঠ দিয়েছেন শাহাবুদ্দীন নাগরী নিজেই ও শাকিলা জাফর। গানের অডিও, ভিডিও ও ক্যাসেট বের হয় সাউন্ডটেক-এর ব্যানারে।

গানের তালিকাসম্পাদনা

নং গানের শিরোনাম কণ্ঠশিল্পী পর্দায় শিল্পী
আমরা বর্তমানে ব্যস্ত সবাই শাহাবুদ্দীন নাগরী রাইসুল ইসলাম আসাদ
জীবন হইলো রঙিন ঘুড়ি শাহাবুদ্দীন নাগরী আনোয়ার হোসেন
আশা ছিল ছোট্ট একটা জমি হবে শাহাবুদ্দীন নাগরী রাইসুল ইসলাম আসাদ
তুমি পদ্ম পাতার জল শাহাবুদ্দীন নাগরীশাকিলা জাফর রাইসুল ইসলাম আসাদচম্পা
আশা ছিল ছোট্ট একটা জমি হবে (স্যাড) শাহাবুদ্দীন নাগরী রাইসুল ইসলাম আসাদ

পুরস্কারসম্পাদনা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ ম্যাকআপ ম্যান - ম.ম. জসীম[৩][৪]

আন্তর্জাতিক সম্মাননাসম্পাদনা

ছায়াছবিটি ২০০৮ সালে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-এ প্রদর্শিত হয়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Poetry that inspires - World première of Ek Khondo Jomi on Channel-i"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ৮ জুলাই ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৬ 
  2. "গুলশান আরা আখতার (চম্পা)"যশোর ইনফো। ১ জানুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৬ 
  3. "National Film Awards for the last fours years announced [চার বছরের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘোষণা]"দ্য ডেইলি স্টার। ১ সেপ্টেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৬ 
  4. "চার বছরের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘোষণা"নবদেশ। ২৬ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা