আব্দুর রহমান আল-আলুসী

আব্দুর রহমান আল-আলুসী
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম আব্দুর রহমান ইবনে আবদুল্লাহ আল হুসাইনি আল-আলুসী
জন্ম ১২২১ হিজরী/১৮০৪ ইং, বাগদাদ, উসমানী সালতানাত
ইন্তেকাল ১২৮৪ হিজরী/১৮৬৭ইং, বাগদাদ, উসমানী সালতানাত
নাগরিকত্ব উসমানী সালতানাত
ধর্ম ইসলাম
কর্ম জীবন
রচনাবলী السيد عبد الرحمن الألوسي في رثاء جده الحسين عليه السلام وكتاب في الخطب
পেশা عالم مسلم،  ومُحَدِّث،  وفقيه،  وكاتب  
কর্মসংস্থান بوابة:الحديث النبوي،  والفقه  
الاهتمامات علم التفسير، علم الحديث، الفقه الإسلامي، الشعر
سبب الشهرة أدب، علم التفسير، علم الحديث، الفقه الإسلامي، الشعر
تعديل مصدري - تعديل

আব্দুর-রহমান ইবনে আবদুল্লাহ ইবনে দারভিশ আল-হুসাইনি আল-আলুসি (১২২১-১২৮৪ হিজরী বা ১৮০৪ - ১৮৬৭) মুফাসসির, মুহাদ্দিস, মুফতি, সাহিত্যিক ও কবি ছিলেন।[১]

বংশ পরিচয়: আব্দুর-রহমান ইবনে আবদুল্লাহ ইবনে মাহমুদ ইবনে দারবিশ ইবনে আশুর ইবনে মুহাম্মদ ইবনে নাসিরুদ্দিন ইবনে হুসাইন ইবনে আলী ইবনে হুসাইন ইবনে কামালুদ্দিন ইবনে শামসুদ্দিন ইবনে মুহাম্মদ ইবনে শামসুদ্দিন ইবনে হারিস ইবনে শামসুদ্দিন ইবনে শিহাবুদ্দিন কাসিম ইবনে আমির ইবনে মুহাম্মদ ইবনে বাইদার ইবনে ঈসা ইবনে আহমদ ইবনে মুসা ইবনে আহমদ ইবনে মুহাম্মদ ইবনে আহমদ আল-আ’রাজ ইবনে মুসা আল-মুবারকা ' ইবনে মুহাম্মদ আল-জাওয়াদ ইবনে আলী আল-রিদা ইবনে মুসা আল-কাজিম ইবনে জাফর আস-সাদিক আল-বাকির ইবনে জয়নুল আবিদিন ইবনে আল-হুসাইন ইবনে আলী ইবনে আবি তালিব রদ্বিয়াল্লাহু আনহুম, প্রীয় রসুল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কন্যা হযরত যাহরাহ আলাইহাস সালামের স্বামী।

ইরাকের আনবর প্রদেশের ফোরাত নদীর দ্বীপ আলুস শহরের দিকে নিসবত করে উনাকে আলুসী বলা হয়। যখন হালাকু খান তাতারী বাগদাদ আক্রমন করেছিলো তখন উনার পূর্বপুরষরা আলুস শহরে এসে বসবাস শুরু করেন।

তার পারিবারিক বংশ নবী প্রিয় নবীজী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নাতির কাছে ফিরে যায়, কারণ এটি আলাউই বংশের একটি পরিবার, জন্মভূমিতে আলুসিয়া এবং বাসস্থানে বাগদাদি।

তিনি ছিলেন[২] [৩] মুফতি, ওয়ায়েজ, মুহাদ্দিস, এবং হাদীস ও মানকুল বিজ্ঞ। তিনি বাগদাদের শেখ সন্দল মসজিদে দাওয়াত ও তালিম দিতেন।

সাইয়্যিদ আব্দুর রহমান ছিলেন বিখ্যাত ব্যক্তিদের একজন যারা মসজিদে শিক্ষা দিতেন এবং ওয়াজ করতেন। তিনি তার ভাই মাহমুদ শিহাবুদ্দিনের কাছ থেকে জ্ঞান নিয়েছিলেন, তার ডাকনাম আল-আলুসি আল কাবির

আম এবং খাস সকলের নিকটে আল্লামা আব্দুর রহমান আলুসির আলোচনা ছিলো শ্রুতিমধুর। বিশেষ করে তৎকালীন ইরাকের গভর্নর নামিক পাশা তার আলোচনা শুনতেন । বাগদাদের কার্খ এর লোকেরা উনার বিচারের পর আর কোনো বিচার গ্রহণ করতো না এবং রাষ্ট্র অভিযোগ করে যে তিনি তাদের বিচারিক বিরোধের মধ্যস্থতা করার পর জনগণ তাদের বিরোধ মীমাংসার জন্য আর আসেনি।[৩]

এত কিছুর পরেও, তিনি সরকারী লোকদের সাক্ষাত বা তাদের কাছে যেতে আগ্রহী ছিলেন না। তিনি ওয়াজ, দরস-তাদরিস (শিক্ষা), বিচার এবং যুহদ বা দুনিয়া বিরাগ হওয়াকে অন্য সব বিষয়ে প্রাধান্য দিতেন [৩]

ইন্তেকালসম্পাদনা

আব্দুর রহমান আল-আলুসি বাগদাদে 13 রবি'উছ ছানি, 1284 হি / আগস্ট 1, 1867 খ্রিস্টাব্দে ইন্তেকাল করেন [৪] তার ইন্তেকালের পরপরই তার যাওয়া দুই কন্যা ইন্তেকাল করেন। তার একমাত্র ছেলে সন্তান হলেন হুসাইন। তিনি মিডল ইউফ্রেটিস কোর্টের প্রধান আইনজীবী জনাব ইব্রাহিম নাজি এফেন্দির দাদার পিতা। বিংশতম বিপ্লবের প্রাক্তন প্রচারক। তাকে শায়েখ মারুফ কারখি রহমতুল্লাহি আলাইহির মাজার শরীফে দাফন করা হয়েছিল। আল-কারখি এবং তার কবর তার ভাই শিহাবুদ্দিন আল-আলুসির কবরের গম্বুজের বাইরে।

কবি মুহম্মদ সাঈদ আল-নাজাফী তাকে একটি কবিতা দিয়ে বিলাপ করেছেন। কবিতার প্রথমাংশ: [৪]

من لوى من بني لوي لواها و طوى طود عزها و علاها
فأراها و قادح الود أورى قبسات تشب حشو حشاها
إلى أن يقول
إن أم العلوم لتنعى و لكن بإسم عبد الرحمن كان نعاها
قم نعزي الفتى ربيب المعالي ذاك عبد الرزاق والي قضاها
خير قاض في حكمه العدل راض أعدل الناس في القضا أقضاها
ثم يختتمها بقوله
علم من بني لوي لوته حادثات الردى فشلت يداها
كان للناس مقتدى واماما من ترى بعد فقده مقتداها
ندبته مدارس العلم شجوا حيث مات الندب الذي أحياها

রচনাবলীসম্পাদনা

  • কিতাবু ফিলখুতাব كتاب في الخطب
  • تحقيق كتاب مصطفى أفندي الموصلي মোস্তফা এফেন্দি আল-মাওসিলির বইয়ের তাহকিক [৫]
  • قصيدة في رثاء سيد الشهداء جده الحسين عليه السلام তার পিতামহ সাইয়্যিদুশ শুহাদা হযরত হুসাইন আলাইহিস সালমের উপর বিলাপের কবিতা [৬]

তার কবিতাসম্পাদনা

 

هو الطف فاجعل فضة الدمع عسجدا وضع لك فولاذ الغرام مهندا
ورد منهل الاحزان صرفا وكررن حديثا لجيران الطفوف مجددا
وما القلب الا مضغة جد بقطعها ودعها فداء السبط ، روحي له الفدا
أترضى حياة بعد ما مات سيد غدا جده المختار للناس سيدا
أترضى اكتحال الجفن بعد مصابه وجفن التقى والدين قد بات أرمدا
خذ النوح في ذاك المصاب عزيمة الى الفوز واجعل صهوة الحزن مقعدا
بكت رزئه الاملاك والافق شاهد ألم تره من دمعه قد توردا
فيا فرقدا ضاء الوجوه بنوره فما بعده نلقى ضياءا وفرقدا
وريحانة طاب الوجود بنشرها بها عبثت أيدي الطغاء تعمدا
ودرة علم قد أضاءت فأصبحت تمانعها الاوغاد منعا مجردا
بروحي منها منظرا بات في الثرى ويا طال ما قد بات في حجر أحمدا
وثغرا فم المختار مص رضابه وهذا يزيد بالقضيب له غدا
ورأسا يد الزهراء كانت وسادة له فغدا في الترب ظلما موسدا
لئن أفسدوا دنياك يا بن محمد سيعلم أهل الظلم منزلهم غدا
لئام أتوا بالظلم طبعا وانما لكل امرء من نفسه ما تعودا
وحقك ما هذا المصاب بضائر لأن الورى والخلق لم يخلقوا سدى
فألبسك الرحمن ثوب شهادة وألبسهم خزيا يدوم مدى المدا
لبستم كساء المجد وهو اشارة بأن لكم مجدا طويلا مخلدا
وطهركم رب العلى في كتابه وقرر كل المسلمين وأشهدا
أتنكر هذا يا يزيد وليس ذا بأول قبح منك يا غادر بدا
بني المصطفى عبد لكم وده صفا فأضحى غذاء للقلوب وموردا
غريب عن الاوطان ناء فؤاده تضرم من نار الاسى وتوقدا
ألم به خطب من الدهر مظلم تحمل من أكداره وتقلدا
نضى سيفه في وجهه متعمدا وجرده عن حقه فتجردا
بباكم ألقى العصا وحريمكم أمان اذا دهر طغى وتمردا
أتاكم صريخا من ذنوب تواترت على ظهره في اليوم مثنى ومفردا
أتاكم ليستجدي النوال لأنكم كرام نداكم يسبق الغيث والندا
أتاكم ليحمي من أذى الدهر نفسه وأنتم حماة الجار ان طارق بدا
أتاكم أتاكم يا سلالة حيدر كسيرا يناديكم وقد أعلن الندا
حسين أقلني من زمان شرابه حميم وغسلين اذا ما صفا صدا
على جدك المختار صلى الهنا وسلم ما حاد إلى أرضه حدا

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. محمود شكري الألوسي (2007)، عبد الله الجبوري (المحرر)، المسك الأذفر (PDF) (ط. الأولى)، بغداد: الدار العربية للموسوعات، ص. 155، مؤرشف من الأصل (PDF) في 9 يناير 2020، اطلع عليه بتاريخ 03/09/2016. {{استشهاد بكتاب}}: تحقق من التاريخ في: |تاريخ الوصول= (مساعدة)
  2. أعلام العراق - كتاب تاريخي أدبي انتقادي يتضمن سيرة الإمام الألوسي الكبير و تأبين العلماء والأدباء و تراجم نوابغ الألوسيين (পিডিএফ) (الأولى সংস্করণ)। المطبعة السلفية। ১৯২৬। পৃষ্ঠা 13 - 15। ২০২০-০১-১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৯-০৩ 
  3. المسك الأذفر (পিডিএফ) (الأولى সংস্করণ)। الدار العربية للموسوعات। ২০০৭। পৃষ্ঠা 155 - 159। ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৯-০৩ 
  4. المسك الأذفر (পিডিএফ) (আরবি ভাষায়)। Arab Encyclopaedia House। ১৯৩০। পৃষ্ঠা 1157। সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। 
  5. أعلام العراق (পিডিএফ) (আরবি ভাষায়)। Salafid' Printers। ১৯২৬। পৃষ্ঠা 13 – 14। ২০২০-০১-১১ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। 
  6. أدب الطّف أو شعراء الحسين عليه السلام - ج 7। Al-Murtadha Publishers। ১৯৬৯। পৃষ্ঠা 182–184। ২০১৯-০৪-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

  • البغداديون أخبارهم ومجالسهم - ইব্রাহিম আবদুল-গনি আদ-দ্রৌবি - বাগদাদ 1958 - مطبعة الرابطة আর-রাবিতা প্রেস।
  • تاريخ الأسر العلمية في بغداد, সাইয়্যিদ মুহাম্মদ সাইদ আল-রাভি আল-বাগদাদি, ড. ইমাদ আব্দুল সালাম রউফ (1997) - বাগদাদ : সাধারণ সাংস্কৃতিক বিষয়ক হাউস।
  • تاريخ علماء بغداد في القرن الرابع عشر الهجري (চতুর্দশ হিজরি শতাব্দীতে বাগদাদের পণ্ডিতদের ইতিহাস) (প্রথম সংস্করণ) - শায়েখ ইউনুস ইব্রাহিম আস-সামাররাই (1978) - বাগদাদ : এনডোমেন্টস এবং ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রেস।
  • أعلام العراق - একটি সমালোচনামূলক ঐতিহাসিক সাহিত্য বই যাতে রয়েছে মহান ইমাম আল-আলুসির জীবনী এবং পণ্ডিত ও লেখকদের প্রশংসা, এবং আলুসি জিনিয়াসদের অনুবাদ (প্রথম সংস্করণ) - মুহাম্মদ বাহজাত আল-আছারি (1926)। . বাগদাদ: সালাফি প্রেস।
  • المسك الأذفر আল-মিস্ক আল-আতফার - মাহমুদ শুকরি আল-আলুসি (1930), আব্দুল্লাহ আল-জুবরি (1ম সংস্করণ, 2007) দ্বারা তাহকিককৃত। বাগদাদ : আরব হাউস অফ এনসাইক্লোপিডিয়াস।