উড়াল রেলপথ

সড়ক স্তরের উপরে পথসহ দ্রুতগামী পরিবহন রেলপথ
(উত্তোলিত রেলপথ থেকে পুনর্নির্দেশিত)

উড়াল রেলপথ বা এলিভেটেড রেলওয়ে (ইংরেজি: Elevated railway, আক্ষ.'উত্তোলিত রেলপথ', এছাড়া এল ট্রেন বা সংক্ষেপে এল নামে পরিচিত) হলো দ্রুতগামী গণপরিবহন ব্যবস্থা যুক্ত রেলপথ, যা সড়ক পথের উপরে নির্মিত একটি উড়াল রেলসেতু বা অন্যান্য উচ্চতর কাঠামো (সাধারণতঃ ইস্পাত, কংক্রিট, বা ইট নির্মিত)। রেলপথটি ব্রড গেজ, স্ট্যান্ডার্ড গেজ, সংকীর্ণ গেজ, লাইট রেল, মনোরেল, বা একটি ঝুলন্ত রেল হতে পারে। উড়াল রেলপথগুলি সাধারণত নগর এলাকায় ব্যবহৃত হয় যেখানে সড়ক স্তরের ক্রসিংয়ের সংখ্যা বেশি থাকে। বেশিরভাগ সময়ই ইস্পাত ভায়াডাক্ট বা উড়ালসেতুগুলিতে চালিত উড়াল রেলপথগুলি সড়ক স্তর থেকে দেখা যায়।

কলকাতা মেট্রো লাইন ২-এর উড়াল রেলপথ
ঢাকা মেট্রোরেলের উড়াল রেলপথ
চেন্নাই দ্রুতগামী গণপরিবহন ব্যবস্থার উড়াল রেলপথ

ইতিহাস

সম্পাদনা

১৮৩৬ থেকে ১৮৩৮ সালের মধ্যে ইটের তৈরি ৮৭৮টি খিলানের লন্ডন ও গ্রিনিচ রেলপথটি ছিল বিশ্বের প্রথম উড়াল রেলপথ। ২.৫ মাইল (৪.০ কিলোমিটার) দীর্ঘ লন্ডন ও ব্ল্যাকওয়াল রেলপথও (১৮৪০) একটি উড়াল রেলপথ ছিল। ১৮৪০-এর দশকে লন্ডনে উড়াল রেলপথগুলির অন্যান্য প্রকল্প ছিল যা ঈপ্সিত সাফলতা পায়নি।[১]

১৮৬০ এর দশকের শেষের দিকে উড়াল রেল মার্কিন শহরগুলিতে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। ১৮৬৮ থেকে ১৮৭০ সাল পর্যন্ত নিউইয়র্ক ওয়েস্ট সাইড ও ইয়নকার্স পেটেন্ট রেলওয়ে কেবল কারগুলির সাথে পরিচালিত হয়েছিল, তারপরে লোকোমোটিব দ্বারা চালিত হয়। এর পরে ম্যানহাটান রেলওয়ে (১৮৭৫), সাউথ সাইড উড়াল রেলপথ, শিকাগো (১৮৯২-), এবং বোস্টন উড়াল রেলওয়ের (১৯০১-) উড়াল রেলপথকে অনুসরণ করে। শিকাগো দ্রুতগামী গণপরিবহন ব্যবস্থা সংক্ষেপে "এল" হিসাবে পরিচিত উড়াল রেলপথের জন্য। বার্লিন স্ট্যাটব্বান (১৮৮২) এবং ভিয়েনা স্ট্যাটব্বন (১৮৯৮) প্রধানত উড়াল।

প্রথম উড়াল বৈদ্যুতিক রেলপথ হল লিভারপুল উড়াল রেলপথ, যা ১৮৯৩ থেকে ১৯৫৬ সাল পর্যন্ত লিভারপুল ডকগুলির মাধ্যমে পরিচালিত হয়েছিল।

লন্ডনে, ডকল্যান্ডস হালকা রেলপথ একটি আধুনিক উড়াল রেলপথ, যা ১৯৭৮ সালে খোলা হয়েছিল এবং এর পর থেকেই এটি বিস্তৃত হয়েছে।[২] ট্রেন চালকহীন এবং স্বয়ংক্রিয়।[৩]

আরেকটি আধুনিক উড়াল রেলপথ হল টোকিওর চালকহীন ইউরিকমোম লাইন, যা ১৯৯৫ সালে খোলা হয়েছিল।[৪]

ব্যবস্থা

সম্পাদনা

মনোরেল ব্যবস্থা

সম্পাদনা

বেশিরভাগ মনোরেলগুলি উড়াল পথে নির্মিত, যেমন- ডিজনিল্যান্ড মনোরেল ব্যবস্থা (১৯৫৯), টোকিও মনোরেল (১৯৬৪), সিডনি মনোরেল (১৯৮৮-২০১৩), কেএল মনোরেল, লাস ভেগাস মনোরেল এবং সাও পাওলো মনোরেল, মুম্বাই মনোরেল। অনেক ম্যাগলেভ রেলপথও উড়াল পথে নির্মিত হয়েছে।

ঝুলন্ত রেলপথ

সম্পাদনা

১৮৯০-এর দশকে ঝুলন্ত রেলপথে বিশেষ আগ্রহ ছিল, বিশেষ করে জার্মানিতে। জার্মানিতে ওই সময়ে ড্রেসডেন ঝুলন্ত রেলপথ, (১৮৯১-) এবং ভুপার্টালের ঝুলন্ত রেলপথ (১৯০১) ব্যবস্থা গড়ে ওঠে। এইচ-বাহন ঝুলন্ত রেল ১৯৬৮ সালে ডর্টমুন্ড এবং ডুসেলডর্ফ বিমানবন্দরে নির্মিত হয়েছিল। ১৯৮২ সালে মেমফিস ঝুলন্ত রেলপথ চালু হয়।

জাপানের শোনান মনোরেলচিবা নগর মনোরেল তাদের নাম সত্ত্বেও সাসপেনশন রেলওয়েও রয়েছে।

ঝুলন্ত রেল সাধারণত এক প্রকারের মনোরেল

আধুনিক ব্যবস্থা

সম্পাদনা

সম্পূর্ণ মেট্রো ব্যবস্থা

সম্পাদনা

চেন্নাই দ্রুতগামী গণপরিবহন ব্যবস্থা

অব্যবহৃত:

চিত্রশালা

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. Jack Simmons and Gordon Biddle, The Oxford Companion to British Railway History, Oxford University Press, (1997), p.360.
  2. "DLR History Timeline". ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২২ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে Transport for London.
  3. "Where are the drivers?" Transport for London.
  4. New Transit Yurikamome website History Retrieved 3 March 2015