অভিনব ভারত একটি হিন্দু জাতীয়তাবাদী সগঠন।এটি ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্য-কেন্দ্রিক। ২৯শে সেপ্টেম্বরে পশ্চিম ভারতের মালেগাঁওতে বোমাহামলার জন্য এই দলের সদস্যদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ইতিহাসসম্পাদনা

ভারত স্বাধীন হওয়ার পূর্বেই বিনায়ক দামোদর সাভারকর এই দল গঠন করেন। পরবর্তীতে সাভারকরের নাতনি এবং গান্ধীবধ করা নাথুরাম গডসের একজন আত্মীয় এই দলের পুনর্জন্ম দেন।[১]

দলটি ভারতের অভ্যন্তরে সশস্ত্র সংগ্রাম পরিচালনা করার ডাক দিয়েছে বলে কংগ্রেসের রাজনীতিকেরা অভিযোগ করেছেন।[২]

সংঘ পরিবারের অন্যান্য দলের সাথে সম্পর্কসম্পাদনা

সংঘ পরিবার এর অন্যান্য দলগুলো অভিনব ভারতের সাথে নিজেদের কোনো সম্পর্ক অস্বীকার করেছে। তাদের দাবী, অভিনব ভারতের মতো সন্ত্রাসী দলগুলো হিন্দু জাতীয়তাবাদের খুবই অণুল্লেখ্য অংশ।[৩] বিশ্ব হিন্দু পরিষদের প্রধান নেতা প্রবীণ তোগাদিয়া আশঙ্কা প্রকাশ করেন, অভিনব ভারত দিনে দিনে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের জঙ্গী সদস্যদের আকৃষ্ট করে দল থেকে নিয়ে যাচ্ছে।[৪] বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সাবেক সদস্য এবং বর্তমানে অভিনব ভারতের কর্মীদের মধ্যে আছে মধ্য প্রদেশের নেতা সমীর কুলকার্নি।[৫] হিন্দুত্ববাদের জন্য কাজ করছেনা, এই অভিযোগ অভিনব ভারতের সদস্যরা রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের প্রবীণ নেতাদের হত্যার ষড়যন্ত্র করছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।[৬]

কর্মকান্ড ও গ্রেপ্তারসম্পাদনা

মালেগাঁও এর বোমা হামলার তদন্ত শেষে অভিনব ভারতের বেশ কিছু সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। এই দলটি ভারতের আরো কিছু সন্ত্রাসী হামলার সাথে জড়িত বলে অভিযোগ করা হয়।[৭] বেশ কয়েকজন বর্তমান ও প্রাক্তন সেনা কর্মকর্তা এই দলের জঙ্গীবাদে প্রত্যক্ষভাবে অংশ নিয়েছেন বলে ধারণা করা হয়।[৫] তবে স্বপন দাশগুপ্তের মতে দলটির কাজকর্ম কাল্পনিক মাত্র ("letterhead or part of a fantasy world")[৮]

তদন্তের এক পর্যায়ে দলটির ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেয়া হয়।[৯]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা