বিশপ হল খ্রিস্টধর্মীয় উচ্চপদস্থ যাজকের পদবি। প্রথানুযায়ী আর্চবিশপ {/ˌɑːrˈbɪʃəp/, গ্রিক ভাষার αρχιεπίσκοπος, (αρχι- 'প্রধান', এবং επίσκοπος- 'বিশপ') থেকে লাতিন ভাষার archiepiscopus হয়ে}[১][২][৩] পদবি সাধারণ বিশপদের সাথে উচ্চতর পদমর্যাদা ও ক্ষমতার বিশপদের পার্থক্য করতে ব্যবহৃত হয়। আবার প্রোটেস্ট্যান্ট খ্রিষ্টানদের লুথেরান চার্চ (সুইডেনভিত্তিক) ও চার্চ অব ইংল্যান্ডের রীতি অনুসারে এটি হল তাদের ধর্মীয় সম্প্রদায়ের সর্বোচ্চ নেতার পদবি। পোপ, প্যাট্রিয়ার্ক, মেট্রোপলিটন ও কার্ডিনাল বিশপ, ডায়োসিয়ান বিশপ ও সাফরাগান বিশপদের মতো আর্চবিশপরা খ্রিস্টধর্মীয় তিনটি ঐতিহ্যবাহী পবিত্র অর্ডার- বিশপ, প্রিস্ট (প্রেসবাইটার নামেও অবহিত) ও ডিকনদের মধ্যে সর্বোচ্চ পদমর্যাদার অধিকারী। একজন আর্চবিশপ কোন মেট্রোপলিটন সি অথবা আর্চবিশপ পদ যুক্ত আছে এমন কোন ইপিসকোপাল সির প্রধান ধর্মযাজক হিসেবে অভিষিক্ত হতে পারেন।

রোমান ক্যাথলিক আর্চবিশপের পরিচায়ক চিহ্ন (নন-মেট্রোপলিটন)
রোমান ক্যাথলিক আর্চবিশপের পরিচায়ক চিহ্ন (মেট্রোপলিটন)

ক্ষমতা ও পদমর্যাদার দিক দিয়ে কোন সাধারণ আর্চবিশপ পোপ এবং কার্ডিনালদের পরে তৃতীয় অবস্থানে থাকেন। তবে পোপ ও কার্ডিনালরাও আর্চবিশপ উপাধি ধারণ করতে পারেন। যেমন- বাংলাদেশি কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি'রোজারিও একইসাথে ঢাকার আর্চবিশপ[৪]

প্রারম্ভিক ইতিহাসসম্পাদনা

আর্চবিশপ উপাধি বা এই পদাধিকারীর ভূমিকা ঠিক কখন প্রথম আত্মপ্রকাশ করে, তা নির্ণয় করা যায়নি। মেট্রোপলিটন পদবি খ্রিস্টীয় চতুর্থ শতাব্দী থেকে পরিচিত হওয়া শুরু করে; ইতিহাসখ্যাত ৩২৫ সালের নিকিয়ার প্রথম সভা (৩৪১ খ্রিস্টাব্দ) এবং অ্যান্টিওকের সভার (৩৪১ খ্রিস্টাব্দ) দলিলে এর উল্লেখ রয়েছে। এসময় মেট্রোপলিটন প্রপঞ্চটি বিশপের চেয়ে উচ্চতর সকল পদবির (প্যাট্রিয়ার্কগণও এর অন্তর্ভুক্ত) জন্য ব্যবহৃত হতো বলে ধারণা করা হয়। বর্তমানে প্রতিষ্ঠিত আর্চবিশপের ধারণাটি ষষ্ঠ শতাব্দী পর্যন্ত আবির্ভূত হয়নি; যদিও প্যাট্রিয়ার্কের নিচে কিন্তু সাধারণ বিশপের উপরে তাঁদের ভূমিকা ৫ম শতাব্দীতেই মেট্রোপলিটনগণের জন্য প্রতিষ্ঠিত হয়ে গিয়েছিল বলে ধারণা করা হয়। [৫]

গ্যালারিসম্পাদনা

 
Jean-François de Gondi
প্যারসের আর্চবিশপ (১৫৮৪-১৬৫৪)

তথ্যসূত্রসম্পাদনা