আমরস

রুচিবর্ধক

আমরস হলো ভারতীয় উপমহাদেশের রন্ধনশৈলীর এক প্রকার মিষ্টি খাদ্যের পদ যা আমের পাল্প থেকে তৈরি করা হয়। পাকা আম থেকে সাধারণত হাত দিয়ে পাল্প বের করা হয় এবং এটি পুরি বা চাপাতি (ভারতীয় রুটি) এর সাথে খাওয়া হয়। কখনও কখনও এর স্বাদ বাড়াতে পাল্পের সাথে ঘি এবং দুধ যুক্ত করা হয়। মিষ্টতা সামঞ্জস্য করতে চিনিও যুক্ত করা হয়। এটি প্রায়শই এলাচ এবং ফলের টুকরাসহ বিভিন্ন উদযাপন এবং বিবাহ অনুষ্ঠানে পরিবেশিত হয়।

আমরস
Aamras Custard.JPG
ভারতে তৈরি আমরস
প্রকাররুচিবর্ধক
উৎপত্তিস্থলভারতীয় উপমহাদেশ
সংশ্লিষ্ট জাতীয় রন্ধনশৈলীভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান
পরিবেশনঠান্ডা
প্রধান উপকরণআম, দুধ
রন্ধনপ্রণালী: আমরস  মিডিয়া: আমরস
আমরস

আমরাসের একটি আঞ্চলিক সংস্করণ রাজস্থানী এবং মারোয়াড়ি রন্ধনশৈলী, মারাঠি এবং গুজরাটি বাড়িতে, বিশেষত উৎসবের সময় একটি জনপ্রিয় মিষ্টান্ন।

আম যেহেতু একটি গ্রীষ্মকালীন ফল এবং গ্রীষ্মের শেষে ফলটি উত্তোলন করা হয়, তাই আমগুলিকে পাল্পের আকারে সংরক্ষণের প্রয়োজনের ফলে বৃহৎ আকারের আমের-প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পের উত্থান ঘটেছে।

ব্যাকরণসম্পাদনা

"আমরস" শব্দটি সংস্কৃত শব্দ আম্র (সংস্কৃত: आम्र, অর্থ: আম) এবং রস (সংস্কৃত: रसঅর্থ রস) থেকে উদ্ভূত হয়েছে, সুতরাং এর আক্ষরিক অর্থ হলো "আমের রস"।

পানহেসম্পাদনা

পানহে হলো সিদ্ধ কাঁচা আমের পাল্প থেকে তৈরি এক প্রকার মিষ্টি পানীয় এবং এটি মহারাষ্ট্রের একটি ঐতিহ্যবাহী গ্রীষ্মকালীন পানীয়, যেখানে এটি বর্ধিত মৌসুমী উত্তাপ সহ্য করতে সহায়তা করে। পাল্পটির ২:১ অনুপাতের সাথে চিনি মিশ্রিত করা হয় এবং তারপরে এতে পর্যাপ্ত পানি যোগ করা হয় পানের উপযোগ্য করে তুলতে।

কেরি না রসসম্পাদনা

আমরস একটি ঐতিহ্যবাহী গুজরাটি পানীয়'ও, যাকে কেরি না রস (કેરીનો રસ (kerī-no ras)) বলা হয়। এতে চিনিযুক্ত আমের পাল্প রয়েছে, যা ফলের আঁশগুলিকে সরাতে মসলিনের মধ্য দিয়ে যায়।[১] এটি সাধারণত রুটি বা পুরি'র সাথে খাওয়া হয়।[২]

প্রস্তুতপ্রণালীসম্পাদনা

উপকরণ :-সম্পাদনা

  • এলাচ গুঁড়ো - ১/৪ চা চামচ
  • জাফরান - এক চিমটি
  • আম (আলফানসো) - ১-২ টি (পাকা এবং মিষ্টি)
  • দুধ - ১-২ টেবিল চামচ (ঐচ্ছিক)
  • চিনি - ১ টেবিল চামচ (ঐচ্ছিক)[৩]

প্রণালী :-সম্পাদনা

  1. প্রথমে আম ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। তারপর টুকরো করে কাটতে হবে। এরপর সেগুলো ব্লেন্ডারে রেখে এলাচ গুঁড়ো মিশিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করতে হবে।
  2. আম খুব মিষ্টি না হলে ১ টেবিল চামচ চিনি গুঁড়ো মেশাতে হবে। তারপর আবার ভালোভাবে ব্লেন্ড করতে হবে। যদি মিশ্রণটা মসৃণ না মনে হয় তবে ১-২ টেবিল চামচ দুধ মিশিয়ে আবার ব্লেন্ড করতে হবে।
  3. এবার একটা পাত্রে মিশ্রণটা ঢেলে রেফ্রিজারেটরে রেখে দিতে হবে। তারপর বাটিতে ঢেলে জাফরান ছড়িয়ে দিয়ে গার্নিশ করতে হবে।[৩]

প্রক্রিয়াজাতকৃত পাল্প থেকে তৈরি মিষ্টান্নের তালিকাসম্পাদনা

প্রক্রিয়াজাতকৃত পাল্প থেকে উৎপাদিত বেশ কয়েকটি মিষ্টান্ন মহারাস্ট্রিয়ান সম্প্রদায়ের মধ্যে খুব জনপ্রিয়।

  • আম্বা বরফি : পাল্প-কে চিনির সাথে মিশ্রিত করা হয় এবং সেদ্ধ করে ঘন পেস্টে রুপ দেওয়া হয়। এরপরে পরিণত পাল্পটি খাভা (মিল্ক সলিড) এবং বাদাম কুঁচির সাথে মেশানো হয়। মিশ্রণটি বড় সমতল তাওয়ায় শীতল করার জন্য রাখা হয় এবং প্যাকেজিংয়ের আগে কিউব (চার কোণা) আকারে কাটা যায়।
  • আম্বা পলি : পাল্পের সাথে চিনি মেশানো হয় এবং সমতল পাত্রে রেখে সূর্যের আলোতে শুকানো হয়। শুকনো পাল্প একে অপরের উপরে স্তুপীকৃত শক্ত স্তর তৈরি করে।
  • আম্ব্যাচা সিরা : পাল্প-কে চিনি ও বাদামের সাথে মিশ্রিত করা হয়, তারপরে পানিতে বা দুধে সুজি দিয়ে রান্না করা হয়। একবার রান্না হয়ে গেলে মিশ্রণটি পীতাভ বাদামী রঙের পেস্টের মতো লাগে এবং এটি খাওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়।

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Vanisha, S.R, Nambier, Vashist (২০০৪)। A Textbook On Food Contamination And Safety। Anmol Publications। পৃষ্ঠা 52। 
  2. Seshadri, Diana (২০০৭)। Food for the Gods। Lulu.com। পৃষ্ঠা 47। আইএসবিএন 978-1-4303-1269-7 
  3. "আমরস তৈরির সহজ উপায়"। NDTV Bengali। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা