উইকিপিডিয়া আলোচনা:নিবন্ধ সৃষ্টিকরণ/অনীক মাহমুদ

সক্রিয় আলোচনা

অনীক মাহমুদসম্পাদনা


বর্তমান কালের একজন উল্লেখযোগ্য কবি ও সাহিত্যিক। ভাষার প্রাত্যহিক যজ্ঞানলে কাব্যের এক নিভৃত নিলয়ে কবি অনীক মাহমুদ (জন্ম ১৯৫৮) যজ্ঞরত মধ্যসত্তর থেকে। মেধাবী শিক্ষার্থী, অধ্যাপক, ঋদ্ধ গবেষক, সৃজনশীল প্রাবন্ধিক, সুনিপুণ গদ্যশিল্পী প্রভৃতি অভিধায় অভিষিক্ত অনীক মাহমুদ ব্রতচারী এক কাব্যসাধক।

জন্মসম্পাদনা
তিনি ১৯৫৮ সালের ২১ নভেম্বর রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার মচমইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। 
শিক্ষাজীবনসম্পাদনা

মচমইল বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয় থেকে ১৯৭৬ সালে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডে বাণিজ্য বিভাগে চতুর্থ স্থান অধিকার করে তিনি এসএসসি পাস করেন। রাজশাহী কলেজ থেকে ১৯৭৮ সালে দ্বিতীয় বিভাগে এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। অতঃপর ১৯৭৮ সালে বাণিজ্য গ্রূপ ছেড়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগে সম্মান শ্রেণীতে ভর্তি হন। ১৯৮১ সালে অনার্সে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হয়ে উত্তীর্ণ হন। ১৯৮২ সালে একইভাবে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হয়ে তিনি এম.এ. পাস করেন।[১] ১৯৯২ সালে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রফেসর মোহাম্মদ আবদুল আউয়ালের তত্ত্বাবধানে ‘বাংলা কথাসাহিত্যে শওকত ওসমান’ শিরোনামে অভিসন্দর্ভ রচনা করে তিনি এম.ফিল. ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৯৪ সালে প্রফেসর মুহম্মদ মজিরউদ্দীন মিয়ার তত্ত্বাবধানে ‘আধুনিক বাংলা কাব্যে সাম্যবাদী চেতনা (১৯২০-১৯৪৭)’ শীর্ষক অভিসন্দর্ভ রচনা করে পিএইচ.ডি. ডিগ্রি লাভ করেন।[২]

কর্মজীবনসম্পাদনা

১৯৮৮ সালের ১৪ জানুয়ারি বাংলা বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রভাষক পদে চাকুরিতে যোগদান করেন। ১৯৯১ সালের ১৪ জানুয়ারি সহকারী অধ্যাপক, ১৯৯৫ সালের ৫ অক্টোবর সহযোগী অধ্যাপক এবং ২০০০ সালের ৩০ মে প্রফেসর পদে উন্নীত হন। ২০০৬ সালের ১৬ মে অনীক মাহমুদ বাংলা বিভাগের সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন। বর্তমানে সেখানে তিনি জ্যেষ্ঠতম অধ্যাপক হিসাবে কর্মরত আছেন।[৩]

কাব্যগ্রন্থসম্পাদনা

  • প্রেম বড় স্বৈরতন্ত্রী (১৯৯৫)
  • একলব্যের ভবিতব্য (১৯৯৭)
  • ভরদুপুরে আমার মাকে (১৯৯৭)
  • দুলকি ঘোড়া চাবুক কড়া (১৯৯৭)
  • আসন্নবিরহ বিষণ্ণবিদায় (২০০৪)
  • এইসব ভয়াবহ আরতি (২০০৪)
  • নষ্ট জ্যোৎস্নার ক্যারাভান (২০০৬)
  • শেয়াল মামার খেয়াল (২০০৬)
  • দীর্ঘদংশন নীলজ্বালা (২০০৭)
  • বৃহন্নলা ছিন্ন করো ছদ্মবেশ (২০০৭)
  • সুমিত্রাবন্ধন (২০০৯)
  • চৈতীচাঁদে রাহুর লেহন (২০০৯)
  • হৃৎ-খৈয়ামের রুবাইয়াৎ (২০১১)
  • কান্তবোধি কবিতিকা (২০১২)
  • ভদ্রলোকসংহিতা (২০১২)
  • বনসাঁই রূপবন্ধ (২০১৫)
  • তখনো বৃষ্টি ঝরছিলো (২০১৫)
  • কালিন্দী-আকাশ-কংসগহ্বর (২০১৫)

[৪]

প্রবন্ধ গ্রন্থসম্পাদনা

পুরস্কারসম্পাদনা

  • ড. আসাদুজ্জামান সাহিত্য পুরস্কার ২০১১[৫]
  • কবিকুঞ্জ পদক ২০১৫ [৬]

শিশুতোষ গ্রন্থসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. এ.বি.এম.কামাল উদ্দিন শামীম: “ব্যতিক্রম একজন শিক্ষার্থীর প্রতিকৃতি” দৈনিক বার্তা, ২২ মে ১৯৮৫
  2. [১]কবি অনীক মাহমুদের ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট
  3. [২]বাংলা বিভাগঃ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
  4. [৩]দৈনিক জনকন্ঠঃ অনীক মাহমুদের ‘কাব্যসারথি’ ॥ মননে-সৃজনে-চিন্তনে
  5. [৪]ড. আসাদুজ্জামান সাহিত্য পুরস্কার পেলেন অনীক মাহমুদ
  6. [৫]‘কবিকুঞ্জ পদক ২০১৫’ ঘোষণা করেছে কবি ও কবিতার সংগঠন কবিকুঞ্জ।


"নিবন্ধ সৃষ্টিকরণ/অনীক মাহমুদ" প্রকল্প পাতায় ফিরুন।