অটবি, হচ্ছে বাংলাদেশের প্রথম সারির একটি আসবাবপত্র নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান।[১][২] প্রতিষ্ঠানটি নিতুন কুন্ড ১৯৭৫-এ প্রতিষ্ঠা করেন। সময়ের পরিষরে প্রতিষ্ঠানটি আজ বাংলাদেশের অন্যতম আসবাবপত্র নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান।২০১৫-এ বিদ্যুৎ কুমার বসু প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ পান।[৩][৪][৫][৬]

অটবি
প্রাইভেট
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৭৫
সদরদপ্তরঢাকা
প্রধান ব্যক্তি
অনিমেষ কুন্ড
পণ্যসমূহআসবাবপত্র
ওয়েবসাইটhttp://www.otobi.com/

ইতিহাসসম্পাদনা

প্রথমদিকে এটির নাম ‘অটবি’ ছিল না। তখন এর নাম ছিল ‘দ্য ডিজাইনার্স’। ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত এই নাম ছিল। এরপর এটির নাম হয়, ‘আর্ট-ইন-ক্রাফ্ট’। সর্বশেষে ১৯৮৪ সালে ‘অটবি প্রাইভেট লিমিটেড’ নামে বাজারজাত শুরু করে। ‘অটবি’ শব্দের অর্থ বন বা কানন। প্রথমে এলিফ্যান্ট রোডে একটি শোরুম দিয়ে যাত্রা শুরু হয় অটবির। যেটি এখনো আছে। দ্বিতীয় শোরুম প্রতিষ্ঠিত হয় দিলকুশায়। ওয়ার্কশপ শুরু হয় শুক্রাবাদ থেকে। এরপর মিরপুর, শ্যামপুর ও সাভারে পর্যায়ক্রমে স্থায়ীভাবে বড় ওয়ার্কশপ বা ফ্যাক্টরি স্থাপিত হয়। ’৯২-এর পর শোরুম আরো বাড়তে থাকে। ১৯৯৮ সালে সারা বাংলাদেশে ডিলারশিপ নিয়োগ শুরু হয়। বর্তমানে দেশের সবক’টি জেলা এমনকি থানা পর্যায়েও অটবির শোরুম রয়েছে।

বিস্তৃতিসম্পাদনা

অটবি বাংলাদেশের অন্যতম রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান হিসেবে বেড়ে উঠেছে। বর্তমানে অটবি নিয়মিত পণ্যের বাইরে অফিস, হোম, হসপিটাল, ওয়ার হাউজ সিস্টেম ইত্যাদির সলিউশন দিচ্ছে। দেশের বাইরেও অটবির পণ্য রপ্তানি হয়। সার্কভুক্ত প্রতিটি দেশেই অটবির পণ্য বাজারজাত হয়। এছাড়া মধ্যপ্রাচ্যে অটবির বাজার রয়েছে। এদের মধ্যে ভারতে অটবির সর্বাধিক পণ্য রপ্তানি হয়। অটবির সবচেয়ে বড় বাজার ভারতে।[৭][৮][৯]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Otobi wood furniture hit market by Sept"The Daily Star। ২০০৮-০৭-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৯ 
  2. "Furniture and electronics vendors pin hopes on Eid"The Daily Star। ২০১৩-০৭-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৯ 
  3. "Power venture, factory fire weigh Otobi down | TRADE & MARKET | The financial express"। ২০১৬-১০-৩০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৯ 
  4. Rashid, Mamun (২০১১-০২-২০)। "Bangladesh brands"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৯ 
  5. "New CEO for Otobi"The Daily Star। ২০১৫-১১-১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৯ 
  6. "Quietly, Otobi dismantles its power plant"The Daily Star। ২০১৬-০৭-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৯ 
  7. Sohel Parvez (২০০৯-১১-১৮)। "Otobi coming of age"। Thedailystar.net। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১২-২৭ 
  8. "Hatil expands into Toronto"The Daily Star। ২০১৪-০৫-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৯ 
  9. "নিতুন কুন্ডুর শিল্পপরিসর"ইত্তেফাক। ২০১৬-০৯-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৪-১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা