ঋতাভরী চক্রবর্তী

ভারতীয় অভিনেত্রী

ঋতাভরী চক্রবর্তী (জন্ম: জুন ২৬, ১৯৯২) একজন ভারতীয় বাঙালি চলচ্চিত্র নির্মাতা এবং অভিনেত্রী।[১]

ঋতাভরী চক্রবর্তী
জন্ম (1992-06-26) ২৬ জুন ১৯৯২ (বয়স ৩০)
জাতীয়তাভারতীয়
অন্যান্য নামপলিন
শিক্ষাযাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়, কলকাতা
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন২০০৯ - বর্তমান
পিতা-মাতাউৎপলেন্দু চক্রবর্তী (বাবা)
শতরূপা সান্যাল (মা)

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

তিনি যখন হাইস্কুলে ছিলেন তখন তার মডেলিং ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। দশম বোর্ড পরীক্ষার পর তিনি স্টার জলসার জনপ্রিয় ভারতীয় বাংলা ধারাবাহিক ওগো বধু সুন্দরীর মূল চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে টেলিভিশনে প্রথম উপস্থিত হন। উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হয়েও তিনি ব্যাক টু ব্যাক প্রকল্পে কাজ করেছিলেন। তিনি ইতিহাস ও বাংলা ভাষায় দ্বাদশ বোর্ড পরীক্ষায় সর্বভারতীয় তালিকায় শীর্ষে স্থান পান।[২] হাই স্কুল শেষ করার পরে তিনি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসে ভর্তি হন।[৩] তার মায়ের দিদা ছিলেন ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার আচার্য্য জমিদার পরিবারের বংশধর।[৪]

অভিনয় জীবন ও অন্যান্যসম্পাদনা

তিনি জনপ্রিয় ভারতীয় বাঙালি টেলিভিশন ধারাবাহিক "ওগো বধূ সুন্দরী"-এর নায়িকা হিসাবে টেলিভিশনে তার প্রথম আত্মপ্রকাশ[৫]। ২০১১ সালে, তিনি 'তোমার সঙ্গে প্রাণের খেলা' তে তার বড় পর্দার যাত্রা শুরু হওয়ার কথা ছিল কিন্তু চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায়নি।

ঋতাভরী তার মা চলচ্চিত্র নির্মাতা শতরূপা সান্যালএর সাথে "এসসিইউডি" নামে একটি চলচ্চিত্র নির্মাতা কোম্পানি চালান, তাদের নির্মমিত চলচ্চিত্র 'নেকেড' এবং 'অনু' জাতীয় চলচ্চিত্রের পুরস্কার পেয়েছে।

২০১৮ সালে, মুক্তি পাওয়া প্রসিত রায়ের ‘পরী’ ছবিতে তিনি কাজ করছেন। এই ছবিতে তার সঙ্গে বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা, পরমব্রত ও রজত কাপুর ছিলেন। বর্তমানে তিনি চলচ্চিত্র ও বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। বিজ্ঞাপনের জগতে তার নাম হয়েছে এই মুহূর্ততে তিনি চন্দ্রানী পার্লস, রূপায়ণ জুয়েলার্স, শাহনাজ, রাজলক্ষ্মী জুয়েলার্স, বাজার কলকাতা, ড। পল এর স্কিন ক্লিনিক, নকোডা হ্যালমার্কিং, এএমআরআই ডেন্টাল ক্লিনিক, সানরাইজ মসলা, সিদ্ধা, পিসিও ক্লাব, পরিধান, অরুম জুয়েলার্স, এনকর ইলেকট্রনিক্স, রিমি নায়েক ইন্ডিয়া, রেশম শিল্পী, মানিনী, অনন্যা ইত্যাদিতে কাজ করছেন।

তিনি সম্প্রতি কাজ করেছেন শ্রীমতী ভয়ঙ্করী, শেষ থেকে শুরু ও ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি চলচ্চিত্রে।

চলচ্চিত্রের তালিকাসম্পাদনা

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা ভাষা পরিচালক
২০১২ তবুও বসন্ত বাংলা দেবজিত ঘোষ
২০১৪ চতুষ্কোণ নন্দিতা বাংলা সৃজিত মুখোপাধ্যায়
২০১৪ ওয়ান্স আপন এ টাইম ইন কলকাতা শ্রীলেখা বাংলা শতরূপা সান্যাল
২০১৫ বাওয়াল কাজল বাংলা বিশ্বরূপ বিশ্বাস
২০১৫ অন্য অপলা বাংলা শতরূপা সান্যাল
২০১৫ বারুদ বাংলা সমিক হালদার
২০১৬ কলকাতায় কলম্বাস শাকিরা বাংলা সৌরভ পালোধি
২০১৭ নেকেড (সংক্ষিপ্ত চলচ্চিত্র) হিন্দি রাকেশ রঞ্জন কুমার
২০১৮ পরী পিয়ালী হিন্দি প্রসিত রায়
২০১৮ পেইন্টিং লাইফ মালয়ালম/ইংরেজী ডাক্তার বিজু
২০১৮ ফুল ফর লাভ হিন্দি শতরূপা সান্যাল
২০১৮ শ্রীমতী ভয়ংকরী বাংলা রবিউল আলম রবি হইচই
২০১৯ শেষ থেকে শুরু ফারজানা বাংলা রাজ চক্রবর্তী
২০১৯ ব্রোকেন ফ্রেম[৬] হিন্দি রাম কমল মুখোপাধ্যায়
২০২০ ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি শাবরী বাংলা অরিত্র মুখোপাধ্যায়
২০২০ টিকি টাকা বনলতা বাংলা/হিন্দি পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়
২০২১ এফআইআর নং ৩৩৯/০৭/০৬ ডাক্তার ইশা চক্রবর্তী বাংলা জয়দীপ মুখোপাধ্যায়
২০২৩ ফাটাফাটি বাংলা অরিত্র মুখোপাধ্যায়

টেলিভিশন ধারাবাহিকসম্পাদনা

বছর ধারাবাহিক চরিত্র
২০০৯ - ২০১০ ওগো বধূ সুন্দরী ললিতা
২০১৪ চোখের তারা তুই সোহাগ / তুতুল

পুরস্কারসম্পাদনা

বছর পুরস্কার বিজয়ী
২০১০ স্টার জলসা এন্টারটেইনমেন্ট অ্যাওয়ার্ডস সেরা অভিনেত্রী
২০১০ প্রতিদিন টেলি সম্মান সেরা মহিলা আত্মপ্রকাশকারী
২০১৪ উত্তম কুমার কলা রত্ন পুরস্কার সেরা অভিনেত্রী

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "এ বার ছবি প্রযোজনায় ঋতাভরী"আনন্দবাজার পত্রিকা। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০২১ 
  2. "Actress by accident"টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া। ৬ ডিসেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০২১ 
  3. "প্রেমে পড়েন, প্রেমেই বাঁচেন, কিন্তু কারও সঙ্গে জড়িয়ে পড়তে ঘোর আপত্তি ঋতাভরীর"আনন্দবাজার পত্রিকা। ৬ জানুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০২১ 
  4. "রাজবাড়িতে মালাবদল করে, লস এঞ্জেলসে আইবুড়ো ভাত খেয়ে বিয়ে হবে চিত্রাঙ্গদার"anandabazar.com। আনন্দবাজার। ৩০ জানুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০২১‘আমার মায়ের দিদা ছিলেন বাংলাদেশের মুক্তাগাছার রাজকন্যা। জমিদারি বংশের কিছু তো প্রভাব পড়বেই। 
  5. অভিনয় থেকে সমাজসেবা, সবেতেই একধাপ এগিয়ে 'বং ক্রাশ' ঋতাভরী। পরিদর্শক | Bengali News । ১ জুন ২০২১| সংগ্রহের তারিখ ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২২|
  6. "Ritabhari roped in for Ram Kamal's next Broken Frame"The Times of India 

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা