প্রধান মেনু খুলুন

অ্যাবোটাবাদ (ایبٹ آباد) পাকিস্তানের একটি শহর। শহরটি উত্তর পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের হাজারা অঞ্চলে অবস্থিত। ওরাশ উপত্যকায় অবস্থিত শহরটি রাজধানী ইসলামাবাদ হতে ১১০ কিলোমিটার (৬৮ মা) উত্তর, রাওয়ালপিন্ডি হতে ১৩০ কিলোমিটার (৮১ মা) উত্তর এবং পেশাওয়ার হতে ১৫০ কিলোমিটার (৯৩ মা) উত্তরপূর্বে অবস্থিত। শহরটি অ্যাবোটাবাদ জেলার রাজধানী এবং সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে উচ্চতা প্রায় ১,২৬০ মিটার (৪,১৩৪ ফু)। আজাদ কাশ্মীর অ্যাবোটাবাদের পূর্বে অবস্থিত। পাকিস্তান জুড়ে শহরটি তার মনোরম আবহাওয়া, উচ্চমানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সামরিক স্থাপনার জন্য পরিচিত। এখানকার জনপ্রিয় হিল স্টেশন প্রতিবছর হাজার হাজার পর্যটক আকর্ষণ করে।

অ্যাবোটাবাদ
ایبٹ آباد
অ্যাবোটাবাদ
সিমলা হিল থেকে অ্যাবোটাবাদের দৃশ্য
সিমলা হিল থেকে অ্যাবোটাবাদের দৃশ্য
স্থানাঙ্ক: ৩৪°৯′২১″ উত্তর ৭৩°১৩′১০″ পূর্ব / ৩৪.১৫৫৮৩° উত্তর ৭৩.২১৯৪৪° পূর্ব / 34.15583; 73.21944স্থানাঙ্ক: ৩৪°৯′২১″ উত্তর ৭৩°১৩′১০″ পূর্ব / ৩৪.১৫৫৮৩° উত্তর ৭৩.২১৯৪৪° পূর্ব / 34.15583; 73.21944
দেশপাকিস্তান পাকিস্তান
প্রদেশখাইবার পাখতুনখোয়া
জেলাঅ্যাবোটাবাদ
তেহসিলঅ্যাবোটাবাদ
প্রতিষ্ঠিত১৮৬৩
উচ্চতা১২৫৬ মিটার (৪১২১ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১৭)[১]
 • মোট২,০৮,৪৯১
 অ্যাবোটাবাদ সেনানিবাস: 138,311
অ্যাবোটাবাদ মহানগর কমিটি: ৭০,১৮০
সময় অঞ্চলপিএসটি (ইউটিসি+৫)
কলিং কোড০৯৯২
ইউনিয়ন কাউন্সিলের সংখ্যা[২]
[৩]

পরিচ্ছেদসমূহ

ইতিহাসসম্পাদনা

 
'The Rock Aornos from Huzara. From Nature by General James Abbott 1850'

ব্রিটিশ শাসন আমলে অ্যাবোটাবাদ শহরটি ব্রিটিশ ভারতের হাজারা জেলার সদরদপ্তর ছিলো। পাঞ্জাব অঞ্চল দখলের পর মেজর জেমস অ্যাবোট ১৮৫৩ সালের জানুয়ারিতে অ্যাবোটাবাদ জেলা এবং শহর প্রতিষ্ঠা করেন এবং তার নামেই শহরটির নামকরণ করা হয়।[৪]

ভূগোলসম্পাদনা

 
২০১২ সালের শীতের একটি দৃশ্য
 
জেলা এবং প্রদেশের মধ্যে অ্যাবোটাবাদের অবস্থান

শহরটি সম্পূর্ণরুপে চারদিকে সারবান পাহাড় দিয়ে বেষ্টিত, যা থেকে বাসিন্দা ও পর্যটকরা অঞ্চল এবং শহরের দৃশ্য দেখতে পারে। অ্যাবোটাবাদের দক্ষিণ দিকে ডোর নদী হারনোল নগরের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত, অবশেষে অ্যাবোটাবাদের পশ্চিমে তারবেলা ড্যামে উপনীত। পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো হল উত্তর দিকে মানশেরা, পূর্ব দিকে মুজাফফরাবাদ, পশ্চিমে হরিপুর এবং দক্ষিণে ইসলামাবাদ রাজধানী এলাকা।

ভূসংস্থানসম্পাদনা

জলবায়ুসম্পাদনা

অ্যাবোটাবাদের জলবায়ু আর্দ্র প্রায় গ্রীষ্মমন্ডলীয়, বসন্তকাল ও শরৎকালের সময় তাপমাত্রা হালকা উষ্ণ, জুন ও জুলাইয়ের সময় তাপমাত্রা গরম এবং শীতকালে তাপমাত্রা হালকা ঠান্ডা থাকে। তাপমাত্রা ৩৮°সে পর্যন্ত বৃদ্ধি পায় মধ্য-গ্রীষ্মকালে এবং তাপমাত্রা -৫°সে এর নিচে যখন পতিত হয় তখন চরম ঠান্ডা ডিসেম্বর ও জানুয়ারিতে মাঝে মাঝে তুষারপাত ঘটে, যদিও এটি বিরল, যখন বর্ষাকালে ভারী বৃষ্টিপাত হয় জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শহরটির নিম্নাঞ্চলে বন্যা হয়।

অ্যাবোটাবাদ, পাকিস্তান-এর আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য
মাস জানু ফেব্রু মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টে অক্টো নভে ডিসে বছর
সর্বোচ্চ °সে (°ফা) গড় ১২
(৫৪)
১৪
(৫৭)
১৮
(৬৪)
২৩
(৭৩)
২৮
(৮২)
৩৩
(৯১)
৩০
(৮৬)
২৮
(৮২)
২৮
(৮২)
২৫
(৭৭)
২০
(৬৮)
১৫
(৫৯)
২২
(৭২)
সর্বনিম্ন °সে (°ফা) গড়
(৩৬)

(৩৯)

(৪৬)
১২
(৫৪)
১৬
(৬১)
২০
(৬৮)
২০
(৬৮)
১৮
(৬৪)
১৭
(৬৩)
১৩
(৫৫)

(৪৬)

(৩৯)
১১
(৫২)
গড় অধঃক্ষেপণ মিমি (ইঞ্চি) ৭৩
(২٫৮৭)
১০৩
(৪٫০৬)
১২৩
(৪٫৮৪)
১০৪
(৪٫০৯)
৭৩
(২٫৮৭)
৭৭
(৩٫০৩)
২৪৭
(৯٫৭২)
২৪৪
(৯٫৬১)
৯৬
(৩٫৭৮)
৫১
(২٫০১)
৩১
(১٫২২)
৪৭
(১٫৮৫)
১,২৬৯
(৪৯٫৯৫)
উৎস: Weatherbase[৫]

সরকারসম্পাদনা

অ্যাবোটাবাদ হাজারা বিভাগ ও অ্যাবোটাবাদ জেলার সদরদপ্তর। জেলা নাজিম, কমিশনার, পুলিশের ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল এবং বন রক্ষক সবাই অ্যাবোটাবাদে থাকেন। শহরটি এলাকা, নগর, কলোনি এবং উপকন্ঠে বিভক্ত।

অর্থনীতিসম্পাদনা

পর্যটনসম্পাদনা

অ্যাবোটাবাদের অর্থনীতি পর্যটনের উপর নির্ভরশীল।

শিক্ষাসম্পাদনা

গণমাধ্যমসম্পাদনা

অ্যাবোটাবাদে ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া সক্রিয়ভাবে ভূমিকা রাখছে। ক্যাবল নেট হাজারা ঐ অঞ্চলের বৃহত্তম ক্যাবল অপারেটর, পাকিস্তানি চ্যানেলগুলি জনসাধারণের নিকট প্রদান করছে। ক্যায় টু টিভি (Kay 2 TV) ঐ এলাকার হিন্দকো চ্যানেল।

অ্যাবোটাবাদে দৈনিক পত্রিকা প্রকাশিত হয়। কিছু পত্রিকা হচ্ছে "রোজনামা আজ", "রোজনামা শামাল", "ক্যায় টু টাইমস", "রোজনামা পাইন", "সাপ্তাহিক মানজার" এবং হিন্দকো পত্রিকা "চাইতা"। একটি স্থানীয় পত্রিকা "দৈনিক মাহাসিব" ১৯৯৭ সাল থেকে প্রকাশিত হয়। [৬]

খেলাধুলাসম্পাদনা

অ্যাবোটাবাদ ফ্যালকনস অ্যাবোটাবাদের পেশাদারী ক্রিকেট দল যা জাতীয় টি২০ এবং লিস্ট এ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট খেলছে। ক্রিকেট বাদে, ফিল্ড হকি ও টাএকওনডো অন্যান্য জনপ্রিয় খেলা। শহরের খেলাধুলার সুবিধা সমূহ:

  • অ্যাবোটাবাদ ক্রিকেট স্টেডিয়াম
  • অ্যাবোটাবাদ হকি স্টেডিয়াম
  • জালাল বাবা ক্রিকেট স্টেডিয়াম মালিক পুরাl
  • আবাসিন ক্যারাটে ও মার্শাল আর্টস প্রশিক্ষণ কেন্দ্র
  • জানশের খান স্কোয়াশ কমপ্লেক্স
  • এএমসি-পিসিবি গ্রাউন্ড
  • কুঞ্জ ফুটবল স্টেডিয়াম
  • নাওয়ানশেহর ফুটবল গ্রাউন্ড
  • দামট্যুর ফুটবল গ্রাউন্ড
  • বান্দা লাম্বা ফুটবল গ্রাউন্ড
  • কাকুল গ্রাউন্ড
  • বাররাহোটার ক্রিকেট স্টেডিয়াম

পরিবহনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "POPULATION AND HOUSEHOLD DETAIL FROM BLOCK TO DISTRICT LEVEL: KHYBER PAKHTUNKHWA (ABBOTTABAD DISTRICT)" (PDF)Pakistan Bureau of Statistics। ২০১৮-০১-০৩। ২০১৮-০৪-১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৪-১৭ 
  2. "URL accessed 5 April 2006"। Nrb.gov.pk। ২৮ অক্টোবর ২০০৫। ১৫ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১২ 
  3. Abbottabad District Government
  4. "Abbottabad". Encyclopedia Britannica. I: A-Ak - Bayes (15th ed.). Chicago, IL: Encyclopedia Britannica, Inc. 2010. p. 13. আইএসবিএন ৯৭৮-১-৫৯৩৩৯-৮৩৭-৮.
  5. "Weatherbase: Historical Weather for Abbottabad, Pakistan"। Weatherbase। ২০০৯। 
  6. "Daily Mahasib Edition Online E-Paper"mahasib.com.pk 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা