আকাবার দ্বিতীয় শপথ

আকাবার দ্বিতীয় শপথ ইসলামের একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। ৬২২ খ্রিষ্টাব্দের জুন মাসে মদীনা থেকে ৭৫ জন মুসলমান একটি দল হজ্জ পালনের জন্যে মক্কায় আগমণ করলে তারা মুহাম্মদের নিকট শপথ করেন যে তারা ইসলামের প্রচার ও প্রসারে সাহায্য ও মুহাম্মদ কে নিরাপত্তা প্রদান করবে।[১]

শব্দ বিশ্লেষণসম্পাদনা

বাইআতে আকাবা (আরবী: بيعة عقبه) হল মুহাম্মদের মদীনায় হিজরতের পর মদীনাবাসীর ইসলাম গ্রহণের দুটি ধাপ। প্রথম ধাপকে বাইআতে আকাবায়ে ঊলা বলে। আর দ্বিতীয় ধাপকে বাইআতে আকাবায়ে ছানিয়া বলে।

শব্দ বাংলা উচ্চারণ অর্থ
بيعة বাই'আত শিষ্যত্ব গ্রহণ[২]
عقبه আক্বাবাহ ঘাঁটি[৩]
اولي উ-লা প্রথম[৪]
ثانيه ছানিয়া দ্বিতীয়[৫]

ঘটনা প্রসঙ্গসম্পাদনা

আকাবার প্রথম শপথে অংশগ্রহণকারি সাহাবা আসাদ ইবন যুরারামুসআব ইবন উমায়ের এর একান্ত প্রচেষ্টায় মদিনায় বহু মানুষ ইসলাম গ্রহণ করে ।মদিনার মানুষ সবাই মুহাম্মদ কে নেতা হিসেবে পেতে চাইলেন ।তারা আকাবার প্রথম শপথের পরের বছরেই আবারো হজের জন্য আসলেন ।

এদিকে মক্কায় মুহাম্মদ ও তার সাহাবাদের উপর অত্যাচারের মাত্রা বেড়েই চলছে । মদিনাবাসি মুহাম্মদ নিরাপত্তা ও ইসলাম গ্রহণের অঙ্গীকার দিতে চাচ্ছিলেন । সেই হিসেবে এই শপথানুষ্ঠান রাসুলকে মদিনায় নিরাপত্তা ও ইসলাম প্রসারে সাহায্য করার ব্যপারে হয়েছিলো ।

আকাবার প্রথম শপথের পরবর্তী হজ্জ মওসুমে মুসআব ইবন উমাইর[৬] সহ ৭৩ জন পুরুষ ২ জন মহিলা সহ মক্কায় আগমন করেন । মদিনাবাসীদের এই দল ১৫ই যিলহজ্জ তারিখে

মিনার জামরায়ে আকবার ঘাঁটিতে একত্রিত হয়ে গভীর রাতের অন্ধকারে গোপন আলোচনা করলেন ।

মুহাম্মদের চাচা আব্বাস ইবনে আবদুল মুত্তালিব মদিনাবাসীদের উদ্দেশ্যে বললেন,তোমরা যদি আমার ভাতিজাকে সম্পূর্ণ নিরাপত্তা ও তার ধর্ম প্রচারের ব্যপারে সহযোগিতার অঙ্গীকার দিতে পারো তাহলেই আমি মুহাম্মদকে যেতে দিতে পারি । মদিনাবাসী এই প্রস্তাব মেনে নিয়ে মুহাম্মদের হাতে কিছু শপথ ও বাইয়াত গ্রহণ করে ।[৭]

অংশগ্রহণকারী সাহাবাসম্পাদনা

আকাবার দ্বিতীয় শপথে অংশগ্রহণ করেছিলেন ৭৫ জন সাহাবা । এর মধ্যে ৭৩ জন পুরুষ এবং ২ জন মহিলা । দুইজন হচ্ছেন বনু মাজেন ইবনে নাজ্জার গোত্রের উম্মে আম্মার নাছিবা বিনতে কাব এবং বনু সালমা গোত্রের উম্মে মানিঈ আসমা বিনতে আমর

দ্বিতীয় শপথের বিষয়বস্তুসম্পাদনা

এই শপথ দুই ভাগে বিভক্ত একভাগ নবীজির কাছে সাহাবীদের শপথ অন্যদিকে দ্বিতীয় ভাগ মুহাম্মদ কতৃক ওয়াদা ।

ক) কাফেরদের নির্যাতনে বিপরীতে নারী ও শিশুর ন্যয় নবী করিম কে হেফাজাত করার শপথ।

খ) পক্ষ্যান্তরে ইসলামের বিজয় আসলে নিজ সম্প্রদায়ের কাছে ফিরে না আসার নবী কতৃক ওয়াদা ।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Jamil, Iftekhar। "আকাবার দ্বিতীয় বাইয়াত | নবীজি সা." (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৫-২৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৭ 
  2. ফজলুদ্দীন শিবলী, আবূ সুফিয়ান যাকী (জানুয়ারী ১৯৯৮)। ফরহাঙ্গে জাদীদ। চক সার্কুলার রোড, ঢাকা: রশিদিয়া লাইব্রেরী। পৃষ্ঠা ১৫০। 
  3. ফজলুদ্দীন শিবলী, আবূ সুফিয়ান যাকী (জানুয়ারী ১৯৯৮)। ফরহাঙ্গে জাদীদ। চক সার্কুলার রোড, ঢাকা: রশিদিয়া লাইব্রেরী। পৃষ্ঠা ৫৮৮। 
  4. ফজলুদ্দীন শিবলী, আবূ সুফিয়ান যাকী (১৯৯৮)। ফরহাঙ্গে জাদীদ। চক সার্কুলার রোড, ঢাকা: রশিদিয়া লাইব্রেরী। পৃষ্ঠা ৫৭। 
  5. ফজলুদ্দীন শিবলী, আবু সুফিয়ান জাকি (১৯৯৮)। ফরহাঙ্গে জাদীদ। চক সার্কুলার রোড ঢাকা: রশিদিয়া লাইব্রেরী। পৃষ্ঠা 278। 
  6. "আল আকাবার শপথ"দৈনিক পূর্বকোণ। ২০১৯-০৫-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৭ 
  7. "বায়াতে আকাবার ৩ শপথ"আলোর কাফেলা। ২০১৭-০৭-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৭ 

গ্রন্থপঞ্জিসম্পাদনা

  • সৈয়দ মুহাম্মদ মিয়াঁ, তারীখুল ইসলাম। বাংলাবাজার, ঢাকা: মাহমুদিয়া লাইব্রেরী। পৃষ্ঠা ২৩,২৪ ও ২৫।