এইডান গিলেন

আইরিশ অভিনেতা

এইডান গিলেন (ইংরেজি: Aidan Gillen (/ˈɡɪlɛn/); জন্ম এইডান মার্ফি; ২৪ এপ্রিল ১৯৬৮) হলেন একজন আইরিশ অভিনেতা। তিনি এইচবিওর গেম অব থ্রোনস (২০১১-২০১৭) ধারাবাহিকে পিটার "লিটলফিঙ্গার" বেলিশ চরিত্রে, দ্য ওয়্যার (২০০৪-২০০৮) ধারাবাহিকে টমি কারসেত্তি, চ্যানেল ৪ এর কুইয়ার অ্যাজ ফোক (১৯৯৯-২০০০) ধারাবাহিকে স্টুয়ার্ট অ্যালান জোন্স, আরটিই টেলিভিশনের লাভ/হেট (২০১০-২০১১) ধারাবাহিকে জন বয় এবং দ্য ডার্ক নাইট রাইজেস (২০১২) চলচ্চিত্র সিআইএ অপারেটিভ বিল উইলসন চরিত্রে কাজের জন্য প্রসিদ্ধ। তিনি আদার ভয়েসেস অনুষ্ঠানের দশক থেকে ত্রয়োদশ মৌসুমের উপস্থাপনা করেন।

এইডান গিলেন
Aidan Gillen
Aidan Gillen Official.jpg
জন্ম
এইডান মার্ফি

(1968-04-24) ২৪ এপ্রিল ১৯৬৮ (বয়স ৫২)
ড্রামকন্ড্রা, ডাবলিন, আয়ারল্যান্ড
পেশাঅভিনেতা
কার্যকাল১৯৮৫–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীঅলিভিয়া ওফ্ল্যানাগ্যান (২০০১ (বি. ২০১৪))
সন্তান

গিলেন ২০০৯ সালে দ্য ওয়্যার, ২০১২ সালে লাভ/হেট ও ২০১৫ সালে চার্লি ধারাবাহিকের জন্য তিনবার শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে আইরিশ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন পুরস্কার অর্জন করেন।[১] এছাড়া তিনি একবার করে ব্রিটিশ একাডেমি টেলিভিশন পুরস্কার, ব্রিটিশ ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফিল্ম পুরস্কারটনি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[২]

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

গিলেন ১৯৬৮ সালের ২৪ এপ্রিল ডাবলিনের ড্রামকন্ড্রা শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার জন্মনাম এইডান মার্ফি। তিনি গ্লাসনেভিনের সেন্ট ভিনসেন্ট্‌স সিবিএসে পড়াশুনা করেন। তার অভিনয়ের যাত্রা শুরু হয় কিশোর অবস্থায় ডাবলিন ইয়ুথ থিয়েটারে আ মিডসামার নাইট্‌স ড্রিম মঞ্চনাটকে নিক বটম চরিত্রে অভিনয় দিয়ে। পরে তিনি ডাবলিন ছেড়ে লন্ডন চলে যান।[৩]

কর্মজীবনসম্পাদনা

গিলেন ১৯৯৯ থেকে ২০০০ সালে চ্যানেল ৪-এর টেলিভিশন ধারাবাহিক কুইয়ার অ্যাজ ফোক-এ স্টুয়ার্ট অ্যালান জোন্স চরিত্রে অভিনয় করেন। এই ধারাবাহিকে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে ব্রিটিশ একাডেমি টেলিভিশন পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। ২০০৩ সালে তিনি হ্যারল্ড পিটারের দ্য কেয়ারটেকার মঞ্চনাটকে মাইক চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিত হন এবং টনি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৪] দ্য কেয়ারটেকার-এর মাধ্যমে পরিচিতি লাভ করার পর তাকে এইচবিওর দ্য ওয়্যার ধারাবাহিকের জন্য নির্বাচন করা হয়। ২০০৪ সালে থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত তিনি এই ধারাবাহিকের টমি কারসেত্তি চরিত্রে অভিনয় করেন। এই চরিত্রের জন্য তিনি ২০০৯ সালে শ্রেষ্ঠ টেলিভিশন অভিনেতার জন্য আইরিশ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন পুরস্কার লাভ করেন।

২০০৭ সালে তিনি ডেভিড ম্যামেটের আমেরিকান বাফেলো মঞ্চনাটকে টিচ চরিত্রে অভিনয় করেন। ডাবলিনের গেট থিয়েটারের এই মঞ্চনাটকে অভিনয়ের জন্য তিনি আইরিশ টাইমস থিয়েটার পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৫] ২০০৮ সালে সানডে ট্রিবিউন গিলেনকে "আইরিশ কাল্ট হিরো" উপাধি প্রদান করে। ২০০৯ সালে তিনি ১২ রাউন্ডস ছবিতে এবং একই বছরের জুলাই মাসে বিবিসি ২-এর ফ্রিফল টেলিভিশন চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। পরের বছর তিনি ব্রিটিশ নাট্য ধারাবাহিক থ্রোন-এ ফিল হেন্ড্রিক চরিত্রে অভিনয় করেন। ২০১০ থেকে ২০১১ সালে তিনি লাভ/হেট ধারাবাহিকে মাফিয়া বস জনি পাওয়ার চরিত্রে অভিনয় করেন।[৬] ধারাবাহিকটি সমাদৃত হয় এবং তিনি তার তৃতীয় আইরিশ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন এবং দ্বিতীয় বার এই পুরস্কার জয় করেন।

২০১১ সাল থেকে গিলেন এইচবিওর মহাকাব্যিক কল্পনাধর্মী গেম অব থ্রোনস ধারাবাহিকে পিটার "লিটলফিঙ্গার" বেলিশ চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন। এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি তার দ্বিতীয় আইরিশ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৭] তিনি এই ধারাবাহিকের সাতটি মৌসুমেই অভিনয় করেন,[৮] এবং সপ্তম মৌসুমের চূড়ান্ত পর্ব দ্য ড্রাগন অ্যান্ড দ্য উলফ-এ তার মৃত্যুর মধ্য দিয়ে তার চরিত্রের অংশ শেষ হয়।[৯] ২০১১ সালে তিনি ব্রিটিশ অপরাধধর্মী থ্রিলার চলচ্চিত্র ব্লিটজ-এ ব্যারি ওয়েজ এবং ব্রিটিশ ভৌতিক চলচ্চিত্র ওয়েক উড-এ প্যাট্রিক ডেলি চরিতে অভিনয় করেন।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

গিলেন ২০০১ সালে অলিভিয়া ওফ্ল্যানাগ্যানকে বিয়ে করেন। তাদের দুটি সন্তান রয়েছে।[১০] ২০০৯ সালে গিলেন দ্য ওয়্যার ধারাবাহিকের জন্য আইরিশ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন পুরস্কার লাভ করলে তিনি তা তার স্ত্রী ও সন্তানদের উৎসর্গ করে বলেন "তারা তার জন্য বড় অনুপ্রেরণা"।[১১] ২০১৪ সালে গিলেন ও ওফ্ল্যানাগ্যানের বিচ্ছেদ হয়। গিলেনের বর্তমান সঙ্গী গায়িকা ক্যামিল ওসুলিভান[১২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "IFTA winners 2012 announced" (ইংরেজি ভাষায়)। RTÉ। ২৯ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  2. Harris, David (২ ফেব্রুয়ারি ২০১৬)। "Current (Aidan Gillen) and future (Richard E. Grant) Game of Thrones Actors discuss their careers"Winter is Coming (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  3. Mark Lawson (২ অক্টোবর ২০০৭)। "'I don't mind nasty roles'"দ্য গার্ডিয়ান (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  4. "Aidan Gillen Tony Award" (ইংরেজি ভাষায়)। Broadwayworld। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  5. "Theatre Awards Shortlist Announced" (ইংরেজি ভাষায়)। RTÉ। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  6. "Third series of Love/Hate in development" (ইংরেজি ভাষায়)। RTÉ। ২৫ মে ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  7. "Aidan Gillen – Nominated for TWO IFTA awards" (ইংরেজি ভাষায়)। Live Journal। ৩ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  8. Dresdale, Andrea (১২ এপ্রিল ২০১৫)। "'Game of Thrones' Premiere: What to Expect from Season 5"এবিসি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। Go.com। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  9. MacDonald, Lindsay (২৭ আগস্ট ২০১৭)। "The Game of Thrones Finale Featured a Major Reveal and a Long-Awaited Death" (ইংরেজি ভাষায়)। TV Guide। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  10. "Hot off the Wire" (ইংরেজি ভাষায়)। হেরাল্ড। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  11. "Winners of the 6th Annual Irish Film and Television Awards" (ইংরেজি ভাষায়)। Irish Film and Television Academy। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  12. Greenstreet, Rosanna (৬ মে ২০১৭)। "Aidan Gillen: 'My best kiss? Up against a caravan in County Sligo as a teenager'" (ইংরেজি ভাষায়)। দ্য গার্ডিয়ান। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা