উলসান হুন্দাই ফুটবল ক্লাব

উলসান হুন্দাই ফুটবল ক্লাব (কোরীয়: 울산 현대 축구단, ইংরেজি: Ulsan Hyundai FC; সাধারণত উলসান হুন্দাই এফসি এবং সংক্ষেপে উলসান হুন্দাই নামে পরিচিত) হচ্ছে উলসান ভিত্তিক একটি দক্ষিণ কোরীয় পেশাদার ফুটবল ক্লাব। এই ক্লাবটি বর্তমানে দক্ষিণ কোরিয়ার শীর্ষ স্তরের ফুটবল লিগ কে লিগ ১-এ প্রতিযোগিতা করে। এই ক্লাবটি ১৯৮৩ সালে হুন্দাই হরাং-ই নামে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ৪৪,১০২ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট উলসান মুনসু ফুটবল স্টেডিয়ামে টাইগার্স নামে পরিচিত ক্লাবটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে।[২] বর্তমানে এই ক্লাবের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন দক্ষিণ কোরীয় সাবেক ফুটবল খেলোয়াড় হং মিয়ং-বো এবং সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন ছং মং-জুন[৩] বর্তমানে দক্ষিণ কোরীয় রক্ষণভাগের খেলোয়াড় জং সুং-হিয়ান এই ক্লাবের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।[৪][৫] উলসান হুন্দাই হচ্ছে কে লিগ ১-এর বর্তমান চ্যাম্পিয়ন, যারা ২০২২ মৌসুমে ক্লাবের ইতিহাসে ৩য় বারের মতো শিরোপা জয়লাভ করেছিল।

উলসান হুন্দাই
পূর্ণ নামউলসান হুন্দাই ফুটবল ক্লাব
ডাকনামটাইগার্স
প্রতিষ্ঠিত১৯৮৩; ৪১ বছর আগে (1983)
হুন্দাই হরাং-ই হিসেবে
মাঠউলসান মুনসু ফুটবল স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা৪৪,১০২[১]
সভাপতিদক্ষিণ কোরিয়া ছং মং-জুন
ম্যানেজারদক্ষিণ কোরিয়া হং মিয়ং-বো
লিগকে লিগ ১
২০২২১ম (চ্যাম্পিয়ন)
ওয়েবসাইটক্লাব ওয়েবসাইট
বর্তমান মৌসুম

ঘরোয়া ফুটবলে, উলসান হুন্দাই এপর্যন্ত ১০টি শিরোপা জয়লাভ করেছে; যার মধ্যে তিনটি কে লিগ ১, এবং একটি কোরীয় এফএ কাপ শিরোপা রয়েছে। অন্যদিকে, আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায়, এপর্যন্ত ৩টি শিরোপা জয়লাভ করেছে; যার মধ্যে দুইটি এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা রয়েছে। কিম শিন-উক, কাং মিন-সু, কিম তে-হুয়ান, জুনিয়র নেগ্রাও এবং কিম ইন-সংয়ের মতো খেলোয়াড়গণ উলসান হুন্দাইয়ের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

ইতিহাস

সম্পাদনা

১৯৮৪ মৌসুমে উলসান হুন্দাই প্রথমবারের মতো দক্ষিণ কোরিয়ার পেশাদার ফুটবলের শীর্ষ স্তর কে-লিগে অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়েছিল। ১৯৮৪ সালের সালের ১লা এপ্রিল তারিখে, কে-লিগে ক্লাব ইতিহাসে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুন জুং-সিকের অধীনে উলসান হুন্দাই পিওএসসিও ডলফিনসের সাথে ১–১ গোলে ড্র করেছিল। ১৯৮৪ কে-লিগে উলসান হুন্দাই ১৩টি জয় এবং ১০টি ড্রয়ে সর্বমোট ৫৬ পয়েন্ট অর্জন করে সামগ্রিক পয়েন্ট তালিকায় ৩য় স্থান অর্জন করেছিল,[৬] যেখানে বেক জং-চুল ১৬টি গোল করে লিগে উলসান হুন্দাইয়ের হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন।

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা