প্রধান মেনু খুলুন

এক কাপ চা

বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র

এক কাপ চা ২০১৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশী বাংলা ভাষার নাট্য চলচ্চিত্র। ছায়াছবিটি পরিচালনা করেছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল। কাহিনী, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন কলকাতার প্রখ্যাত চিত্রপরিচালক বাসু চ্যাটার্জি[১] নুজহাত ফিল্মসের ব্যানারে ছায়াছবিটি প্রযোজনা করেছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ। এটি তার প্রযোজিত প্রথম চলচ্চিত্র। একজন কলেজ শিক্ষক ও কলেজের লাইব্রেরিয়ানের মধ্যকার প্রেমের গল্প এক কাপ চা। এতে প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন ফেরদৌস আহমেদমৌসুমী[২] এছাড়া একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন কলকাতার ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত[৩] ডাক্তার চরিত্রে একটি বিশেষ ভূমিকায় ছিলেন হুমায়ুন ফরীদি। এটি তার অভিনীত শেষ চলচ্চিত্র। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত অভিনেতা আলমগীর ও তার মেয়ে আঁখি আলমগীর ভাত দে-এ অভিনয় করার দীর্ঘ ৩০ বছর পর আবার একই ছায়াছবিতে অভিনয় করেন। চলচ্চিত্রটি জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ, অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদিঅমল বোস-এর স্মৃতিতে উৎসর্গ করা হয়। এই চলচ্চিত্রে অভিনয় করে ফেরদৌস আহমেদ ৩৯ তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার অর্জন করেন।[৪] এছাড়া মৌসুমী ১৭তম মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার-এ শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী হিসেবে সমালোচক পুরস্কার লাভ করেন এবং তারকা জরিপ শাখায় মনোনীত হন।[৫][৬]

এক কাপ চা
এক কাপ চা.jpg
এক কাপ চা চলচ্চিত্রের পোস্টার
পরিচালকনঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল
প্রযোজকফেরদৌস আহমেদ
শোয়েব আহমেদ (নির্বাহী প্রযোজক)
চিত্রনাট্যকারবাসু চ্যাটার্জি
কাহিনীকারবাসু চ্যাটার্জি
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারইমন সাহা
চিত্রগ্রাহকমাহফুজুর রহমান খান
সম্পাদকঅসিত বোস
তৌহিদ হোসেন চৌধুরী
পরিবেশকনুজহাত ফিল্মস
মুক্তি২৮ নভেম্বর, ২০১৪
দৈর্ঘ্য১৪৮ মিনিট
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা ভাষা

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

কলেজ শিক্ষক শফিক পছন্দ করে লাইব্রেরিয়ান দীপাকে। স্বপ্ন দেখে দীপাকে ধুমধাম করে বিয়ে করছে। কিন্তু কিছুতেই সে দীপাকে তার মনের কথা বলতে পারে না। সে প্রতিদিনই দীপার টেবিলে ফুল রেখে আসে। কিন্তু দীপা তা না জানায় ডাস্টবিনে ফেলে দেয়। বই নেওয়ার মিথ্যা ছুতায় সে লাইব্রেরিতে দীপাকে দেখতে আসে এবং তাকে তার ভালোবাসার কথা বলতে চায়। কিন্তু বিভিন্ন কারনে তা হয়ে ওঠে না। একদিন সে সাহস নিয়ে দীপাকে বলতে আসে। কিন্তু এবারও ব্যর্থ হয়। তবে নিমন্ত্রণ পায় তার বাড়িতে "এক কাপ চা" পান করার। নির্দিষ্ট দিনে ফুল হাতে নিয়ে সে পৌঁছায় দীপার বাসায়। কিন্তু দীপা যে বাসায় পেয়িং গেস্ট হিসেবে থাকে সে বাসার বাড়িওয়ালা মিঃ গোমেজের ছেলে গুরুতর অসুস্থ থাকায় তার চা পান করা হয় না। বরং দীপা তাকে গোমেজের ছেলেকে বাঁচানোর জন্য প্রয়োজনীয় ইঞ্জেকশন আনতে পাঠায়। সেই ইঞ্জেকশন আনতে গিয়ে শফিক সম্মুখীন হয় বিভিন্ন সমস্যার।

কুশীলবসম্পাদনা

নির্মাণ নেপথ্যসম্পাদনা

শ্যুটিংসম্পাদনা

এক কাপ চা ছায়াছবির মহরত অনুষ্ঠিত হয় রাজউক কলেজে। মহরত উদ্বোধন করেন অভিনেতা আফজাল হোসেনহুমায়ুন ফরীদি। ২০১০ সালে ১৫ অক্টোবর ছায়াছবিটির শ্যুটিং শুরু হয়। প্রায় দেড় বছর সময় নিয়ে ২০১২ সালের ৩ জুন ছায়াছবিটির শ্যুটিং শেষ হয়।[৭]

মুদ্রণ ও পরিস্ফুটনসম্পাদনা

২০১২ সালের ১৫ জুন প্রযোজক ফেরদৌস আহমেদ ও পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল ভারতের চেন্নাইয়ে যান ছায়াছবিটির শব্দ সংযোজন, মুদ্রণ ও পরিস্ফুটনের জন্য। প্রযোজক ফেরদৌস আহমেদ তার প্রথম চলচ্চিত্রে পরিস্কার চিত্রায়ন আনার জন্য যথাসম্ভব কাজ করেন। কিন্তু ডাবিং ও আনুষঙ্গিক কিছু কাজ শেষ করতে আরও দুই বছর সময় লেগে যায়। অবশেষে ২০১৪ সালের ১১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড থেকে বিনা কর্তনে ছাড়পত্র লাভ করে।[৮]

মুক্তিসম্পাদনা

এক কাপ চা ছায়াছবিটি বাংলাদেশে মুক্তি পায় ২০১৪ সালের ২৮ নভেম্বর।[৯]

সঙ্গীতসম্পাদনা

এক কাপ চা ছায়াছবিটির সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন নচিকেতা চক্রবর্তী, আইয়ুব বাচ্চুফুয়াদ আল মুক্তাদির। আবহ সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন ইমন সাহা। গীত রচনা করেছেন বাংলাদেশের কবির বকুল, মারজুক রাসেলজাহিদ আকবর এবং কলকাতার নচিকেতা চক্রবর্তীপ্রিয় চট্টোপাধ্যায়। এছাড়া "লিলুয়া বাতাস" গানটি লিখেছেন হুমায়ূন আহমেদ। মৃত্যুর আগে এটি তার লেখা শেষ গান। গানে কণ্ঠ দিয়েছেন এন্ড্রু কিশোর, রুনা লায়লা, নচিকেতা চক্রবর্তী, আইয়ুব বাচ্চু, কুমার বিশ্বজিৎআঁখি আলমগীর। গানের অ্যালবামের মোড়ক ডিজাইন করেন আফজাল হোসেন

গানের তালিকাসম্পাদনা

নং.শিরোনামগীতিকারসুরকারকণ্ঠশিল্পীদৈর্ঘ্য
১."লিলুয়া বাতাস"হুমায়ূন আহমেদআইয়ুব বাচ্চুকুমার বিশ্বজিৎ, আঁখি আলমগীর, এন্ড্রু কিশোর, ও রুনা লায়লা৫:১৬
২."এক কাপ চা"নচিকেতা চক্রবর্তীনচিকেতা চক্রবর্তীনচিকেতা চক্রবর্তী৫:১৯
৩."বাপরে বাপ"প্রিয় চট্টোপাধ্যায়ফুয়াদ আল মুক্তাদিররুনা লায়লা৪:২৫
৪."স্বপ্ন দেখি"কবির বকুলফুয়াদ আল মুক্তাদিররুনা লায়লাহৃদয় খান৫:৩৪

পুরস্কারসম্পাদনা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার

  • বিজয়ী: - শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী (সমালোচক) - মৌসুমী
  • মনোনীত: - শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী (তারকা জরিপ) - মৌসুমী

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. নূপুর বন্দোপাধ্যায় (২৭ নভেম্বর ২০১৪)। "ঘরে ঘরে এক কাপ চা..."দ্য রিপোর্ট। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  2. "ঈদের পর ফেরদৌস-মৌসুমীর এক কাপ চা"দ্য রিপোর্ট। সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  3. সুদীপ কুমার দীপ (২৭ নভেম্বর ২০১৪)। "দুই বন্ধুকে নিয়ে ফেরদৌসের এক কাপ চা"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  4. নিজস্ব প্রতিবেদক (১১ মে ২০১৬)। "জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার - সেরা সম্মাননা ফেরদৌস মৌসুমী মিমের"বাংলাদেশ প্রতিদিন। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  5. "Meril Prothom Alo Awards Gala Night"দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা, বাংলাদেশ। মে ৯, ২০১৫। ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  6. "মেরিল–প্রথম আলো তারকা জরিপ পুরস্কার ২০১৪"দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা, বাংলাদেশ। এপ্রিল ৩০, ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  7. "ঈদে ফেরদৌসের 'এক কাপ চা'"দৈনিক যায় যায় দিন। ঢাকা, বাংলাদেশ। জুন ৬, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  8. অনলাইন প্রতিবেদক (অক্টোবর ১৪, ২০১৪)। "নভেম্বরে 'এক কাপ চা'"দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  9. স্টাফ রিপোর্টার (২৫ নভেম্বর ২০১৪)। "'এক কাপ চা' চলচ্চিত্র নিয়ে ফেরদৌস"দৈনিক জনকণ্ঠ। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা