উইলমিংটন, ডেলাওয়্যার

উইলমিংটন আয়তনে ও জনসংখ্যায় ডেলাওয়্যার অঙ্গরাজ্যের বৃহত্তম শহর। উত্তর আমেরিকার প্রথম সুইডিশ বসতি ফোর্ট ক্রিস্টিনা যে স্থানে অবস্থিত,ঠিক সে জায়গাতেই উইলমিংটন শহরটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি ক্রিস্টিনা ও ব্র্যান্ডিওয়াইন নদীর মোহনায় অবস্থিত। নিউকাসল কাউন্টির সদর দপ্তর এখানেই প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এটি ডেলাওয়্যার উপত্যকা মেট্রোপলিটন এলাকার একটি প্রধান শহর। থমাস পেন তার বন্ধু আর্ল অব উইলমিংটন স্পেনসার কম্পট্রনের নামানুসারে শহরটির নামকরণ করেন। আর্ল অব উইলমিংটন দ্বিতীয় জর্জের রাজত্বকালে প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

২০১৯ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী, উইলমিংটন শহরে ৭০,১৬৬ জন বসবাস করেন।[১] এসময় উইলমিংটন মেট্রোপলিটন বিভাগে বাসিন্দা ছিলেন ৭,১৯,৮৮৭ জন[২] এবং ডেলাওয়্যার ভ্যালি মেট্রোপলিটন এলাকার বাসিন্দা ছিলেন ৭১,৭৯,৩৫৭ জন।[৩]

ইতিহাসসম্পাদনা

ফোর্ট ক্রিস্টিনা ও ক্রিস্টিনহ্যামের মতো সুইডিশ বসতিতে উইলমিংটন গড়ে ওঠে।[৪] এছাড়াও,টিমমেরন,সিডোল্যান্ড, স্ট্রান্ডভাইকেন ও ওভারসিডোলানদেতের মতো প্রাচীন সুইডিশ বসতিও উইলমিংটন শহরের অংশ।

উইলমিংটন এলাকাটি লেনাপি-জাতি অধ্যুষিত ছিল,যাদের গোত্রপ্রধান ছিলেন ম্যাটাহর্ন। ১৬০৯ সালে হেনরি হাডসন লেনহাপি-হান্না ( ডেলাওয়্যার নদী) পার করে উইলমিংটনে পৌঁছান। তখন এই এলাকার নাম ছিল "ম্যাক্স-ওয়াস-উননুক।"

ডাচদের উচ্চারণে এটি মিগুয়ান্নান হয়ে যায়। ১৬৩৮ সালে পিটার মিনুইটের নেতৃত্বে সুইডিশ সাউথ কোম্পানি এখানে জাহাজে করে পৌঁছায় ও ম্যাটাহর্নের কাছ থেকে ম্যাক্স-ওয়াস-উননুক ক্রয় করে নেয়। সেখানে নদীতীরে তারা ক্রিস্টিনা দুর্গ নির্মাণ করে। নদীটির নামও সুইডিশ রানি ক্রিস্টিনার নামানুসারে ক্রিস্টিনা নদী হয়। ফোর্ট ক্রিস্টিনা নব্য সুইডেন উপনিবেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিল। কিন্তু কমসংখ্যক ব্যক্তিই এখানে বসতি স্থাপন করেন।[৫] ডা.টিমোথি স্টিডহাম এখানকার একজন প্রসিদ্ধ বাসিন্দা ছিলেন। ১৬১০ সালে ডেনমার্কের হ্যামেল শহরে তিনি জন্মগ্রহণ করেন এবং গোথেনবুর্গ শহরে লালিত-পালিত হন। ১৬৫৪ সালে তিনি উইলমিংটন আসেন এবং ডেলাওয়্যারের প্রথম চিকিৎসক হিসাবে স্বীকৃত।[৬]

১৬৫৫ সালে সুইডিশ গভর্নর জোহান রাইজিং-কে পদচ্যুত করে ডাচরা এখানে উপনিবেশ স্থাপন করে। ১৬৬৪ সালে এখানে ব্রিটিশ উপনিবেশবাদীরা প্রভাব বিস্তার করতে শুরু করে।

ডাচ-ব্রিটিশদের মধ্যে কতগুলো খণ্ডযুদ্ধের পর এখানে ব্রিটিশরা পূর্ণ কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করে। ১৭৩৯ সালে রাজা দ্বিতীয় জর্জের জারিকৃত এক আমলনামা অনুযায়ী এর নাম পাল্টে হয় উইলমিংটন।[৭]

১১ সেপ্টেম্বর ১৭৭৭ সালে আমেরিকার স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় ব্রিটিশরা ব্র্যান্ডিওয়াইন যুদ্ধের পর এটি দখল করে এবং ১৭৭৮ সালে তারা উইলমিংটন ছেড়ে চলে যায়।

১৮০০ সালে ইলিথ্রে ইরিন দুপোঁ ফ্রান্স থেকে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন এবং ১৮০২ সালে উইলমিংটন শহরের অদূরেই তিনি বারুদ তৈরির কারখানা প্রতিষ্ঠা করে। অল্প সময়ের মধ্যেই এটি যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর অন্যতম সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানে রূপ নেয়।[৮]

আমেরিকান গৃহযুদ্ধের সময় এতে জাহাজশিল্পের প্রসার। ঘটে এবং ১৮৬৮ সালে এখানে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চসংখ্যক ইস্পাত-নির্মিত জাহাজ তৈরি হয়।

মার্টিন লুথার কিংএর হত্যাকাণ্ড এখানে সহিংসতা উসকে দেয়। অগত্যা গভর্নর চার্লস এল টেরি সেনা মোতায়েনের মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

১৯৮১ সালে প্রণীত আর্থিক প্রতিষ্ঠান উন্নতি আইনের ফলে ব্যাংকিং খাতের উদারীকরণ ঘটে, যার দরুন উইলমিংটনে আশির দশকে বহু ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শাখা খোলা হয়।

ভূগোলসম্পাদনা

উইলমিংটনের আয়তন ১৭.০ বর্গকিলোমিটার(৪৪ বর্গমাইল)।এর মধ্যে ১০.৯ বর্গকিলোমিটার স্থল এবং ৬.২ কিলোমিটার জল।

শহরটি ফিলাডেলফিয়ার ৩৩ মাইল দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত। শহরের দক্ষিণে অবস্থিত ডেলাওয়্যার মেমোরিয়াল সেতু নিউ জার্সিডেলাওয়্যার অঙ্গরাজ্যের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে।

জলবায়ুসম্পাদনা

উইলমিংটনের জলবায়ু উষ্ণ প্রকৃতির। জুলাই মাসে এর গড় তাপমাত্রা হয় ৭৬.৮ ডিগ্রি ফারেনহাইট। জানুয়ারিতে গড় তাপমাত্রা ৩২.৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট-এ নেমে আসে। এখানে মাঝারি মাত্রার তুষারপাত হয়।

জনমিতিসম্পাদনা

২০১০ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী উইলমিংটনে ৭০,৮৫১ জন মানুষ বসবাস করেন। এখানে ২৮,৬১৫টি বাড়ি ও ১৫,৩৯৮টি পরিবার রয়েছে। জনঘনত্ব প্রতি বর্গমাইলে ৬,৪৯৭.৬ জন। এদের মধ্যে ৫৮% আফ্রিকান আমেরিকান, ৩২.৬% শ্বেতাঙ্গ,০.৪% আদিবাসী আমেরিকান, ১% এশিয়ান, <০.১% প্রশান্ত মহাসাগরীয়। ১২.৪% হিস্পানিক ও লাতিনো জনগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত। নন-হিস্পানিক শ্বেতাঙ্গরা জনসংখ্যার ২৭.৯%।[৯] ২০০০ সালে বাসিন্দাদের মধ্যে ৮.৭%-ই ছিলেন আইরিশ বংশোদ্ভূত।

২০১০ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী উইলমিংটনের মাথাপিছু আয় ২৪,৮৬১ মার্কিন ডলার। পূর্ণবয়স্ক পুরুষদের গড় আয় ৪১,৮৭৮ মার্কিন ডলার ও পূর্ণবয়স্ক মহিলাদের গড় আয় ৩৬,৫৮৭ মার্কিন ডলার। পরিবারগুলোর মাথাপিছু আয় ৩৭,৩৫২ মার্কিন ডলার। ১৮ বছরের নিচে ৪৫.৭% ও ৬৫ বছরের ঊর্ধ্বে ১৬.৫% দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করছিল।[১০]

প্রশাসনসম্পাদনা

উইলমিংটন সিটি কাউন্সিল ১৩ জন সদস্যদের নিয়ে গঠিত। এদের মধ্যে ১২ জন নির্দিষ্ট নির্বাচনী এলাকা ও ৪ জন সম্পূর্ণ শহরের বাসিন্দাদের ভোটে নির্বাচিত হন। অবশিষ্ট জন হলেন সিটি কাউন্সিল প্রেসিডেন্ট, যিনি প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হন। উইলমিংটন শহরের মেয়রও প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হন।

ডেলাওয়্যার অঙ্গরাজ্যের কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার এখানে অবস্থিত। এখানে কয়েদি ও হাজতি উভয় ধরনের পুরুষ বন্দিই থাকে। একে "গ্যান্ডার হিল প্রিজন"-ও বলা হয়। ১৯৮২ সালে এর কার্যক্রম শুরু হয়। [১১]

নিরাপত্তাসম্পাদনা

উইলমিংটনের নিরাপত্তা পরিস্থিতির ক্রমশ উন্নতি হচ্ছে।[১২] ২০১৮ সালের পূর্বে এটি যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম বিপজ্জনক শহর হিসাবে পরিচিত ছিল। ২০১৪ সালে এখানে ২৮ জন মানুষ খুন হন। এর ফলে এর হত্যাকাণ্ডের হার দাঁড়ায় প্রতি এক লক্ষে ৩৯.৫ জন,যা জাতীয় গড়ের দশগুণ।[১৩] ২০১৭ সালে এটি যুক্তরাষ্ট্রের ৫ম বিপজ্জনক শহর হিসেবে স্বীকৃতি পায়। [১৪] ২০১৮ সালে এখানে ৭২টি গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে,যা ২০১৭ এর তুলনায় ৩৩% কম।[১৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা