আন্দ্রেস বেলিও

আন্দ্রেস বেলিও (স্পেনীয় ভাষায়: Andrés Bello) (১৭৮১-১৮৬৫) ভেনেজুয়েলীয় কবি, শিক্ষাবিদ ও পণ্ডিত। [১] তিনি ধ্রুপদী শৈলীতে দক্ষিণ আমেরিকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও গ্রামীণ জীবন তার কাব্যে বর্ণনা করেছেন। বেলিও কারাকাস শহরে জন্মগ্রহণ করেন এবং ভেনেজুয়েলা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষালাভ করেন। ১৯১০ সালে তিনি ইংল্যান্ডের লন্ডন শহরে যান এবং সেখানে কলম্বিয়া ও চিলি দূতাবাসে আইনি সহকারী হিসেবে কাজ করেন। লন্ডনে থাকাকালীন অবস্থায় তিনি দুই পর্বের মহাকাব্য লাস সিলবাস আমেরিকানাস Las Silvas Americanas ("আমেরিকান অরণ্য", ১৮২৬-১৮২৭) রচনা করেন। ১৮২৯ সালে বেলিও দক্ষিণ আমেরিকাতে ফিরে আসেন এবং চিলির একটি সরকারী পদে যোগ দেন। ১৮৪৩ সালে তিনি চিলি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম রেক্টর হওয়ার গৌরব অর্জন করেন। [২]

আন্দ্রেস বেলিও
AndresBello.jpg
জন্ম(১৭৮১-১১-২৯)২৯ নভেম্বর ১৭৮১
মৃত্যুঅক্টোবর ১৫, ১৮৬৫(1865-10-15) (বয়স ৮৩)
স্বাক্ষর
Signature of Andrés Bello, 1804.jpg

বেলিওর রচনাবলির মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণগুলি হল প্রিন্সিপিওস দে দেরেচো ইন্তেরনাসিওনাল Principios de derecho internacional ("আন্তর্জাতিক আইনবিদ্যার মূলনীতি", ১৮৩২), যা আন্তর্জাতিক আইনের একটি বহুল ব্যবহৃত পাঠ্যপুস্তক, এবং গ্রামাতিকা দে লা লেঙ্গুয়া কাস্তেইয়ানাপারা উসো দে ইস্পানো-আমেরিকানোস Gramática de la lengua castellanapara uso de hispano-americanos ("লাতিন আমেরিকানদের ব্যবহারের জন্য কাস্তিলীয় ভাষার ব্যাকরণ", ১৮৪৭)। এর মধ্যে দ্বিতীয়টি ছিল স্পেনীয় ভাষার প্রথম বৈজ্ঞানিক গবেষণা। এই বইয়ের মাধ্যমে বেলিও সমগ্র লাতিন আমেরিকার জন্য একটি মাত্র মান্য স্পেনীয় ভাষার প্রচলনের ব্যাপারে প্রস্তাব রাখা শুরু করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Leonard, Irving A. (১৯৫৪)। "Andrés Bello (1781-1865), National Hero"। The Hispanic American Historical Review34 (4): 502–505। আইএসএসএন 0018-2168জেস্টোর 2509082ডিওআই:10.2307/2509082 
  2. Oses, Darío. «Biografía de Andrés Bello». uchile.cl. Consultado el 22 de marzo de 2017.