উয়েফা গুণাঙ্ক

ইউরোপীয় ফুটবলের ক্ষেত্রে, উয়েফা গুণাঙ্ক হলো এক ধরনের পরিসংখ্যান, যেটি ক্লাব এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় র‍্যাঙ্কিংয়ের জন্য ব্যবহৃত হয়। ১৯৭৯ সালে প্রবর্তনের পর,[১] এই গুণাঙ্ক ইউরোপীয় ফুটবল পরিচালনাকারী সংস্থা উয়েফা দ্বারা গণনা করা হয়।

পুরুষদের প্রতিযোগিতার জন্য (এই প্রবন্ধে আলোচনা করা হয়েছে), তিনটি ভিন্ন ধরনের গুণাঙ্ক গণনা করা হয়:

  • জাতীয় দল গুণাঙ্ক: উয়েফা ইউরো বাছাইপর্ব এবং চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় পাত্র নির্ধারণের জন্য জাতীয় দলের র‍্যাঙ্কিংয়ে ব্যবহার করা হয়।
  • দেশ গুণাঙ্ক: প্রতিটি অ্যাসোসিয়েশনের ক্লাবগুলোর সমষ্টিগত পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করা অবস্থান নির্ধারণ করা হয়। উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগউয়েফা ইউরোপা লীগে অংশগ্রহণকৃত দলের সংখ্যা নির্ধারণ করার জন্য দেশ গুণাঙ্ক ব্যবহার করা হয়।
  • ক্লাব গুণাঙ্ক: উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ ও উয়েফা ইউরোপা লীগে পাত্র নির্ধারণের জন্য পৃথক ক্লাবের অবস্থান নির্ধারণে ক্লাব গুণাঙ্ক ব্যবহার করা হয়।

এই নিবন্ধে আলোচনা না করা হলেও, উয়েফা উইমেনস ইউরো[২]উয়েফা উইমেনস চ্যাম্পিয়নস লীগের মতো নারী প্রতিযোগিতা[৩][৪] এবং উয়েফা ইউরো অনূর্ধ্ব-২১ প্রতিযোগিতার মতো যুব প্রতিযোগিতার জন্য গুণাঙ্ক গণনা করা হয়।[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Patric Andersson; Peter Ayton; Carsten Schmidt (২০০৯)। Myths and Facts about Football: The Economics and Psychology of the World's Greatest Sport। Newcastle upon Tyne: Cambridge Scholars Publishing। পৃষ্ঠা 136। আইএসবিএন 14-4381-525-X 
  2. "UEFA Women's National Team Coefficient Ranking" (PDF)। UEFA.com। ২৫ অক্টোবর ২০১২। 
  3. "UEFA Women's Champions League Association Coefficient Ranking" (PDF)। UEFA.com। 
  4. "UEFA Women's Champions League 2012/13 Entry List" (PDF)। UEFA.com। 
  5. "Spain and Israel top seeds for Under-21 draw"। UEFA.com। ১৯ অক্টোবর ২০১২। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা