অর্চনা পুরান সিং

ভারতীয় অভিনেত্রী

অর্চনা পুরান সিং (জন্ম: ২৬শে সেপ্টেম্বর ১৯৬২) হলেন একজন ভারতীয় টেলিভিশন উপস্থাপক এবং চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। তিনি বলিউড চলচ্চিত্রে কমেডি চরিত্রে এবং সনি এন্টারটেইনমেন্ট টেলিভিশনে সম্প্রচারিত দ্য কপিল শর্মা শো-এর মতো কৌতুক বিষয়ক অনুষ্ঠানে বিচারক হিসাবে উপস্থিত হওয়ার জন্য সর্বাধিক পরিচিতি লাভ করেছেন। অর্চনা কুছ কুছ হোতা হ্যায়-এ মিস ব্রাগাঞ্জা, মোহাব্বতে-তে প্রিতো এবং বোল বচ্চন-এ জোহরার চরিত্রে অভিনয়ের জন্য পরিচিত। তিনি ২০০৬ সাল থেকে টেলিভিশন রিয়ালিটি কমেডি অনুষ্ঠান, কমেডি সার্কাসে একজন বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছেন এবং উক্ত অনুষ্ঠানের সমস্ত পর্বে উপস্থিত একমাত্র বিচারক ছিলেন।

অর্চনা পুরান সিং
Archana Puran Singh in 2019.jpg
অর্চনা পুরান সিং
জন্ম (1962-09-26) ২৬ সেপ্টেম্বর ১৯৬২ (বয়স ৫৯)
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাঅভিনেত্রী, বিচারক, মডেল
কর্মজীবন১৯৮২–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীপরমীত শেঠী (বি. ১৯৯২)

চলচ্চিত্র জীবনসম্পাদনা

তিনি ১৯৮৭ সালে আদিত্য পঞ্চোলির বিপরীতে নারি হীরার টিভি চলচ্চিত্র অভিষেক-এর মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র জগতে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। পরের বছর, তিনি নাসিরুদ্দিন শাহের বিপরীতে জলওয়া নামক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন, যা তাঁর জীবনের সবচেয়ে জনপ্রিয় চলচ্চিত্রগুলির মধ্যে একটি। অতঃপর তিনি অগ্নিপথ (১৯৯০), সওদাগর (১৯৯১), শোলা অর শবনম (১৯৯২), আশিক আওয়ারা (১৯৯৩) এবং রাজা হিন্দুস্তানী (১৯৯৬)-এর মতো বড় ব্যানারের চলচ্চিত্রে ছোট ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন; তিনি গোবিন্দ অভিনীত রোমাঞ্চকর ছবি বাজ এবং সুনীল শেঠি অভিনীত জাজ মুজরিম-এর মতো চলচ্চিত্রের আইটেম গানে অভিনয় করেছেন।

তারপরে, তিনি হিন্দি চলচ্চিত্রে প্রায়শই কৌতুক চরিত্রে অভিনয় করার মধ্যে নিজেকে সীমাবদ্ধ রেখেছিলেন। তাঁর সাম্প্রতিক কয়েকটি চলচ্চিত্র হল লাভ স্টোরি ২০৫০, মোহাব্বতে, কৃষ,[১] কুছ কুছ হোতা হ্যায়, মাস্তিবোল বচ্চন। এর মধ্যে অতি সফল চলচ্চিত্র মোহাব্বতে এবং কুছ কুছ হোতা হ্যায়-তে যথাক্রমে প্রিতো এবং প্রেমনিবেদনকারিনী কলেজের অধ্যাপক মিস ব্রাগাঞ্জা চরিত্র তাঁর জীবনের অন্যতম স্মরণীয় চরিত্র। ২০০৯ সালে তিনি পাঞ্জাবি চলচ্চিত্র তের মেরা কি রিশতা-এ অভিনয় করেছেন।

টেলিভিশন জীবনসম্পাদনা

তিনি ১৯৯৩ সালে জি টিভিতে তাঁর জনপ্রিয় টেলিভিশন অনুষ্ঠান ওয়াহ, কেয়া সিন হ্যায়-এর মাধ্যমে টেলিভিশন জগতে অভিষেক করেছেন, এর পরে অত্যন্ত সফল টেলিভিশন অনুষ্ঠান আনসেন্সরডেড-এ উপস্থিত হয়েছেন; যেখানে তিনি হাই সোসাইটি (এইচএস) এবং লো সোসাইটি (এলএস) ধারণাটি চালু করেছিলেন। অতঃপর তিনি সনি এন্টারটেইনমেন্ট টেলিভিশনের জানে ভি দো পারো, শ্রীমান শ্রীমতী এবং অর্চনা টকিজের মত অনুষ্ঠানে কাজ করেছেন।[২]

কর্মজীবনের পরের অংশে, তিনি টেলিভিশন নির্মাতাদের কাছ থেকে বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানের প্রস্তাব পেয়েছিলেন এবং তার বেশিরভাগই সফল টেলিভিশন ধারাবাহিক ছিল; যার মধ্যে জুনুন এবং শ্রীমান শ্রীমতী উল্লেখযোগ্য।[৩] এছাড়াও তিনি সেলিব্রিটি অতিথিদের সমন্বিত আলাপচারি অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করেছেন।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

অর্চনা পুরান সিং ১৯৬২ সালের ২৬শে সেপ্টেম্বর তারিখে ভারতের উত্তর প্রদেশের (বর্তমানে উত্তরাখণ্ড) দেরাদুনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন, সেখানের যীশু ও মেরির কনভেন্ট হতে তিনি তাঁর স্কুল জীবনের পড়াশোনা সম্পন্ন করেছেন। তারপরে তিনি লেডি শ্রী রাম কলেজ ফর উইমেন-এ ইংরেজি বিভাগ হতে সাম্মানিক ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন এবং তিনি অভিনেতা হওয়ার স্বপ্ন অনুসরণ করতে মুম্বই চলে যান। তিনি ১৯৯২ সালে অভিনেতা পরমীত শেঠীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। তাঁদের আর্যমান ও আয়ুষ্মান নামে দুটি ছেলে রয়েছে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Alive and kicking The Tribune, 6 May 2006.
  2. Archana uncensored Times of India, 27 June 2002.
  3. "Rashami-Shilpa to reprise Reema and Archana's roles from Shriman Shrimati"। Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা